৬:৪০ অপরাহ্ণ - সোমবার, ২৪ জুন , ২০১৯
Breaking News
Download http://bigtheme.net/joomla Free Templates Joomla! 3
Home / অপরাধ / বাস ভাড়া কমেনি, বেড়েছে : সিটিংয়ে ভাড়া ছিল ১০, লোকালে ১২ টাকা

বাস ভাড়া কমেনি, বেড়েছে : সিটিংয়ে ভাড়া ছিল ১০, লোকালে ১২ টাকা

ঢাকা, ১৭ এপ্রিল, ২০১৭ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): পকেট কাটার সিটিং সার্ভিস লোকাল হওয়ার পরও বাস ভাড়া কমেনি-এমন অভিযোগের মধ্যে এমন একটি ঘটনা ঘটেছে একটি রুটে যা রীতিমত বিস্ময়কর। ভাড়া কমার বদলে বাড়িয়ে দেয়া হয়েছিল ওই রুটে। কিন্তু যাত্রীদের সম্মিলিত প্রতিরোধে শেষ পর্যন্ত পিছু হটতে বাধ্য হয় চালক-শ্রমিক।

সোমবার রাজধানীর শনিরআখড়া থেকে মোহাম্মদপুর পর্যন্ত চলাচলকারী মেসকাত পরিবহনের একটি বাসে এই ঘটনা ঘটে। সিটিং সার্ভিস বন্ধ হওয়ার আগে এই বাসে মতিঝিল থেকে শাহবাগ পর্যন্ত ভাড়া ছিল ১০ টাকা। লোকাল হওয়ার পর আসনের বেশি যাত্রী উঠবে, তাই ভাড়া কমবে এটাই ছিল অনুমেয়। কিন্তু উল্টো এই গন্তব্যে চালকের সহকারী ভাড়া দাবি করেছেন ১২ টাকা।

সোমবার দুপুর এই বর্ধিত হারেই ভাড়ার আবদার দেখে বৈশাখের তপ্ত দুপুরে যাত্রীদের মেজাজের উত্তাপ যেন ছাড়িয়ে যায় সূর্যের তেজকে। মুহূর্তেই ক্ষেপে উঠলেন তারা। যাত্রীদের রোষানলে পড়ে অবশ্য চালকের সহকারী এক সময় নরম জন।

তবে চালকের সহকারীর নরম হওয়াটা হয়েছে ধাপে ধাপে। সময় গড়ায় আর গরম হয় যাত্রীদের মেজাজ। গলার স্বর হয় উচ্চ।

শুরুতে একজন যাত্রী বলেন, সিটিং সার্ভিসের সময় ১০ টাকা থাকলে লোকাল হবার পর তো ভাড়া কমবে, বাড়বে কেন? কিন্তু এই যুক্তি কিছুতেই মানতে রাজি নন সহকারী। এক পর্যায়ে তিনি বাসের সামনে ও পিছনে ভাড়ার তালিকা দেখতে বলেন যাত্রীদের।

কিন্তু দেখা গেল, ওই তালিকা সিটিং সার্ভিসের সময়কার। তাতেও অবশ্য মতিঝিল থেকে শাহবাগের ভাড়া লেখা আছে ১০ টাকাই। তার মানে লোকাল হওয়ার পর না কমিয়ে দুই টাকা ভাড়া বাড়িয়ে দেওয়া হযেছে কোনো রকম নিয়ম নীতি ও যুক্তি না মেনে।

যাত্রীরা সবাই একাট্টা, বেশি ভাড়া দেবেন না, আর বেগতিক দেখে গলার স্বর নামালেন চালক ও সহকারী। এক পর্যায়ে ১০ টাকা করেই দিতে বললেন। কিন্তু দশের লাঠি একের বোঝার মতো চাপ বাড়াতে থাকে যাত্রীরা। তারা সবাই অনঢ় ভাড়া টাকার বেশি হতে পারে না কোনো মতে। আর যাত্রীদের এক হওয়ার শক্তিতে হার মানেন চালক ও তার সহকারী। এক পর্যায়ে এই হারেই ভাড়া নিতে বাধ্য হন তারা।

সব ঝামেলা শেষ হওয়ার পর ঢাকাটাইমসের সঙ্গে কথা হয় ওই বাসের সহকারীর। ‘লোকাল হবার পরও কেন ভাড়া বাড়ানো হয়েছে’- এমন প্রশ্ন করলে তিনি দায় চাপালেন মালিকের উপর। বললেন- ‘মালিক কয়া দিছে, আমরা কী করুম?’। সৌজন্যে ঢাকাটাইমস

অন্যরা য়া পড়ছে...

Loading...



চেক

সকল ধর্ম ও বর্ণ নির্বিশেষে সকলকে উন্নয়নের এই ধারা অব্যাহত রাখতে হবে : রাষ্ট্রপতি

ঢাকা, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): রাষ্ট্রপতি মো: আবদুল হামিদ দেশের শান্তি ও অগ্রগতি …

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ওমরাহ পালন

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৃহস্পতিবার রাতে এখানে পবিত্র …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

My title page contents