১:১২ অপরাহ্ণ - সোমবার, ২৪ সেপ্টেম্বর , ২০১৮
Breaking News
Download http://bigtheme.net/joomla Free Templates Joomla! 3
Home / জরুরী সংবাদ / জজ মিয়া নাটক জঙ্গিবাদকে উসকে দেয় : আইজিপি

জজ মিয়া নাটক জঙ্গিবাদকে উসকে দেয় : আইজিপি

ঢাকা, ২১ আগষ্ট, ২০১৭ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): দেশে জঙ্গিবাদ দমনে সামাজিক সচেতনতার পাশাপাশি রাজনৈতিক অঙ্গীকারের প্রতি গুরুত্ব আরোপ করে বাংলাদেশ পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) এ কে এম শহিদুল হক বলেছেন, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কাছে অন্যরকম সিগন্যালের কারণে ২১ আগস্ট হামলায় জজ মিয়া নাটক তৈরি হয়, যা জঙ্গিবাদকে উসকে দেয়।

আজ সোমবার রাজধানীর তেজগাঁওয়ের এফডিসিতে এক বিতর্ক প্রতিযোগিতার সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা জানান তিনি। ‘বিতর্ক বিকাশ’ শিরোনামের প্রতিযোগিতাটি আয়োজন করে ব্র্যাক, ডিবেট ফর ডেমোক্রেসি ও এটিএন বাংলা।

আইজিপি বলেন, গুলশানের হলি আর্টিজান ঘটনার পর সারা দেশে জঙ্গিদের সঙ্গে আরও ২৩টি সংঘর্ষ হয়েছে। কিন্তু জঙ্গিবাদ নির্মূল করা সম্ভব হয়নি।

জঙ্গিবাদ নির্মূলে আইনের ব্যবহারের পাশাপাশি ব্যাপক সামাজিক সচেতনতা তৈরির প্রয়োজনীয়তার কথা উল্লেখ করে আইজিপি বলেন, ‘নতুন করে যাতে আরও জঙ্গি তৈরি না হয় সে জন্য পরিবার, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান, সমাজিক সংগঠন সবাইকে কাজে লাগাতে হবে।’

আইজিপি একই সঙ্গে রাজনৈতিক অঙ্গীকারের প্রতিও গুরুত্ব আরোপ করেন। তিনি বলেন, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কাছে অন্যরকম সিগন্যালের কারণেই এর আগে ২১ আগস্টের গ্রেনেড হামলায় জজ মিয়া নাটক তৈরি হয়। ফলে মূল ঘটনা উদঘাটিত হয়নি। এটি জঙ্গিবাদকে আরও উৎসাহিত করেছে।

পুলিশ-প্রধান বলেন, ‘সামাজিক অঙ্গীকারের পাশাপাশি রাজনৈতিক অঙ্গীকার কাজে না লাগানো গেলে প্রশাসনযন্ত্র অচল হয়ে যাবে। যারা ক্ষমতায় থাকবে এবং যারা ক্ষমতার বাইরে থাকবে তাদেরও প্রেশার গ্রুপ হিসেবে জঙ্গি প্রতিরোধে এগিয়ে আসতে হবে।’  বিশেষ করে যারা ক্ষমতায় থাকবে তাদের আন্তরিকতা থাকলে প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী যথাযথ ভূমিকা পালন করে জঙ্গিবাদ প্রতিরোধে সক্ষম হবে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

জঙ্গিবাদ উসকে দেওয়ার ক্ষেত্রে কুরআন-হাদিসের অপব্যাখা দেওয়া হচ্ছে উল্লেখ করে শহিদুল হক বলেন, এটি প্রতিরোধে তরুণদের সামনে সঠিক ব্যাখ্যা তুলে ধরা প্রয়োজন। পারিবারিক, সামাজিক অঙ্গীকার ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানগুলো এ ক্ষেত্রে বড় ভূমিকা রাখতে পারে।

ডিবেট ফর ডেমোক্রেসির চেয়ারম্যান হাসান আহমেদ চৌধুরী কিরণের সঞ্চালনায় বিতর্কের
ফাইনালে চ্যাম্পিয়ন হয় লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ করিমউদ্দিন পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয়। তারা হারায় নকলা শেরপুরের নয়াবাড়ী উচ্চ বিদ্যালয়কে। শ্রেষ্ঠ বক্তা হয় কালীগঞ্জ করিমউদ্দিন পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয়ের মোছা. আফিয়া জাহিন।

প্রতিযোগিতা শেষে বিজয়ী দলসহ অংশগ্রহণকারীদের ট্রফি, ক্রেস্ট ও সনদ দেয়া হয়। এ ছাড়া পুরস্কার হিসেবে চ্যাম্পিয়ন দল ৩০ হাজার ও রানার আপ দল ২৫ হাজার টাকা পায়। শ্রেষ্ঠ বক্তাকে দেয়া হয় পাঁচ হাজার টাকা।

প্রতিযোগিতায় পক্ষ দল কালীগঞ্জ করিমউদ্দিন পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয়ের বক্তারা ছিল উম্মে হাবিবা লিমা, আজরা নুসরাত ঐশী ও মোছা. আফিয়া জাহিন। বিপক্ষ দল নয়াবাড়ি উচ্চ বিদ্যালয়ের বক্তারা হলো জেবা আফিয়া জিশা, রেবেকা সুলতানা ইতি এবং স্বর্ণালী আক্তার বৃষ্টি।

বিচারক ছিলেন অধ্যাপক আবু মোহাম্মদ রইস, অতিরিক্ত কর কমিশনার সাবিনা ইয়াসমিন, চ্যানেল আইয়ের বিশেষ প্রতিনিধি মোরসালিন বাবলা।

অন্যরা য়া পড়ছে...

Loading...



চেক

বিকল্পের সন্ধানে কোটা বাতিলের প্রজ্ঞাপনে দেরি হচ্ছে : ওবায়দুল কাদের

ঢাকা, ১৩ মে ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষণা অনুযায়ী সরকারি চাকরিতে কোটা …

স্যাটেলাইট মহাকাশে ঘোরায় বিএনপির মাথাও ঘুরছে : মোহাম্মদ নাসিম

ফেনী, ১৩ মে ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ মহাকাশে উৎক্ষেপণ হওয়ায় বিএনপির মাথাও ঘুরছে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

My title page contents