৭:৩৩ পূর্বাহ্ণ - সোমবার, ২৪ সেপ্টেম্বর , ২০১৮
Breaking News
Download http://bigtheme.net/joomla Free Templates Joomla! 3
Home / ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা সন্তানের পরিচয় দিয়ে চাকরি করার অভিযোগে দুদকের চার্জশিট

ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা সন্তানের পরিচয় দিয়ে চাকরি করার অভিযোগে দুদকের চার্জশিট

dudok 24.11.15ঢাকা, ২৪ নভেম্বর ২০১৫ (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা মো. মনিরুজ্জামানের বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। তদন্তে নিজের জন্মদাতা বাবার পরিচয় পরিবর্তন করে ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা সনদ দিয়ে চাকরি করার অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় এ চার্জশিট দাখিল করা হয়েছে।

মঙ্গলবার দুদকের উপপরিচালক ও মামলা তদন্তকারী কর্মকর্তা খোন্দকার খলিলুর রহমান মহামান্য আদালতে চার্জশিটটি দাখিল করেন। চার্জশিট নং ৩৩৭। গত ২০ অক্টোবর মনিরুজ্জামানকে একমাত্র আসামি করে এ চার্জশিট দাখিলের অনুমোদন দেয় কমিশন। দুদক সূত্র বাংলামেইলকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

দুদকের তদন্ত সূত্রে জানা যায়, মানিকগঞ্জের সাটুরিয়া উপজেলার দড়গ্রাম ইউনিয়নের তেবারিয়া বাড়িয়া গ্রামের দুই ভাই মো. মইনুল ইসলাম ও মো. মনিরুজ্জামান। তারা নিজের বাবার পরিচয় গোপন করে ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা সনদ জমা দিয়ে মুক্তিযোদ্ধা কোটায় চাকরি নিয়েছিলেন। বিষয়টি দুদকের অনুসন্ধানে প্রাথমিকভাবে প্রমাণিত হওয়ায় তাদেরকে আসামি করে গত ১৫ জানুয়ারি ও ২১ এপ্রিল পৃথক দু’টি মামলা করা হয়। এজন্য চাকরি পাওয়ার এক বছরের মধ্যে চাকরি হারাতে হয় ওই দুই ভাইকে। এর মধ্যে ছোটভাই মনিরুজ্জামান জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের অধীনে শুল্ক, আবগারি ও ভ্যাট অনুবিভাগের সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা ছিলেন।

দুদকের তদন্তে আরো দেখা যায়, মনিরুজ্জামান যে মুক্তিযোদ্ধা সার্টিফিকেট জমা দিয়ে চাকরি নিয়েছিলেন, সেটি সঠিক ছিল। তবে এটা তার বাবা মো. আব্দুল সামাদের নয়। দড়গ্রাম ইউনিয়নের তেবারিয়া বাড়িয়া গ্রামের আব্দুল সামাদ কোনো মুক্তিযুদ্ধ করেননি। তবে আসল মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন একই উপজেলার বরাইদ ইউনিয়নের ছনকা গ্রামের আব্দুস সামাদ। তার বাবার নাম ইয়াছিন মণ্ডল। তার মুক্তি বার্তা নম্বর ০১০৭০৫০১১৯।

আর তেবারিয়া বাড়িয়া গ্রামের মো. আব্দুল সামাদের বাবার নাম আব্দুল মুন্নাফ। যিনি মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন না। ওই দুই ভাই পাশের ইউনিয়ন থেকে আসল মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস সামাদের সনদ নিয়ে প্রতারণার মাধ্যমে ও ইউপি চেয়ারম্যানের জাল চারিত্রিক সনদপত্র দিয়ে চাকরি নিয়েছিলেন।

যদিও গত বছরের ২১ ডিসেম্বরে মইনুল ইসলামকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। আর সব অভিযোগ উঠলে মুনিরুজ্জামান নিজেই চাকরি থেকে ইস্তাফা দেন। সৌজন্যে বাংলামেইল

অন্যরা য়া পড়ছে...

Loading...



চেক

বিকল্পের সন্ধানে কোটা বাতিলের প্রজ্ঞাপনে দেরি হচ্ছে : ওবায়দুল কাদের

ঢাকা, ১৩ মে ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষণা অনুযায়ী সরকারি চাকরিতে কোটা …

স্যাটেলাইট মহাকাশে ঘোরায় বিএনপির মাথাও ঘুরছে : মোহাম্মদ নাসিম

ফেনী, ১৩ মে ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ মহাকাশে উৎক্ষেপণ হওয়ায় বিএনপির মাথাও ঘুরছে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

My title page contents