৪:৫৮ পূর্বাহ্ণ - বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর , ২০১৮
Breaking News
Download http://bigtheme.net/joomla Free Templates Joomla! 3
Home / রাজনীতি / অন্যান্য দলের খবর / ওসমান ফারুকের বিরুদ্ধে মানবতাবিরোধী অপরাধ মামলার তদন্ত ও মূসা বিন সমশেরের বিরুদ্ধে অনুসন্ধান চলছে

ওসমান ফারুকের বিরুদ্ধে মানবতাবিরোধী অপরাধ মামলার তদন্ত ও মূসা বিন সমশেরের বিরুদ্ধে অনুসন্ধান চলছে

ঢাকা, ২৭ জুলাই, ২০১৭ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): আজ বৃহস্পতিবার ধানমন্ডিতে তদন্ত সংস্থার কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের তদন্ত সংস্থার জ্যেষ্ঠ সমন্বয়ক এম সানাউল হক সাংবাদিকদেরকে বলেছেন, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ওসমান ফারুকের বিরুদ্ধে মানবতাবিরোধী অপরাধ মামলার তদন্ত চলছে। আর অনুসন্ধান চলছে আলোচিত ব্যবসায়ী মূসা বিন সমশেরের বিরুদ্ধে।

যশোর, নড়াইল, ময়মনসিংহ ও শেরপুরের ১৬ জনের বিরুদ্ধে তদন্ত প্রতিবেদনের সারসংক্ষেপ তুলে ধরতে এই সংবাদ সম্মেলন ডাকেন তিনি।

২০১৬ সালে মানবতাবিরোধী অপরাধের তদন্ত করতে গিয়ে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, ময়মনসিংহের ১১ জন শিক্ষকের নাম পায় তদন্ত সংস্থা। এরা সবাই স্বাধীনতাবিরোধী কর্মাণ্ড করেছিলেন। এদের মধ্যে ওসমান ফারুকের নাম রয়েছে। তখন তিনি ময়মনসিংহ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের রিডার ছিলেন।

এই ঘটনা তখন প্রকাশ হওয়ার পর সানাউল হক ২০১৬ সালের ৫ মে এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছিলেন, সুনির্দিষ্ট অভিযোগ পেলে ওসমান ফারুকের বিরুদ্ধে তদন্ত হবে। তবে এই সুনির্দিষ্ট কোন অভিযোগ পাওয়ার পর তদন্ত চলছে, সেটি আজ বৃহস্পতিবারের সংবাদ সম্মেলনে বলেননি সানাউল হক। তিনি বলেন,‘ওসমান ফারুকের বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা আছে, তদন্ত চলছে।’

গত বছর এই অভিযোগ উঠার পর ওসমান ফারুক বিদেশ চলে যান। এরপর তিনি আর দেশে ফেরেননি।

অন্যদিকে মূসা বিন সমশেরের বিরুদ্ধে মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে ফরিদপুরে নিজ এলাকায় মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগ রয়েছে। সম্প্রতি ওই এলাকার মুক্তিযোদ্ধারা এই বিষয়টি সামনে নিয়ে এসেছেন। তার বিষয়ে সানাউল হক বলেন, ‘মূসা বিন সমশেরের বিরুদ্ধে অনুসন্ধান চলছে। কোনো অগ্রগতি পাওয়া গেলে জানান হবে।’

১৬ আসামির বিরুদ্ধে প্রতিবেদন চূড়ান্ত

যে ১৬ আসামির বিরুদ্ধে তদন্ত প্রতিবেদক জানানে সংবাদ সম্মেলন ডাকা হয়, তাদের বিরুদ্ধে মামলা আছে দুটি। এদের মধ্যে ময়মনসিংহ ও শেরপুরের চারজন। যাদের মধ্যে তিনজন গ্রেপ্তার হয়ে কারাগারে। যশোর ও নড়াইল অঞ্চলের ১২ আসামির মধ্যে পাঁচজন কারাগারে।

ময়মনসিংহ ও শেরপুরের গ্রেপ্তার হওয়া আসামিরা হলেন- শেরপুরের নকলা উপজেলার এস এম আমিনুজ্জামান ফারুক ও এমদাদুল হক ওরফে খাজা ডাক্তার এবং ময়মনসিংহের কোতয়ালি থানার এ কে এম আকরাম হোসেন। পলাতক অপরজনের নাম প্রকাশ করা হয়নি। আসামিরা বিএনপির রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত বলে জানিয়েছে তদন্ত সংস্থা।

আসামিদের বিরুদ্ধে ২০১৫ সালের ১৯ নভেম্বর তদন্ত শুরু হয়। তদন্তকারী কর্মকর্তা মনোয়ারা বেগম প্রায় দুবছর তদন্তের পর আসামিদের বিরুদ্ধে চূড়ান্ত প্রতিবেদন প্রকাশ করলেন। ৫৪ পৃষ্ঠার প্রতিবেদনে আসামিদের বিরুদ্ধে বৃহত্তর ময়মনসিংহের শেরপুরের নকলা থানাধীন বিভিন্ন এলাকায় অপহরণ আটক, নির্যাতন ও অগ্নিসংযোগের মতো চারটি মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগ আনা হয়েছে।

এদেক যশোর ও নড়াইল অঞ্চলের ১২ আসামির মধ্যে গ্রেপ্তার হওয়া পাঁচজন হলেন- আবদুল ওহাব মোল্যা, ওমর আলী শেখ, বদরুদ্দোজা, দাউদ শেখ ও গুলজার হোসেন খান। এছাড়া খন্দকার শওকত আলী বাবুলসহ সাত জন পলাতক রয়েছেন। পলাতক বাকি আসামিদের নাম প্রকাশ করা হয়নি।

আসামিদের বিরুদ্ধে ২০১৬ সালের ২১ মার্চ তদন্ত শুরু হয়। এই তদন্ত করেছেন আব্দুল্লাহ আল-মামুন।

আসামিদের বিরুদ্ধে আটক, অপহরণ, নির্যাতন অগ্নিসংযোগ, হত্যা ও গণহত্যার মতো পাঁচটি অভিযোগ আনা হয়েছে।

অন্যরা য়া পড়ছে...

Loading...



চেক

বিকল্পের সন্ধানে কোটা বাতিলের প্রজ্ঞাপনে দেরি হচ্ছে : ওবায়দুল কাদের

ঢাকা, ১৩ মে ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষণা অনুযায়ী সরকারি চাকরিতে কোটা …

স্যাটেলাইট মহাকাশে ঘোরায় বিএনপির মাথাও ঘুরছে : মোহাম্মদ নাসিম

ফেনী, ১৩ মে ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ মহাকাশে উৎক্ষেপণ হওয়ায় বিএনপির মাথাও ঘুরছে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

My title page contents