৭:০৮ পূর্বাহ্ণ - বৃহস্পতিবার, ২০ জুন , ২০১৯
Breaking News
Download http://bigtheme.net/joomla Free Templates Joomla! 3
Home / আন্তর্জাতিক / স্বাধীনতা ঘোষণা দেয়ায় ক্ষমতাচ্যুত কাতালোনিয়ার বরখাস্ত ৮ মন্ত্রী জেল হাজতে

স্বাধীনতা ঘোষণা দেয়ায় ক্ষমতাচ্যুত কাতালোনিয়ার বরখাস্ত ৮ মন্ত্রী জেল হাজতে

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক, ০৩ নভেম্বর, ২০১৭ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): স্বাধীনতা ঘোষণা দেয়ায় ক্ষমতাচ্যুত কাতালোনিয়া অঞ্চলের সরকারের বরখাস্ত ৮ মন্ত্রীকে রিমান্ডে নেয়ার আদেশ দিয়েছেন আদালত। গতকাল বৃহস্পতিবার এক শুনানি শেষে স্পেনের একটি আদালতের বিচারক তাদের রিমান্ডে নেয়ার আদেশ দেন বলে বিবিসির খবরে বলা হয়েছে।

শুনানিকালে আইনজীবীরা কাতালোনিয়া সরকারের ৯ সদস্যের মধ্য ৮ জনকে পুলিশ হেফাজতে নেয়ার আবেদন জানান। এদের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ, উসকানি ও সরকারি তহবিলের অপব্যবহারের অভিযোগ আনা হয়েছে।

কাতালোনিয়ার নেতা পুজেমন বৃহস্পতিবার আদালতের শুনানিতে হাজির না হওয়ায় স্পেনের প্রধান কৌঁসুলি সর্বোচ্চ আদালতকে তার বিরুদ্ধে ইউরোপিয়ান গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির অনুরোধ জানান। তবে বেলজিয়াম থেকে পুজেমনের আইনজীবী বলেছেন, স্পেনের পরিবেশ এ মুহূর্তে ভালো নয়। তার মক্কেল কিছুটা দূরত্ব বজায় রাখতে চান। কিন্তু তিনি আদালতকে সহযোগিতা করবেন।

নেতারা হলেন, সাবেক ডেপুটি ভাইস প্রেসিডেন্ট ওরিয়ল জাঙ্কুয়ার্স, সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জোয়াকিম ফোর্ন, সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী রা এল রোমিভা, সাবেক বিচারমন্ত্রী কার্লোস মুন্ড, সাবেক শ্রমমন্ত্রী ডলাস বাস্সা, সাবেক সরকারি প্রেসিডেন্সি কাউন্সিলর জর্ডি তুরুল, সাবেক উন্নয়ন বিষয়কমন্ত্রী জোসেপ রুল ও সাবেক সংস্কৃতিমন্ত্রী মেরিটেক্সেল বোরাস।

তবে সাবেক বাণিজ্যমন্ত্রী শান্তি ভিয়ার জামিন আবেদন গ্রহণ করেছেন আদালত। গত শুক্রবার কাতালোনিয়ার স্বাধীনতার ঘোষণার জন্য ভোটাভুটি শুরুর আগে তিনি পদত্যাগ করেন।

গত ১ অক্টোবর অনুষ্ঠিত স্বাধীনতার প্রশ্নে গণভোটকে কেন্দ্র করে বিচ্ছিন্নতাবাদ ও রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগে কাতালোনিয়ার নেতা কার্লোস পুজেমনসহ তার সরকারের ১৯ সদস্যের বিরুদ্ধে সমন জারি করেন আদালত। বিচ্ছিন্নতাবাদ, রাষ্ট্রদ্রোহ ও সরকারি তহবিলের অপব্যবহারের অভিযোগে স্পেনের একটি কোর্টে বৃহস্পতিবার শুনানি হয়। শুনানি শেষে ক্ষমতাচ্যুত কাতালোনিয়া সরকারের আট মন্ত্রীকে রিমান্ডে নেয়ার আদেশ দেন আদালত।

কাতালোনিয়ার বাতিল হওয়া সরকারের সদস্যদের বিরুদ্ধে স্পেনের কৌঁসুলিদের দায়ের করা রাষ্ট্রদ্রোহের মামলায় অভিযোগ প্রমাণিত হলে ১৫ থেকে ৩০ বছরের কারাদণ্ড হতে পারে। কাতালোনিয়ার ভেঙে দেয়া পার্লামেন্টের আট সদস্য বৃহস্পতিবার আদালতে গেলেও দুজনসহ তার সরকারের চার মন্ত্রী হাজির হননি। তারা বেলজিয়ামে অবস্থান করছেন। সেখানে পুজেমন বলেছেন, এটি স্পেন সরকারের একটি রাজনৈতিক মামলা।

এদিকে কাতালোনিয়ার ওই আট নেতা বৃহস্পতিবার আদালতে হাজিরা দিতে গেলে সমর্থকেরা তাদের অভিনন্দন জানান। তবে স্পেনের পতাকা হাতে দেশটির ঐক্যের পক্ষের লোকজনও উপস্থিত ছিলেন সেখানে। তারা ওই নেতাদের তিরস্কার করেন। সমর্থকদের মধ্যে কাতালোনিয়ার ৩০ জনের একটি আইনজীবী দল আদালত প্রাঙ্গণে উপস্থিত ছিল। নেতারা উপস্থিত হলে তারা ‘তোমরা একা নও’ বলে স্লোগান দিতে থাকেন।

অন্যরা য়া পড়ছে...

Loading...



চেক

সকল ধর্ম ও বর্ণ নির্বিশেষে সকলকে উন্নয়নের এই ধারা অব্যাহত রাখতে হবে : রাষ্ট্রপতি

ঢাকা, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): রাষ্ট্রপতি মো: আবদুল হামিদ দেশের শান্তি ও অগ্রগতি …

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ওমরাহ পালন

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৃহস্পতিবার রাতে এখানে পবিত্র …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

My title page contents