১১:৩৮ অপরাহ্ণ - সোমবার, ১৯ নভেম্বর , ২০১৮
Breaking News
Download http://bigtheme.net/joomla Free Templates Joomla! 3
Home / অর্থনীতি / রোহিঙ্গাদের স্বাস্থ্যসেবা দিতে বিশ্বব্যাংকের কাছে ২৫০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার চেয়েছে বাংলাদেশ

রোহিঙ্গাদের স্বাস্থ্যসেবা দিতে বিশ্বব্যাংকের কাছে ২৫০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার চেয়েছে বাংলাদেশ

ঢাকা,২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): আজ সোমবার রোহিঙ্গাদের স্বাস্থ্যসেবা ও দুর্যোগকালীন চিকিৎসা সহায়তা বিষয়ে বিশ্বব্যাংক ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রতিনিধি দলের সঙ্গে বৈঠকের পর স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেক সাংবাদিকদের বলেছেন,  মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে আসা রোহিঙ্গাদের স্বাস্থ্যসেবা দিতে বিশ্বব্যাংকের কাছে ২৫০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার চেয়েছে বাংলাদেশের সরকার।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, তারা এর চেয়ে (২৫০ ডলার) বড় একটা অংশ দেবেন বলে জানিয়েছেন। তবে কত পাচ্ছি তা এখনই জানানো সম্ভব নয়।

স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ অতীতে যেভাবে বিভিন্ন দুর্যোগ মোকাবিলায় সফল হয়েছে, তেমনি এবারও রোহিঙ্গা শরণার্থীদের সহায়তা কাজেও সফল হবে। তিনি বলেন, মহামারি ও দুর্যোগ মোকাবিলায় বিশ্বের যে ৭৫টি দেশকে বিশ্বব্যাংক সহযোগিতা করার জন্য তালিকাভুক্ত করেছে বাংলাদেশ তাদের অন্যতম। বিশ্ব ব্যাংকের গ্রেডিং অনুযায়ী মানদণ্ড পাঁচ পয়েন্ট অর্জন করার ক্ষেত্রে বাংলাদেশের গ্রেডিং বর্তমানে ২.৫। বর্তমান অবস্থান অনুযায়ী বাংলাদেশ বিশ্বব্যাংকের অনুদান পাওয়ার যোগ্য। তবে এই অর্থ সফলভাবে ব্যয় করতে হলে বাংলাদেশের প্রস্তুতিকে আরও এগিয়ে নিয়ে ৪ পয়েন্ট গ্রেডিং-এ উন্নীত করতে হবে। দক্ষ জনবল সৃষ্টি, উন্নতমানের ল্যাবরেটরি স্থাপন, যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন, পর্যবেক্ষণ ব্যবস্থাপনা শক্তিশালীকরণ, প্রশিক্ষণের মান বৃদ্ধি ও যন্ত্রপাতির আধুনিকায়নের মাধ্যমে বাংলাদেশকে সব ধরনের মহামারি ও দুর্যোগ মোকাবিলায় প্রস্তুত করে তুলতে সরকার উদ্যোগ নিচ্ছে। এসময় তিনি রোহিঙ্গা শরণার্থীদের চিকিৎসা সহায়তা কার্যক্রমে সরকারের গৃহীত বিভিন্ন পদক্ষেপের কথা তুলে ধরেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব হাবিবুর রহমান খান।

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে গত ২৫ আগস্ট সহিংসতা শুরুর পর বাংলাদেশ সীমান্তে রোহিঙ্গাদের ঢল নামে। ২৫ আগস্ট রাতে এআরএসএ-র বিদ্রোহীরা পশ্চিম রাখাইনে প্রায় ৩০টি পুলিশ ফাঁড়ি ও সেনাবাহিনীর শিবিরের ওপর একযোগে হামলা চালিয়ে সরকারি বাহিনীর ১২ জনকে হত্যা করেছে বলে দাবি করে মিয়ানমার।

এ ঘটনার পর থেকেই দেশটির রাখাইন রাজ্যে নতুন করে সহিংসতা শুরু হয়, রোহিঙ্গা বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে অভিযানে নামে মিয়ানমারের সরকারি বাহিনী। বৌদ্ধ সংখ্যাগরিষ্ঠ মিয়ানমারের সরকারের দাবি, অভিযানে চারশরও বেশি মানুষ নিহত হয়েছে যাদের অধিকাংশই বিদ্রোহী।

