১:৩৪ অপরাহ্ণ - শনিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর , ২০১৭
Breaking News
Download http://bigtheme.net/joomla Free Templates Joomla! 3

সারাদেশে বর্ষবরণ

ঢাকা, ১৪ এপ্রিল, ২০১৭ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): আজ পহেলা বৈশাখ। রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশের মানুষ বরণ করে নিচ্ছে বাংলা ১৪২৪ সালকে। পুরানো সব জঞ্জালকে ধুয়ে মুছে ফেলে নতুন বছরে ভালো কিছু করার প্রত্যয়ে বরন করা হচ্ছে বাংলা নতুন বছরকে। বর্ষবরণ উপলক্ষে জেলায় জেলায় নানা কর্মসূচি পালন করা হচ্ছে। অনুষ্ঠানের মধ্য রয়েছে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা, আনন্দ মিছিল, ছবি আঁকা, বৈশাখী মেলা ইত্যাদি।

জেলায় জেলায় বর্ষবরণ পালনের খবর

ধামরাই (ঢাকা): নানা আয়োজনের মধ্যদিয়ে ধামরাইয়ে বাংলা বর্ষবরণ উদযাপন উপলক্ষে বর্ণাঢ্য মঙ্গল শোভা যাত্রা, আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হয়েছে।

সকালে ধামরাই হার্ডিঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ, অংকুর ও বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় মিলে বর্ণিল সাজে সজ্জিত হয়ে মঙ্গল শোভাযাত্রা বের করে। শোভাযাত্রাটি ধামরাই প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

মানিকগঞ্জ: সরকারি নির্দেশনার পর এই প্রথম মানিকগঞ্জে অনুষ্ঠিত হলো মঙ্গল শোভাযাত্রা। ঢাকার অনুকরণে চারুশিল্পীদের সার্বিক তত্ত্বাবধানে মঙ্গল শোভাযাত্রার আয়োজন করে মানিকগঞ্জ পৌরসভা।

সকাল সাড়ে ৯টার দিকে শোভাযাত্রাটি শহরের বিভিন্ন এলাকা পরিদর্শন শেষে নগর ভবনে গিয়ে বৈশাখী খাবার হিসেবে পরিচিত পান্তা দিয়ে সকলকে আপ্যায়ন  করা হয়। এ সময় জেলা শহরের নানা শিল্পকর্মে সজ্জিত এই শোভাযাত্রায় ঢোলের তালে নাচে গানে মুখরিত করে তুলে সংস্কৃতিমনা শিশু, বৃদ্ধসহ সব শ্রেণির মানুষ।

এদিকে এই মঙ্গল শোভাযাত্রায় সবচেয়ে বড় আকর্ষণ ছিল হাতির প্রতিকৃতি। এছাড়া বাঘ, পেঁচা, হাতপাখা ও মুখোশের প্রতিকৃতি রাখা হয় বর্ণাঢ্য মঙ্গল শোভাযাত্রায়।

এদিকে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে জেলা প্রশাসনের কার্যালয়ের সামনে আলাদা বৈশাখ মেলার আয়োজন করা হয়েছে। অপরদিকে পৌর এলাকার পশ্চিম দাশড়া এলাকায় প্রথমবারের মত অনুষ্ঠিত হচ্ছে বৈশাখী মেলা। তিন দিনব্যাপী এই বৈশাখী মেলার আয়োজন করেছে মানিকগঞ্জ পৌরসভার ৬ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর সুভাষ সরকার।

ফরিদপুর: নানা আয়োজনে ফরিদপুরে বাংলা নতুন বছরকে স্বাগত জানাচ্ছে সর্বস্তরের মানুষ। শুক্রবার সকল সাতটায় শহরের স্বাধীনতা চত্বরে ফরিদপুর সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক উন্নয়ন সংস্থা আয়োজিত বর্ষবরণ অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন।

সংগঠনের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আবুল ফয়েজ শাহনেওয়াজের সভাপতিত্বে এসময় ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক উম্মে সালমা তানজিয়া, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. লোকমান হেগাসেন মৃধা, পুলিশ সুপার সুভাষ সাহা উপস্থিত ছিলেন। পরে স্বাধীনতা মঞ্চে আয়োজিত অনুষ্ঠানে আবৃতি ও গানসহ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করা হয়।

