খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গতকাল সকাল থেকেই বুক ও ঘাড়ে ব্যথা হচ্ছিল। তাই চেকআপের জন্য হাসপাতালে যান। পরে ডাক্তারের পরামর্শে সেখানে তাকে ভর্তি করা হয়। তবে বর্তমানে তিনি আগের চেয়ে সুস্থ আছেন।

প্রসঙ্গত, গত ১৩ই এপ্রিল একই হাসপাতালে গিয়েছিলেন শাকিব খান। চিকিৎসক তার শারীরিক অবস্থা দেখার পর তাকে হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পরামর্শ দেন। এরপর তিনি হাসপাতালে ভর্তি অবস্থায়ই শামীম আহমেদ রনীর ‘রংবাজ’ ছবির মহরতে যান এবং এরপর হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়ে টানা কিছুদিন ঢাকার বাইরে শুটিংও করেন। ৫ই মে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচনের দিন ভোটও দিতে যান এফডিসিতে।

ঐদিন নির্বাচনের পর মধ্যরাতে নির্বাচনের ফলাফল জানার জন্য এফডিসির ভোট গণনাকেন্দ্রে যান তিনি। সেখানে প্রবেশধিকার না থাকার কারণে নির্বাচন কমিশনার মনতাজুর রহমান আকবরসহ অন্যরা তাকে ভোট গণনাকেন্দ্র থেকে চলে যেতে বলেন। সেখান থেকে বের হবার পর তার উপর কিছু অজ্ঞাত মানুষ হামলা চালায়। পরে অভিনেতা মিশা সওদাগর ও দায়িত্বরত পুলিশের সহায়তায় শাকিব খান গাড়িতে ওঠেন এবং দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন।