গাড়ির ড্যাশবোর্ডে গুগলের ভয়েস অ্যাকটিভেটেড অ্যাসিস্ট্যান্ট চলবে। অটো ফেয়ার, স্পটিফাই গুগল ম্যাপের মত সাধারণ অ্যানড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন এই গাড়িতে চলবে। এছাড়াও এতে ভয়েসের সাহায্য অনেক কিছু নিয়ন্ত্রণ করা যাবে। যেমন গাড়ির সানরুফ বা এয়ার কন্ডিশনার নিয়ন্ত্রণ করা যাবে কণ্ঠস্বর দিয়েই।

ভলভোর অ্যান্ড্রয়েড যুক্ত গাড়ি দুই বছরের মধ্যে বাজারে আসবে। ভলভোর রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্টের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট হেনরিক গ্রিন বলেন,‘গাড়ির সিস্টেমটিতে শত শত জনপ্রিয় অ্যাপ্লিকেশন পাওয়া যাবে। গাড়ি প্রস্ততকারক প্রতিষ্ঠানটি গুগলের সাথে কাজ করবে। এর ফলে গাড়িতে যুক্ত হবে লোকেশন বেসড গুগল লোকাল সার্চ।’

অন্যদিকে অডির পার্টনারশিপ নিয়ে তেমন নির্দিষ্ট তথ্য নেই। তারা এখন অ্যানড্রয়েড প্লাটফর্মের ভবিষ্যৎ সম্ভাবনার উপর নজর রাখছে। এই নজরদারি বিশেষত ভবিষ্যতের কানেক্টেড অটো সার্ভিসকে কেন্দ্র করে।

ভলভো আর অডির সাথে চুক্তির ফলে অ্যানড্রয়েড তাদের প্রতিদ্বন্দ্বী অ্যাপলের থেকে কানেক্টেড কার ফিল্ডে একধাপ এগিয়ে থাকবে। যদিও অ্যাপলের রয়েছে কারপ্লে যেটা অ্যানড্রয়েড অটোর মুখোমুখি প্রতিদ্বন্দ্বী, কিন্তু আইওএস এ চলে এমন কার ইনফোটেইনমেন্ট (ইনফরমেশন+এন্টারটেইনমেন্ট) সিস্টেম নিয়ে কোন পরিকল্পনা প্রকাশিত হয়নি।