৮:২৫ পূর্বাহ্ণ - শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর , ২০১৮
Breaking News
Download http://bigtheme.net/joomla Free Templates Joomla! 3
Home / Uncategorized / পিলখানা হত্যা মামলার ডেথ রেফারেন্স ও আপিল শুনানি গ্রহণকারী তিন বিচারকের নিরাপত্তা নিশ্চিতের নির্দেশ

পিলখানা হত্যা মামলার ডেথ রেফারেন্স ও আপিল শুনানি গ্রহণকারী তিন বিচারকের নিরাপত্তা নিশ্চিতের নির্দেশ

high-courtঢাকা, ২৬ নভেম্বর ২০১৫ (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): আজ বৃহস্পতিবার বিচারপতি মো. শওকত হোসেনের নেতৃত্বাধীন তিন সদস্যের হাইকোর্ট-এর বিশেষ বেঞ্জ স্বপ্রণোদিত হয়ে পিলখানা হত্যা মামলার ডেথ রেফারেন্স ও আপিল শুনানি গ্রহণকারী তিন বিচারকের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার নির্দেশ দিয়েছেন। বেঞ্চের অন্য সদস্যরা হলেন- বিচারপতি মো. আবু জাফর সিদ্দিকী ও বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার।

আদেশের অনুলিপি পাওয়ার সাত দিনের মধ্যে স্বরাষ্ট্র সচিব, আইন সচিব, পুলিশ মহাপরিদর্শক ও ঢাকার পুলিশ কমিশনারকে এ বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে।

আদেশের পর ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল জেনারেল কে এম জাহিদ সারওয়ার কাজল জানান, ‘আসামির সংখ্যার দিক দিয়ে দেশের ইতিহাসে এটাই সবচেয়ে বড় মামলা হওয়ায় এবং বর্তমান প্রেক্ষাপট বিবেচনায় নিয়ে বিচারকদের নিরাপত্তা বাড়ানোর এ নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।’

এই বেঞ্চে পিলখানা হত্যা মামলায় ১৫২ আসামির ডেথ রেফারেন্সের (মৃত্যুদণ্ড অনুমোদন) ওপর শুনানি চলছে। শুনানিতে রাষ্ট্রপক্ষ ডেথ রেফারেন্সের সমর্থনে যুক্তি দিচ্ছে।

হাইকোর্টে এ মামলার শুনানি শুরু হয় চলতি বছরের ১৮ জানুয়ারি। শুনানির ১২৪তম দিনে ১ নভেম্বর রাষ্ট্রপক্ষ পেপারবুক (মামলার বৃন্তান্ত ও রায়সহ বই) উপস্থাপন শেষ করলে আদালত ৮ নভেম্বর রাষ্ট্রপক্ষের যুক্তি উপস্থাপনের দিন রাখে।

bdr-murder-case   2611.15আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করছেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম ও ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল জাহিদ সারওয়ার কাজল। তাদের সঙ্গে আছেন সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল গাজী মো. মামুনুর রশীদ ও মো. আসাদুজ্জামান। আসামিপক্ষে রয়েছেন আইনজীবী এস এম শাহজাহান, আমিনুল ইসলাম ও শামীম সরদার।

২০০৯ সালের ২৫ ও ২৬ ফেব্রুয়ারি পিলখানার বিডিআর (বর্তমানে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ- বিজিবি) সদর দফতরে সংঘটিত হয় বিডিআর বিদ্রোহ। ২০১৩ সালের ৫ নভেম্বর ৫৭ সেনা সদস্যসহ ৭৪ জনকে হত্যার দায়ে ১৫২ বিডিআর সদস্যকে মৃত্যুদণ্ডের রায় দেন বিচারিক আদালত। ওই রায়ের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে খালাসপ্রাপ্ত ২৭৭ আসামির মধ্যে ৬৯ আসামির সাজা চেয়ে আপিল করে রাষ্ট্রপক্ষ। অন্যদিকে, দণ্ডপ্রাপ্ত ৪১০ আসামির সাজা বাতিল চেয়ে রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করেন আসামিদের আইনজীবীরা।

আসামিদের মধ্যে তৎকালীন বিডিআরের ডিএডি তৌহিদসহ ১৫২ বিডিআর সদস্যকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়। তাদের মধ্যে ১৪ জন পলাতক রয়েছেন।

অন্যরা য়া পড়ছে...

Loading...



চেক

মাইন বিস্ফোরণে মালিতে জাতিসংঘের ৮ শান্তিরক্ষী সদস্য হতাহত

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক, ০১ মার্চ ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): মালির মধ্যাঞ্চলে বুধবার মাইন বিস্ফোরণে জাতিসংঘ শান্তিরক্ষী …

দক্ষিণ আফ্রিকান তারকা হাশিম আমলা হ্যাম্পশায়ারের সাথে সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্য চুক্তি করলেন

স্পোর্টস ডেস্ক, ০১ মার্চ ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): আসন্ন ইংলিশ মৌসুমে প্রথম তিন মাসের জন্য …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

My title page contents