৬:১৬ অপরাহ্ণ - রবিবার, ১৮ নভেম্বর , ২০১৮
Breaking News
Download http://bigtheme.net/joomla Free Templates Joomla! 3
Home / জরুরী সংবাদ / বেশি কথা বললে যে ভুল হয়, সে কথা ভুলে যান বড়ভাই ওবায়দুল কাদের : শামছুজ্জামান দুদু

বেশি কথা বললে যে ভুল হয়, সে কথা ভুলে যান বড়ভাই ওবায়দুল কাদের : শামছুজ্জামান দুদু

ঢাকা, ২৯ এপ্রিল, ২০১৭ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): আজ শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ‘হাওরের মহাবিপর্যয়কে জাতীয় দুর্যোগ ঘোষণা এবং হাওরবাসীকে রক্ষায় দ্রুত রাষ্ট্রীয় পদক্ষেপ গ্রহণের দাবীতে’ বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ ঢাকা মহানগর আয়োজিত এক মানববন্ধনে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামছুজ্জামান দুদু সড়কমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের প্রতি বলেছেন, বেশি কথা বললে যে ভুল হয় সে কথা ভুলে যান বড়ভাই (কাদের)।

সম্প্রতি এক অনুষ্ঠানে মির্জা ফখরুল অভিযোগ করেন হাওরাঞ্চলে প্রধানমন্ত্রীর আরো আগে যাওয়া উচিত ছিল। এ ছাড়া বিএনপিকে হাওরাঞ্চলে যেতে বাধা দেয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ করা হয়। এর জবাবে শুক্রবার ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি সেখানে ফটোসেশন করতে যায়। আর প্রধানমন্ত্রী না হয় রুটিন মেনটেন করেন বলে যেতে পারেননি, কিন্তু বিএনপির নেত্রী খালেদা জিয়া কেন গেলেন না।

এই প্রশ্ন তোলায় ওবায়দুল কাদেরের সমালোচনা করে দুদু বলেন, ‘সর্বপ্রথম হাওর অঞ্চলে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর গিয়েছিলেন, তার আগে ২০ দলীয় জোটের নেতাকর্মীরা ছাড়া কেউ যায়নি সেখানে।’ বিএনপি সেখানে ত্রাণ বিতরণ করে বলে জানান তিনি।

দুদু বলেন, ‘তিনি (ওবায়দুল) আমাদের অগ্রজ বড়ভাই।  তিনি একটু বেশি কথা বলেন। কিন্তু বেশি কথা বললে যে বেশি ভুল হয়, তা তিনি মাঝে মধ্যে ভুলে যান। আমরা তার কাছে জ্ঞানসমৃদ্ধ দায়িত্বশীল কথা আশা করি।’

পাহাড়ি ঢল ও বন্যায় পানিতে ভাসছে হাওর এলাকার ছয় জেলা। পানিতে ভেসে গেছে হাজার হেক্টর জমির ধান। হাজারো কৃষকের মাথায় হাত। সরকারের হিসাবমতে, সাড়ে আট লাখ পরিবার ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বন্যায়। সোয়া দুই লাখের বেশি জমির ফসল তলিয়ে গেছে।

সরকার হাওরবাসীকে এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছে এমন অভিযোগ করে দুদু বলেন, হাওর অঞ্চলের দুর্গতি সরকারের দুর্নীতির অংশ,ব্যর্থতার নগ্ন ইতিহাস। হাওরবাসী সরকারের এই ব্যর্থতা তাদের চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছে। তারপরেও সরকার অসহায় হাওরবাসীকে এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছে।

দুদু দাবি করেন, সরকারের ব্যর্থতা প্রমাণ হয়ে যাবে বলে এখনো হাওর অঞ্চলকে দুর্গত ঘোষণা করা হচ্ছে না।  তার অভিযোগ,  ‘আওয়ামী লীগ,যুবলীগের নেতাকর্মীরা টেন্ডার নিয়ে ওই সব  এলাকায় কাজ করেছেন। তাদের দুর্নীতির প্রমাণ হওয়ার ভয়েই সরকার এখনো হাওর অঞ্চলকে দুর্গত এলাকা ঘোষণা করছে না।’

এ সময় তিনি হাওর অঞ্চলগুলোকে অনতিবিলম্বে দুর্গত এলাকা ঘোষণার জন্য সরকারের কাছে জোর দাবি জানান।  তিনি বলেন, ‘এখন বিভেদের সময় নয়। কেন আপনারা বিরোধী দলকে ত্রাণ তৎপরতায় সহযোগিতা না করে প্রধানমন্ত্রী যাবেন বলে বাধা দিচ্ছেন? বাধা না দিয়ে দুর্গত এলাকা ঘোষণা করে বিরোধী দলগুলোর ত্রাণ তৎপরতায় সহযোগিতা করুন।’

ন্যাপ ঢাকা মহানগর সদস্যসচিব মো. শহীদুন্নবী ডাবলুর সভাপতিত্বে আরো বক্তব্য দেন ন্যাপের মহাসচিব এম গোলাম মোস্তফা ভুইয়া,বাংলাদেশ জাতীয় দলের চেয়ারম্যান সৈয়দ এহসানুল হুদা,এনপিপি মহাসচিব মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তফা,বিএনপি নেতা খালিদ সাইফুল্লাহ সোহেল,কল্যাণ পার্টি ভাইস চেয়ারম্যান সাহিদুর রহমান তামান্না প্রমুখ।

অন্যরা য়া পড়ছে...

Loading...



চেক

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ওমরাহ পালন

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৃহস্পতিবার রাতে এখানে পবিত্র …

জনগণ ছেড়ে বিদেশিদের কাছে কেন : ঐক্যফ্রন্টকে ওবায়দুল কাদের

গাজীপুর, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): শুক্রবার বিকেলে গাজীপুরের চন্দ্রায় ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক চার লেনে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

My title page contents