২:৪১ অপরাহ্ণ - বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই , ২০১৯
Breaking News
Download http://bigtheme.net/joomla Free Templates Joomla! 3
Home / রাজনীতি / অন্যান্য দলের খবর / নব্য জেএমবির দুই ‘সংগঠক’ গ্রেপ্তার

নব্য জেএমবির দুই ‘সংগঠক’ গ্রেপ্তার

ঢাকা, ১৮ এপ্রিল, ২০১৭ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন নব্য জেএমবির দুই সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব-১১)। নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জ থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। তারা সারোয়ার-তামিম গ্রুপের সদস্য এবং জেএমবিকে পুনর্গঠিত করার চেষ্টায় ছিলেন। এছাড়া তাদের নাশকতার পরিকল্পনা ছিল বলেও জানিয়েছে র‌্যাব।

গ্রেপ্তার দুইজন হলেন কুমিল্লার তিতাস থানার আব্দুর রহমান ওরফে সোহেল (২৫) ও দাউদকান্দির ফয়সাল আহমেদ (৪৪)। তারা সিদ্ধিরগঞ্জে থাকতেন। মঙ্গলবার বিকালে গণমাধ্যমে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আদমজী অবস্থিত র‌্যাব-১১ এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. শাকিল আহমেদ এ তথ্য জানান।

র‌্যাব জানায়, গত ৬ ও ৭ এপ্রিল সিদ্ধিরগঞ্জ থানাধীন সাইনবোর্ড ও কুমিল্লা জেলার গৌরীপুর এলাকা থেকে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন নব্য জেএমবির (সারোয়ার-তামিম) গ্রুপের আট সদস্যকে বিস্ফোরক ও বোমা তৈরির সরঞ্জামাদিসহ আটক করা হয়। পরবর্তী সময়ে আসামিদের দেয়া তথ্যমেত ১৭ এপ্রিল (সোমবার) রাত থেকে মঙ্গলবার ভোর পর্যন্ত অভিযানে সোহেল ও ফয়সালকে আটক করা হয়।

র‌্যাবের দাবি, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সোহেল ও ফয়সাল স্বীকার করেন যে, তারা নব্য জেএমবি (সারোয়ার-তামিম) গ্রুপের সদস্য এবং তাদের পরিকল্পিত নাশকতার কার্যক্রমের সঙ্গে সম্পৃক্ত। তারা এই সংগঠনের বিবিধ দাওয়াতি কার্যক্রম পরিচালনা করতেন। এছাড়াও ফেসবুকসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও ইন্টারনেট ব্যবহার করে তাদের এমএসএম কোম্পানির সদস্যদের কাছে জঙ্গিবাদী মতবাদ প্রচার করে আসছিলেন।

আটকদের মধ্যে সোহেল ২০১৬ সালে জেএমবিতে যোগদান পর থেকে সে জেএমবির (সারোয়ার-তামিম) একাধিক সদস্যের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রাখতেন। তিনি নারায়ণগঞ্জের একাধিক স্থানে গোপন বৈঠকে অংশ নিয়েছেন। ইতোপূর্বে তারা একাধিকবার নারায়ণগঞ্জের শনির আখড়ায় জনৈক ব্যক্তির বাসায় সাংগঠনিক কাঠামো বর্ধিতকরণ, নতুন নতুন সদস্য সংগ্রহ করার নিয়ম ও পদ্ধতি এবং নাশকতা পরিচালনার ব্যাপারে বৈঠক করেছেন।

অপরজন ফয়সাল আহমেদ গত বছর জেএমবি (সারোয়ার-তামিম) গ্রুপের জামাল রাসেল জিহাদির মাধ্যমে জেএমবিতে যোগদান করে এবং সক্রিয় সদস্য হিসেবে কাজ শুরু করেন। ফয়সাল দীর্ঘ সময় কুয়েতে বসবাস করার কারণে আরবি ভাষার ওপর দক্ষতা অর্জন করেন। তিনি ইন্টারনেট থেকে প্রাপ্ত আরবি ভাষায় বিভিন্ন উগ্রবাদী তথ্যচিত্র বাংলায় অনুবাদ করতেন এবং সংগঠনের সদস্যদের মধ্যে তা সরবরাহ করতেন। তিনি সংগঠনের জন্য অর্থের যোগানও দিতেন বলে জানান র‌্যাব কর্মকর্তা শাকিল আহমেদ।

অন্যরা য়া পড়ছে...

Loading...



চেক

সকল ধর্ম ও বর্ণ নির্বিশেষে সকলকে উন্নয়নের এই ধারা অব্যাহত রাখতে হবে : রাষ্ট্রপতি

ঢাকা, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): রাষ্ট্রপতি মো: আবদুল হামিদ দেশের শান্তি ও অগ্রগতি …

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ওমরাহ পালন

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৃহস্পতিবার রাতে এখানে পবিত্র …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

My title page contents