১০:৫৪ পূর্বাহ্ণ - বৃহস্পতিবার, ১৫ নভেম্বর , ২০১৮
Breaking News
Download http://bigtheme.net/joomla Free Templates Joomla! 3
Home / অর্থনীতি / ৮বার দাম বাড়ানোর পরও বিদ্যুৎ খাতে ঘাটতি চার হাজার কোটি টাকা : তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী

৮বার দাম বাড়ানোর পরও বিদ্যুৎ খাতে ঘাটতি চার হাজার কোটি টাকা : তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী

ঢাকা, ২৪ নভেম্বর, ২০১৭ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): আজ শুক্রবার সকালে বিদ্যুৎ ভবনে এক কর্মশালার উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রীর বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ বিষয়ক উপদেষ্টা তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী বলেছেন, বিদ্যুতের দাম আটবার বাড়ানোর পরও বিদ্যুৎ উৎপাদনে সরকারকে চার হাজার কোটি টাকা ভর্তুকি দিতে হবে।  তবে একে সরকার বিনিয়োগ হিসেবে দেখছে বলেও জানিয়েছেন তিনি। বিদ্যুতের দাম পাঁচ শতাংশের কিছু বেশি বাড়ানোয় জনগণের ওপর তেমন প্রভাব ফেলবে না বলেও দাবি করেন তিনি।

বর্তমান সরকারের আমলে বিদ্যুৎ উৎপাদন প্রায় তিন ‍গুণ এবং উৎপাদন ক্ষমতা চার গুণেরও বেশি বাড়লেও বিদ্যুতের দামও বেড়েছে দফায় দফায়। সব শেষ বৃহস্পতিবার এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন ইউনিটপ্রতি ৩৫ পয়সা করে (শতকরা ৫.৩ শতাংশ) দাম বাড়ানোর কথা জানিয়েছে। এ নিয়ে ২০০৯ সাল থেকে আটবার বাড়ানো হলো দাম।

বিদ্যুৎ বিতরণ কোম্পানিগুলো অবশ্য এর চেয়ে বেশি দাম বাড়ানোর প্রস্তাব করেছিল। তারা পাইকারিতে ইউনিটপ্রতি প্রায় ১৫ শতাংশ এবং গ্রাহক পর্যায়ে ছয় থেকে সাড়ে ১৪ শতাংশ বাড়ানোর প্রস্তাব করে। এর মধ্যে ডিপিডিসি গ্রাহক পর্যায়ে ৬.২৪ শতাংশ, ডেসকো ৬.৩৪, ওজোপাডিকো ১০.৩৬, আরইবি ১০.৭৫ এবং পিডিবি ১৪.৫ শতাংশ দাম বাড়ানোর প্রস্তাব দেয়।

তবে বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধির শুনানিতে ভোক্তা অধিকারবিষয়ক সংগঠন কনজ্যুমারস অ্যসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ-ক্যাব এক উপস্থাপনায় বলেছিল, বর্তমান পরিস্থিতি বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর বদলে কমানো সম্ভব।

প্রধানমন্ত্রীর জ্বালানি উপদেষ্টা বলছেন, বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন সবকিছু বিবেচনায় নিয়েই এ মূল্য নির্ধারণ করেছে। এ বিষয়ে আমি কিছু বলতে পারব না। তবে আমাদের তথ্য অনুযায়ী, সাম্প্রতিক মূল্যবৃদ্ধির পরও বিদ্যুতে চার হাজার কোটি টাকা ঘাটতি থাকে। তবে প্রধানমন্ত্রী এই টাকাকে ঘাটতি না বলে দেশের আর্থসামাজিক উন্নয়নের জন্য বিনিয়োগ বলে উল্লেখ করেন।

শতকরা ৫.৩ শতাংশ দাম বাড়নোয় জনজীবনে তেমন কোন প্রভাব পড়বে না দাবি করে তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী বলেন, যদিও হয়, তবে মামুলি প্রভাব ফেলবে বলে আশা করছি। খুবই অল্প। এটা নিয়ে রাজনীতি করার কিছু নেই।

এখন দেশের ৮৪ ভাগ লোক বিদ্যুৎ পাচ্ছে। আমরা চাই বাংলাদেশের সবাই বিদ্যুৎ পাক। এজন্য বিদ্যুতের সম্প্রসারণ লাগবে।

বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য ব্যবহৃত তেলের মূল্য কমিয়ে বিদ্যুতের দাম স্থিতিশীল রাখা যেত কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, বিদ্যুৎ বলেন- আর যাই বলেন, এক জায়গায় ভর্তুকি কমালে আরেক জায়গায় বাড়ে।

অন্যরা য়া পড়ছে...

Loading...



চেক

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ওমরাহ পালন

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৃহস্পতিবার রাতে এখানে পবিত্র …

জনগণ ছেড়ে বিদেশিদের কাছে কেন : ঐক্যফ্রন্টকে ওবায়দুল কাদের

গাজীপুর, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): শুক্রবার বিকেলে গাজীপুরের চন্দ্রায় ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক চার লেনে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

My title page contents