তিনি বলেন, ‘দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল ও উত্তরাঞ্চলে দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার কারণে চারশ’ কেভি সঞ্চালনসম্পন্ন আশুগঞ্জ-সিরাজগঞ্জ টাওয়ার বিকল হয়ে বিদ্যুৎ সরবরাহে বিঘ্ন ঘটায় এই অপ্রত্যাশিত পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে।’

প্রতিমন্ত্রী বলেন, সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ টাওয়ারটি মেরামত করার জন্য কাজ করে যাচ্ছেন, যা বিদেশি টেকনেশিয়ানদের দিয়ে কাজ করাতে ৬-৭ মাস সময় লাগতে পারে।
তিনি বলেন, সরকার প্রায় ৩৫০টি নদী ব্যবহার করে বিদ্যুৎ সরবরাহ করছে। তাই যে কোন সময় প্রাকৃতিক দুর্যোগ ঘটতে পারে।

এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি রমজানে বিদ্যুতের কোন সমস্যা থাকবে না বলে সকল গ্রাহককে আশ্বস্ত করে বলেন, ‘আমরা পবিত্র রমজানে অনেক ভালো অবস্থানে থাকব।’
তিনি বলেন, ক্রমশঃ বড় আকারের বিদ্যুৎ প্ল্যান্ট চালু করা হবে। ‘নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহের জন্য আমরা আরও তিন বছর সময় চাই’ উল্লেখ করে নসরুল বলেন, ‘বর্তমানে ১ হাজার ৮৬৬ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন ৮টি প্লান্ট তৈরির কাজ চলছে এবং তার মধ্যে কয়েকটি বিদ্যুৎ প্লান্ট আগামী ৩-৪ দিনের মধ্যে উৎপাদনে যাবে।’
তিনি বলেন, দেশে বিদ্যুৎ সরবরাহ বৃদ্ধির লক্ষ্যে প্রায় দুই লাখ ৫০ হাজার ট্রান্সমিটার পরিবর্তনের জন্য সরকার কাজ করে যাচ্ছে।