২:৫৫ অপরাহ্ণ - মঙ্গলবার, ১৮ জুন , ২০১৯
Breaking News
Download http://bigtheme.net/joomla Free Templates Joomla! 3
Home / রাজনীতি / আওয়ামী লীগ / ষোড়শ সংশোধনীর রায়ের পর্যবেক্ষণ প্রধান বিচারপতিকে প্রত্যাহার করতে হবে : আমু

ষোড়শ সংশোধনীর রায়ের পর্যবেক্ষণ প্রধান বিচারপতিকে প্রত্যাহার করতে হবে : আমু

ঢাকা, ২৩ আগষ্ট, ২০১৭ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): আজ দুপুরে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪২তম শাহদাৎবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী যুবলীগের উদ্যোগে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য এবং শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনীর রায়ে দেয়া পর্যবেক্ষণ প্রত্যাহার করার জন্য প্রধান বিচারপতির প্রতি আহবান জানিয়েছেন।

আমির হোসেন আমু বলেন, ‘সংবিধানের ষোড়শ সংশোধীনী নিয়ে আদালতের রায়ে যে পর্যবেক্ষণ দেওয়া হয়েছে তা শুধু অপ্রাসঙ্গিক ও অনভিপ্রেত নয়, তা দু:খজনক। অনতিবিলম্বে তা প্রত্যাহার করতে হবে। পর্যবেক্ষণ প্রত্যাহার করা না হলে তা নিয়ে দেশে যে পরিস্থিতির সৃষ্টি হবে তার দায়ভার তাঁকেই (প্রধান বিচারপতি) গ্রহন করতে হবে। এ বিষয়ে আপনার কোন ভূমিকায় অবতীর্ণ হওয়া উচিত প্রধান বিচারপতি হিসেবে আপনাকেই তা বুঝতে হবে।’

ঢাকা মহানগর উত্তর যুবলীগের সভাপতি মাইনুল হোসেন খান নিখিলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন আওয়ামী যুবলীগের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ওমর ফারুক চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশিদ ও ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন-ডিইউজে (একাংশ)’র সভাপতি সাবান মাহমুদ।

মহানগর উত্তর যুবলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক তাসবিরুল হক অনু’র পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের সভাপতি ইসমাইল হোসেন চৌধুরী স¤্রাট ও উত্তর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল হোসেন।

আমির হোসেন আমু বলেন, ষোড়শ সংশোধনীর রায়ে দেওয়া পর্যক্ষেণের মাধ্যমে মহান মুক্তিযুদ্ধে আদালতের ভূমিকাকে খাটো করা হয়েছে। কারণ তৎকালীন হাইকোর্টের বিচারপতি টিক্কা খানকে শপথ পড়াতে রাজি হননি। আর তাই ষোড়শ সংশোধনীর রায়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সম্পর্কে যে পর্যবেক্ষণ দেয়া হয়েছে তা মুক্তিযুদ্ধে আদালতের ভূমিকাকে ম্লান করেছে। দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্বকে বিপন্ন করে পাকিস্তানের সাথে শিথিল কনফেডারেশন করার জন্যই জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যা করা হয়েছিল। তিনি বলেন, বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান ক্ষমতা গ্রহণ করেই মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে ধ্বংস করে দেশকে নব্য পাকিস্তানে পরিনিত করেছিলেন। আর তাই বঙ্গবন্ধুর কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশে ফিরে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা পুনঃপ্রতিষ্ঠার আন্দোলন শুরু করলে তাঁকে হত্যা করার জন্য ১৯ বার হামলা চালানো হয়েছিল।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মৃত্যুর ভয়কে জয় করে আন্দোলনের মাধ্যমে মানুষের ভোটের ও ভাতের অধিকারই শুধু প্রতিষ্ঠা করেননি তিনি বঙ্গবন্ধুর খুনীদের যেমন বিচার করেছেন তেমনি যুদ্ধাপরাধীদেরও বিচার করেছেন।

অন্যরা য়া পড়ছে...

Loading...



চেক

সকল ধর্ম ও বর্ণ নির্বিশেষে সকলকে উন্নয়নের এই ধারা অব্যাহত রাখতে হবে : রাষ্ট্রপতি

ঢাকা, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): রাষ্ট্রপতি মো: আবদুল হামিদ দেশের শান্তি ও অগ্রগতি …

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ওমরাহ পালন

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৃহস্পতিবার রাতে এখানে পবিত্র …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

My title page contents