এসময় বর্ষবরণ উৎসবে অংশ নেয়া মানুষেরা মনে করেন, হাজারো মানুষের মিলন মেলার যে জোয়ার বইছে সেই জোয়ারের তোড়ে এদেশ থেকে জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাসবাদ নিপাত যাবে। এদিকে বেলা পৌনে নয়টায় জেলা প্রশাসনসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও সংগঠনের উদ্যোগে মঙ্গল শোভাযাত্রা বের হয়।

চরভদ্রাসন (ফরিদপুর): ফরিদপুরের চরভদ্রাসনে উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে বাংলা নববর্ষ ১লা বৈশাখ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ উদযাপন করা হয়েছে। সকাল সাড়ে ৭টায় উপজেলার নানা শ্রেণি পেশার মানুষের অংশগ্রহণে এক বর্ণাঢ্য মঙ্গল শোভা যাত্রা বের করা হয়।

গোপালগঞ্জ: প্রভাতের প্রথম সূর্য নিয়ে এলো বাংলা নতুন বছর বঙ্গাব্দ ১৪২৪। আর সেই ডাকে সাড়া দিয়ে বাঙালি স্বাগত জানালো নতুন বছরকে। নতুন বছরকে বরণ করে নিতে গোপালগঞ্জে ছিল নানা আয়োজন। নানান আয়োজনের মধ্যদিয়ে গোপালগঞ্জে বরণ করা হয় বাংলা নববর্ষকে।

শুক্রবার ভোর সাড়ে ৬টায় স্থানীয় পৌর পার্কের লেক পাড়ে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে বর্ষবরণের গানের মধ্যদিয়ে অনুষ্ঠানমালা শুরু করা হয়। ভোর থেকে উদীচী শিল্পী গোষ্ঠী, বঙ্গবন্ধু কলেজ, শেখ ফজিলাতুন্নেছা মহিলা কলেজ, শেখ হাসিনা স্কুল এন্ড কলেজ, এসএম মডেল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, বিনাপাণি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, যুগশিখা স্কুল, অর্নিবাণ স্কুল, মালেকা একাডেমি, গোপালগঞ্জ আইডিয়াল একাডেমি, পথশিশু নিকেতন, ত্রীবেনী সংগীত একাডেমি, বঙ্গবন্ধু সাংস্কুতিক জোটসহ বিভিন্ন সাংস্কৃতিক ও সামাজিক সংগঠনের পক্ষ থেকে র‌্যালিসহ জেলা শহরে কেন্দ্রীয় পৌর পার্কে গিয়ে জড়ো হয়।

পরে জেলা ও পুলিশ প্রশাসনের নেতৃত্বে শহরে একটি বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের করা হয়। অপরদিকে, গোপালগঞ্জ শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ও শেখ সায়েরা খাতুন মেডিকেল কলেজ ক্যাম্পাসে নববর্ষের র‌্যালি, পান্তা উৎসবসহ নানান আয়োজন করা হয়। ঝিনাইদহ: ঝিনাইদহে বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্যদিয়ে বাঙালির প্রাণের উৎসব পহেলা বৈশাখ উদযাপিত হচ্ছে। এ উপলক্ষে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে শুক্রবার সকালে শহরের ওয়াজির আলী হাই স্কুল মাঠ থেকে এক বর্ণাঢ্য মঙ্গল শোভাযাত্রা বের করা হয়।

শোভাযাত্রায় বিভিন্ন সরকারি, বেসরকারি, সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন রং-বেরংয়ের ব্যানার, ফেস্টুন, মুখোশ, হরেক রকম পুতুল ও কাগজ দিয়ে তৈরি প্রতিকৃতি নিয়ে শোভাযাত্রায় অংশ নেয়। শোভাযাত্রাটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে পুরাতন ডিসি কোর্ট চত্বরে গিয়ে শেষ হয়।

পরে পুরাতন ডিসি কোর্ট চত্বরে এক আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। আলোচনা সভা শেষে এখানে ১৫ দিনব্যাপী বৈশাখী মেলার উদ্বোধন করা হয়।

রাজবাড়ী: রাজবাড়ীতে জেলা প্রশাসনসহ বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংস্থার আয়োজনে শুক্রবার বর্ণাঢ্য মঙ্গল শোভাযাত্রা ও আনন্দ র‌্যালির মাধ্যমে বাংলা নববর্ষের প্রথম দিন পহেলা বৈশাখ পালিত হয়েছে।

এ উপলক্ষে রাজবাড়ী জেলা প্রশাসকের আম্র  কানন থেকে সকালে সম্মিলিতভাবে এই মঙ্গল শোভা যাত্রা শুরু হয়ে শহর ঘুরে রাজবাড়ী রেলওয়ে মাঠে পান্তা ও খই-মুড়কি বিতরণ করা হয়। পরে জেলা প্রশসকের আম্র কাননে জেলা প্রশাসনের আয়োজনে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

রাজশাহী: বর্ণিল আয়োজনে রাজশাহীর সর্বত্র আনন্দমুখর পরিবেশের বাংলা নতুন বছরকে বরণ করা হচ্ছে। শুক্রবার সকালে বর্ণাঢ্য আয়োজনে নেচে-গেয়ে প্রাণের উৎসবে মেতেছেন রাজশাহীবাসী। বৈশাখের ভোরে সূর্যোদয়ের সাথে সাথে নতুন বছরকে স্বাগত জানাতে মঙ্গল শোভাযাত্রায় শামিল হন বিভিন্ন স্তরের মানুষ।

জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে সকালে একটি শোভাযাত্রা নগরীর কলেজিয়েট গভমেন্ট স্কুল থেকে শুরু হয়ে শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে রিভারভিউ কালেক্টরেট স্কুল মাঠে গিয়ে শেষ হয়। শোভাযাত্রা শেষে এ মাঠে একটি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সার্বজনীন এই উৎসবে সবার মধ্যেই ছিল সাম্প্রদায়িকতা ও মৌলবাদকে রুখে দেয়ার দৃঢ় প্রত্যয়।

বাংলা নববর্ষ ১৪২৪ কে বরণ করতে রাজশাহী মহানগরীজুড়ে অন্যান্য বছরের মতো এবারও বাঙালি উৎসবের আমেজ লক্ষ্যণীয়। বৈশাখের খরতাপ উপেক্ষা করে বর্ষবরণে মেতে উঠেছেন রাজশাহীবাসী। সাদা আর লাল রঙের আলোকচ্ছটায় রঙিন হয়ে উঠেছে যান্ত্রিক নগরজীবন।

নববর্ষ উপলক্ষে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটও নগরীতে একটি বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের করে। ভোরে সূর্যদয়ের সঙ্গে সঙ্গে মহানগরীর পদ্মা পাড়ের ফুদকিপাড়ার উন্মুক্ত মঞ্চে শুরু হয়েছে বাংলা বর্ষবরণের বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠান। সেখানে আয়োজন করা হয় পান্তা উৎসব। রাজশাহী জেলা পরিষদ কার্যালয়েও চলছে পান্তা উৎসব। তবে পান্তায় এবার নেই ইলিশের উপস্থিতি। নববর্ষ উপলক্ষে রাজশাহী মহানগর পুলিশ কমিশনারের বাংলোর পেছনের মাঠে চলছে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। গোদাগাড়ী উপজেলা সদরে পদ্মাতীরে শুরু হয়েছে সাত দিনের বৈশাখী মেলা।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) সাংস্কৃতিক অঙ্গনে এই প্রাণের উৎসবকে ঘিরে নাটক, কবিতা, নৃত্য, আবৃত্তি ও সংগীতের আয়োজন করা হয়েছে। রাজশাহীতে পহেলা বৈশাখের মূল আকর্ষণ এখন রাবির চারুকলা বিভাগকে ঘিরে।

বাংলা নববর্ষ উদযাপন উপলক্ষে রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ও (রুয়েট) মঙ্গল শোভাযাত্রা বের করে। এছাড়া সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হবে মনোঙ্গ সাংস্কৃতিক ও লোকজ সঙ্গীতের অনুষ্ঠান। রাজশাহী কলেজ থেকে সকাল সাড়ে ৯টায় মঙ্গল শোভাযাত্রা বের করা হয়। জেলার সব উপজেলায় পৃথকভাবে নববর্ষকে বরণ করা হচ্ছে নিজস্ব স্বকীয়তায়।

এ দিন রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগার, সব সরকারি হাসপাতাল ও শিশু পরিবার এবং শিশু সদনে উন্নতমানের ঐতিহ্যবাহী বাঙালি খাবারের ব্যবস্থা করা হয়েছে। কারাবন্দীদের পরিবেশনায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে কারাগারে।

এছাড়া বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান নিজ নিজ ব্যবস্থাপনায় বাংলা নববর্ষ উদযাপন করছে। বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ছাত্র-ছাত্রী ও সাধারণ পাঠকদের মধ্যে রচনা প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছে। রাজশাহী বিভাগীয় গ্রন্থাগারেও রচনা প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছে। ক্ষুদ্র-নৃ গোষ্ঠীর কালচারাল ইনস্টিটিউট তাদের নিজস্ব সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে।

নববর্ষ উপলক্ষে বৃহস্পতিবার দর্শনার্থীরা টিকিট ছাড়াই ঢুকতে পারছেন বরেন্দ্র গবেষণা জাদুঘর, শহীদ কামারুজ্জামান কেন্দ্রীয় উদ্যান ও জিয়া পার্কে। তাই অন্যান্য দিনের তুলনায় দর্শনার্থীর সংখ্যা বেড়েছে বহুগুণ। এসব স্থান ছাড়াও নগরীর বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে মানুষের উপচেপড়া ভিড় লক্ষ্য করা যাচ্ছে। সবাই মেতেছেন প্রাণের উৎসবে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ: নানা আয়োজনের মধ্যদিয়ে পুরনো বছরের সকল গ্লানি মুছে বাংলা নববর্ষকে বরণ করতে চাঁপাইনবাবগঞ্জে সব বয়সের মানুষ উৎসবে মেতে উঠে। অসাম্প্রদায়িক বাঙালির সবচেয়ে বড় উৎসব পহেলা বৈশাখ। বর্ষবরণ উপলক্ষে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ঢাক-ঢোল, রং-বেরং এর প্লাকার্ড ফেস্টুন ও বাদ্যর মধ্যদিয়ে মঙ্গল শোভাযাত্রা শহর প্রদক্ষিণ করে।

শুক্রবার সকাল ৯টায় জেলা প্রশাসক কার্যালয় চত্বরের সামনে থেকে মঙ্গল শোভাযাত্রাটি নাচ-গান, হাসি-আনন্দে বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে গ্রিন ভিউ উচ্চ বিদ্যালয় আম্রকাননে শেষ হয়। শোভাযাত্রায় অংশগ্রহণ করে চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভা, বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন।

দিনাজপুর: দিনাজপুরে পালিত হয়েছে বর্ষবরণ উৎসব। দিনাজপুর গোর-এ শহীদ ময়দান থেকে শুক্রবার সকালে বাঙালির ঐতিহ্যের বর্ণাঢ্য আয়োজনে বাঙালি উপকরণের সাজে মঙ্গল শোভাযাত্রা দিয়ে দিনাজপুরবাসী স্বাগত জানায় নববর্ষকে।

জেলা প্রশাসন ও বৈশাখী উৎসব পরিষদের যৌথ আয়োজনে ধর্ম-বর্ণ, ধনী-গরিব ভেদাভেদ ঘুচে নারী-পুরুষ, যুবক-যুবতীর ঢল নামে মঙ্গল শোভাযাত্রায়। এদিকে দিবসটি পালনে জেলা উদীচীর আয়োজনে শিল্পকলা একাডেমিতে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

এছাড়া দিনাজপুর প্রেসক্লাব, দিনাজপুর হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, নবরূপী, আমাদের থিয়েটারসহ বিভিন্ন সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠান নৃত্য, সংগীতের মাধ্যমে পালন করছে দিবসটিকে।

নাটোর: নাটোরের সিংড়ায় ব্যাপক কর্মসূচির মধ্যদিয়ে পহেলা বৈশাখ উদযাপিত হয়েছে। বর্ষবরণ উপলক্ষে উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে নানা কর্মসূচি হাতে নেয়া হয়।

গ্রাম বাংলার চিরায়ত নানা সাজে মঙ্গল শোভাযাত্রা সবার দৃষ্টি কাড়ে এবং সিংড়া কোর্ট মাঠে উৎসবমুখর মানুষের ঢল নামে।

ঠাকুরগাঁও: বাংলা ১৪২৪ নববর্ষ উদযাপন উপলক্ষে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে মঙ্গল শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সকালে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে বড়মাঠ থেকে মঙ্গল শোভাযাত্রা বের হয়। শোভাযাত্রাটি শহরের বিভিন্ন রাস্তা প্রদক্ষিণ শেষে পূর্বের জায়গায় গিয়ে শেষ হয়।

বগুড়া: ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্যদিয়ে বগুড়ায় পালিত হলো বৈশাখী উৎসব। র‌্যালি, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের পাশাপাশি লাঠি খেলার আয়োজন ছিল দর্শনার্থীদের কাছে আকর্ষণ। আয়োজনে অংশ নেন বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ।

এ উপলক্ষে সকালে জেলা প্রশাসকের উপস্থিতিতে বের হয় মঙ্গল শোভা যাত্রা। এতে অংশ নেয় বগুড়ার বিভিন্ন  সাংস্কৃতিক সংগঠন, স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থী এবং সাংস্কৃতিকজন।

লালমনিরহাট: সারাদেশের ন্যায় লালমনিরহাটেও বর্ণাঢ্য আয়োজন ও উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্যদিয়ে বাংলা বর্ষবরণ উদযাপিত হয়েছে। বর্ষবরণ উপলক্ষে শহরের শেখ রাসেল শিশু পার্ক প্রাঙ্গণে আয়োজন করা হয়েছে ১০ দিনব্যাপী বৈশাখী মেলার। এছাড়া নাগর দোলা, চরকিসহ প্রতিদিন সন্ধ্যার পর রয়েছে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

শুক্রবার সকাল সাড়ে ৯টায় হরেক রঙের মুখোশ পরে এবং পালকি, গরু ও ঘোড়ার গাড়িতে চড়ে বাদ্যযন্ত্রের তালে তালে সমাজের বিভিন্ন শ্রেণিপেশার হাজার হাজার মানুষ মঙ্গল শোভাযাত্রায় অংশ নেয়।

চিরিরবন্দর (দিনাজপুর): বাংলা নববর্ষ ১৪২৪ কে বরণ করতে দিনাজপুরের চিরিরবন্দরে মঙ্গল শোভাযাত্রাসহ ব্যাপক কর্মসূচি পালন করা হয়েছে। শুক্রবার সকাল ৯টায় উপজেলা নববর্ষ উদযাপন কমিটির আয়োজনে উপজেলা পরিষদ চত্বর হতে মঙ্গল শোভাযাত্রার র‌্যালি উপজেলার প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে চিরিরবন্দর মডেল পাইলট স্কুলে গিয়ে শেষ হয়।

শোভাযাত্রা শেষে সামাজিক সংগঠনগুলো নববর্ষকে বরণ করতে নানা আয়োজনে মেতে উঠে। এছাড়া সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আলাদা আলাদাভাবে দিনটি পালন করে।

নওগাঁ: নওগাঁয় বর্ণাঢ্য আয়োজনে বর্ষবরণ চলছে। শুরুতেই শুক্রবার সকালে শহরের কালেকটরেট চত্বর থেকে একটি র‌্যালি শহরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে। র‌্যালিতে শহরের বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন অংশ নেয়।

এছাড়া দিনব্যাপী শহরের বিভিন্ন স্থানে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়েছে।

কিশোরগঞ্জ: কিশোরগঞ্জে মঙ্গল শোভাযাত্রার মধ্যদিয়ে বাংলা নববর্ষ উদযাপিত হয়েছে। জেলা প্রশাসনের আয়োজনে শুক্রবার সকালে পুরাতন স্টেডিয়ার থেকে শোভাযাত্রাটি শুরু হয়ে শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে বিয়াম স্কুলে গিয়ে আলোচনা সভায় মিলিত হয়।

মির্জাপুর (টাঙ্গাইল): টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে মঙ্গল শোভাযাত্রা করাসহ নানা আয়োজনে চলছে বাংলা নববর্ষবরণ। সকালে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে উপজেলা পরিষদ চত্বরের মুক্তির মঞ্চ এবং দেওহাটা এ জে উচ্চ বিদ্যালয়ের উদ্যোগে বিদ্যালয় মাঠ থেকে পৃথক দুটি শোভাযাত্রা বের করা হয়। শোভাযাত্রায় ছাত্র-ছাত্রীদের মাধ্যমে গ্রাম বাংলার বিভিন্ন পেশার মানুষের জীবন চিত্র ও কর্মকাণ্ড তোলে ধরা হয়।

অপরদিকে সকাল থেকে মির্জাপুর প্রেসক্লাবের পক্ষ থেকে পান্তা ভাতের সঙ্গে আলু ও শুটকি মাছের ভর্তা এবং কাঁচা ও শুকনো মরিচ দিয়ে অতিথি আপ্যায়ন করছে।

