যদিও টাইগার উডসকে গ্রেপ্তারের পর মাতাল অবস্থায় গাড়ি চালানোর অভিযোগে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলোতে খবর প্রচারিত হয়।

সোমবার স্থানীয় সময় বিকাল তিনটার সাবেক এই সফল তারকাকে তার বাড়ি জুপিটার থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। যদিও কয়েক ঘণ্টা পর উডসকে ছেড়ে দেয় পাম বীচ কাউন্টি পুলিশ।

ছাড়া পেয়ে উডস বলেন, ‘আমি আসলে ঔষধের শক্তিশালী প্রভাব সম্পর্কে বুঝতে পারিনি। তবে আমার আরও সচেতন থাকা উচিত ছিল। আমার সকল বন্ধু, স্বজন ও ভক্তদের কাছে ক্ষমা চাইছি।’

রাত তিনটার দিকে জুপিটার টাউনে পুলিশ উডসকে গ্রেপ্তার করে বলে জানিয়েছে স্থানীয় গণমাধ্যম। সম্প্রতি পিঠে সার্জারি হয়েছে এই ৪১ বছর বয়সী গলফারের।

শরীরের সর্বশেষ অবস্থা নিয়ে গত ২৪শে মে নিজের ব্লগে লিখেছিলেন উডস। বিশ্বের সবচেয়ে সফল গলফার হিসেবে খ্যাতি অর্জন করেছেন এই মার্কিনি।