কিন্তু প্রাণের ঝুঁকি নিয়ে সীমান্ত পাড়ি দিয়ে লাখ লাখ রোহিঙ্গার বাংলাদেশে প্রবেশে সহিংসতার মাত্রা যে আরও অনেক ব্যাপক তা টের পাওয়া যায়। পালিয়ে আসা এসব রোহিঙ্গা শরণার্থীরা মিয়ানমারের সরকারি বাহিনী ও বৌদ্ধ বেসামরিক বাহিনীর বিরুদ্ধে হত্যা, খুন, ধর্ষণ, লুটপাট ও বাড়িঘর-দোকানপাটে অগ্নিসংযোগের অভিযোগ করে। সহিংসতা শুরুর পর থেকে এ পর্যন্ত সাড়ে চার লাখ রোহিঙ্গা পালিয়ে বাংলাদেশে এসে আশ্রয় নিয়েছে।

রোহিঙ্গা বিদ্রোহীদের হামলার জবাবে মিয়ানমার সরকার রাখাইনে রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে যে অভিযান শুরু করেছে তাকে জাতিগত নির্মূল অভিযান বলে বর্ণনা করেছে জাতিসংঘ। অপরদিকে মিয়ানমার জাতিগত নির্মূলের অভিযোগ অস্বীকার করে বলেছে তারা সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে লড়াই করছে।

রোহিঙ্গা শরণার্থীদের সাহায্যার্থে বাংলাদেশের আবেদনকে সক্রিয়ভাবে বিবেচনা করা হবে বলে আশ্বস্ত করে বিশ্ব ব্যাংকের হিউম্যান ডেভেলপমেন্ট নেটওয়ার্কের মুকেশ চাওলা বলেন, রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে খাদ্য, বাসস্থান ও চিকিৎসা সেবাকালে বাংলাদেশ এখন পর্যন্ত সফলভাবে কাজ করছে। তিনি বলেন, অতীতে বিভিন্ন দেশে মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়া ইবোলা ও জিকা ভাইরাস ঠেকাতে বাংলাদেশের সাফল্যে বিশ্ব ব্যাংক গর্বিত। তবে ভবিষ্যতে বড় ধরনের দুর্যোগ ও মহামারি মোকাবিলায় বাংলাদেশকে এখন থেকে প্রস্তুতি নেয়ার কাজ শুরু করতে হবে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার বাংলাদেশ প্রতিনিধি ড. এম. পারানিথরন রোহিঙ্গাদের স্বাস্থ্যসেবা প্রদানে সরকারের সাফল্যের ভূয়সী প্রশংসা করে বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মানবিক দৃষ্টিকোণ আজ সারা বিশ্বে প্রশংসিত। পাশাপাশি তাঁর নির্দেশনায় এবং স্বাস্থ্যমন্ত্রীর নেতৃত্বে রোহিঙ্গা শরণার্থী কেন্দ্রে যে চিকিৎসা সেবা কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়েছে তা বিরল। অনেক দেশই মাত্র দুই সপ্তাহের মধ্যে আসা এত বিপুলসংখ্যক শরণার্থীদের স্বাস্থ্যসেবা প্রদানে এত দ্রুত পদক্ষেপ সফলভাবে নিতে পারে নাই। প্রাণভয়ে পালিয়ে আসা পাঁচ লক্ষ রোহিঙ্গা শরণার্থীদের স্বাস্থ্য সেবা প্রদান কার্যক্রমে বাংলাদেশ সরকারের সাথে অংশীদার হতে পেরে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা গর্বিত।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মাঝে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব হারুন অর রশিদ, বিশ্ব ব্যাংকের বাংলাদেশ কার্যালয়ের সিনিয়র হেলথ স্পেশালিস্ট বুশরা বিনতে আলমসহ মন্ত্রণালয়, বিশ্ব ব্যাংক ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

অন্যরা য়া পড়ছে...

Loading...



চেক

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ওমরাহ পালন

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৃহস্পতিবার রাতে এখানে পবিত্র …

জনগণ ছেড়ে বিদেশিদের কাছে কেন : ঐক্যফ্রন্টকে ওবায়দুল কাদের

গাজীপুর, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): শুক্রবার বিকেলে গাজীপুরের চন্দ্রায় ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক চার লেনে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

My title page contents