৯:৫২ অপরাহ্ণ - মঙ্গলবার, ১৩ নভেম্বর , ২০১৮
Breaking News
Download http://bigtheme.net/joomla Free Templates Joomla! 3
Home / জরুরী সংবাদ / রুনির গোলে ম্যান সিটির সাথে ১-১ গোলে ড্র করলো এভারটন

রুনির গোলে ম্যান সিটির সাথে ১-১ গোলে ড্র করলো এভারটন

স্পোর্টস ডেস্ক, ২২ আগষ্ট, ২০১৭ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): ওয়েইন রুনির প্রিমিয়ার লীগের ২০০তম গোলে ইতিহাদ স্টেডিয়ামে ম্যানচেস্টার সিটির সাথে ১-১ গোলে ড্র করেছে এভারটন।

৩৫ মিনিটে স্বাগতিক দর্শকদের সমর্থনের বিপরীতে গিয়ে এভারটনকে প্রথম এগিয়ে দিয়েছিলেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের এই সাবেক ফরোয়ার্ড। এর মাধ্যমে লীগে তিনি গোলের ডাবল সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন। এ্যালান শিয়ারারের পরে দ্বিতীয় খেলোয়াড় হিসেবে রুনি এই মাইলফলক স্পর্শ করলেন। যদিও এই গোলে রুনি দলের জয় নিশ্চিত করতে পারেননি। ৮২ মিনিটে রাহিম স্টার্লিংয়ে গোলে সিটিজেনরা স্বস্তির এক পয়েন্ট নিয়ে মাঠ ছাড়েন। এর ফলে আরেকবার ইতিহাদ স্টেডিয়ামে রোনাল্ড কোম্যানের দল জয় বঞ্চিত হলো।

এই নিয়ে দ্বিতীয়বারের মত টফিসদের টানা দুই ম্যাচে রুনি গোল করলেন। প্রথমে গোল হজম করে সিটিজেনরা নিজেদের গুছিয়ে নিতে চেষ্টা করছিল। কিন্তু বিরতির ঠিক আগে ডোমিনিক কালভার্ট-লিউইনকে ফাউলের অপরাধে কাইল ওয়াকার দ্বিতীয় হলুদ কার্ড পেলে ম্যাচের বাকি সময়টা দশজন নিয়ে খেলতে হয়েছে স্বাগতিকদের। তবে ম্যাচের শেষ পর্যন্ত পেপ গার্দিওলার দল ছেড়ে কথা বলেনি। বেশ কয়েকটি ভাল সুযোগ পেয়েও শেষ পর্যন্ত ৮২ মিনিটে সমতাসূচক গোলটি করেন স্টার্লিং। এর ফলে মৌসুমের শুরুতে দুই ম্যাচে অপরাজিত থাকলো গার্দিওলা শিষ্যরা। উভয় দলই অবশ্য ম্যাচ শেষ করেছে ১০জনকে নিয়ে। সাত মিনিটে প্রথম হলুদ কার্ড পাওয়া মরগান শিনেডারলিন ম্যাচের শেষের দিকে এসে আবারো হলুদ কার্ড নিয়ে মাঠ ছাড়েন। ২২ মিনিট পরে উভয় দলের সমর্থকরা সম্প্রতি ম্যানচেস্টার ও বার্সেলোনায় সন্ত্রাসী হামলায় ক্ষতিগ্রস্থদের জন্য সমবেদনা জানান।

ম্যাচের শুরুতেই নিকোলাস ওটামেন্ডির লো শট আটকে দেন এভারটন গোলরক্ষক জর্ডান পিকফোর্ড। এরপর সার্জিও আগুয়েরোর শট লাইনের উপর থেকে ক্লিয়ার করেন ফিল জাগেইলকা। এভারটনের ওপর সিটিজেনরা ধীরে ধীরে আধিপত্য বিস্তার করতে থাকে। তারই ধারাবাহিকতায় ডেভিড সিলভার শট কোনরকমে রক্ষা করেন পিকফোর্ড। কিন্তু এরপরপরই রুনি নিজেকে মেলে ধরেন। ৩৫ মিনিটে কালভার্ট-লিউইনের পাস থেকে এডারসনকে পরাস্ত করে তারকা এই স্ট্রাইকার। মিনিটখানেক পরেই গ্যাব্রিয়েল জেসাসেস শট সরাসরি পিকফোর্ডের হাতে ধরা পড়ে। বিরতির ঠিক আগে ওয়াকারকে রেফারী ববি ম্যাডলি দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখালে ম্যাচটি অনেকটাই এভাটরনের দিকে চলে যায়।

বিরতি থেকে এসে সিটিজেনরা কিছুটা আক্রমনাত্মক হয়ে উঠে। কিন্তু রোনাল্ড কোম্যান দুটি পরিবর্তন করে ম্যাচটিকে আরো বেশী প্রতিদ্বন্দ্বীতাপূর্ণ করে তুলেন। ৬১ মিনিটে তিনি ডেভি ক্লাসেন ও অভিষিক্ত গিলফি সিগার্ডসনকে মাঠে নামান। কালভার্ট-লিউইন অনেকটা পরিশ্রান্ত হয়ে পড়লে কাউন্টার এ্যাটাকের কথা চিন্তা করেই কোম্যান এই পরিবর্তন করেছিলেন। গার্দিওলারা খেলোয়াড় পরিবর্তনও বেশ ইতিবাচক সিদ্ধান্ত ছিল। বার্নান্ডো সিলভা ও স্টার্লিং মাঠে নেমেই আক্রমনের সুযোগ পান। এছাড়া আরেক বদল খেলোয়াড় ডানিলোর শটও দারুন দক্ষতায় আটকে দেন পিকফোর্ড। ৮২ মিনিটে অবশ্য আর শেষ রক্ষা হয়নি। স্টার্লিংয়ের গোলে স্বস্তির এক পয়েন্ট নিয়েই মাঠ ছেড়েছে স্বাগতিক ম্যান সিটি।

অন্যরা য়া পড়ছে...

Loading...



চেক

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ওমরাহ পালন

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৃহস্পতিবার রাতে এখানে পবিত্র …

জনগণ ছেড়ে বিদেশিদের কাছে কেন : ঐক্যফ্রন্টকে ওবায়দুল কাদের

গাজীপুর, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): শুক্রবার বিকেলে গাজীপুরের চন্দ্রায় ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক চার লেনে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

My title page contents