এছাড়া উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে গ্রামীণ ঐতিহ্য খেলা হা-ডু-ডু ও লাঠি খেলার আয়োজন করা হয়েছে। তাছাড়া নববর্ষ উপলক্ষে বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন ও ক্লাবের পক্ষ থেকে উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে একাধিক মেলা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান এবং খেলাধুলার আয়োজন করা হয়েছে। বিকোলে মির্জাপুর উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে মুক্তির মঞ্চে সাংস্কৃতি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া: নানা কর্মসূচির মধ্যদিয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বাংলা নববর্ষ পালিত হয়েছে। নতুন বছরের প্রথম দিনে উৎসব আবহ সৃষ্টি হয়েছে। জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে সকালে সরকারি কলেজ প্রাঙ্গণ থেকে একটি বর্ণাঢ্য মঙ্গল শোভাযাত্রা বের হয়। এছাড়াও বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠন বিভ্ন্নি কর্মসূচির মাধ্যমে নববর্ষ পালন করেছে।

নড়াইল: নানা আয়োজনে নড়াইলে বর্ষবরণ উৎসব চলছে। এ উপলক্ষে নড়াইল জেলা শিল্পকলা একাডেমি চত্বর ও সুলতান মঞ্চে ৫ দিনব্যাপী মেলার আয়োজন করা হয়েছে। শুক্রবার সকাল ৮টায় বর্ষবরণের উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক হেলাল মাহমুদ শরীফ। এছাড়া প্রভাতী গান, শোভাযাত্রা ও আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়।

পাঁচ দিনব্যাপী বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে-কবিতা অবৃত্তি, চিত্রাংকন, হাতের সুন্দর লেখা, নৃত্য, হা-ডু-ডু, লাঠি খেলা, ঘুড়ি উড়ানো ও লোকসংগীত প্রতিযোগিতা, আলোচনা সভা, নাটক  এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

চট্টগ্রাম: ভায়োলিনিস্ট চিটাগাংয়ের বেহালার সুরে নগরীর সিআরবির শিরীষতলায় এ গান আর ওস্তাদ স্বর্ণময় চক্রবর্তীর বিলাসখানী টোড়ী রাগের খেয়ালের মধ্যদিয়ে নগরীর ডিসি হিলের নজরুল স্কয়ারে শুরু হয়েছে বর্ষবরণ অনুষ্ঠান।

ডিসি হিলের অনুষ্ঠান শুরু হয় শুক্রবার ভোর ৬টায়। আর সিআরবি শিরীষতলায় অনুষ্ঠান শুরু হয় সকালে সাড়ে ৭টায়। সেই থেকে একের পর এক চলছে বর্ষবরণের গান, কবিতা আবৃত্তি, নাচসহ নানা কর্মসূচি। যেখান সুরের মুর্চনা ছড়িয়ে পড়ছে নগরীর সবখানে।

ভোর ৬টা হঠাৎ ডিসি হিলের চারপাশে বেজে উঠে তানপুরা আর হারমোনিয়ামের সুর। ওস্তাদ স্বর্ণময় চক্রবর্তী বিলাসখানী টোড়ী রাগের খেয়ালে যেন নগরীর জেগে উঠা প্রাণে সুর সঞ্চার করে। এ ডিসি হিলে বর্ষবরণ অনুষ্ঠানের আয়োজকদের একজন খেলাঘরের সদস্য শান্তনু চৌধুরী।

এদিকে উৎসবে যোগ দিতে ডিসি হিলে দেখা গেছে দর্শকদের উপচেপড়া ভিড়। পরিবার-পরিজন, বন্ধু-বান্ধব নিয়ে ঘুরতে এসেছেন অনেকে।  শিশু থেকে শুরু করে বুড়ো বাদ যায়নি কেউ। বিকাল আড়াইটায় বর্ষবরণের ২য় অধিবেশন শুরু হবে।

এদিকে নগরীর সিআরবির শিরীষতলায়ও চলছে বর্ষবরণ অনুষ্ঠান। ভায়োলিনিস্ট চিটাগাং এর বেহালায় এসো হে বৈশাখ এসো এসো- গানে শুরু হয় অনুষ্ঠান।

বরিশাল: দেশবাসীর মঙ্গল কামনার মধ্য দিয়ে বরিশালে মঙ্গল শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়েছে। রাখিবন্ধন আর ঢাকের তালে শোভাযাত্রার উদ্বোধন করা হয়। শুক্রবার সকাল ৭টা থেকে চারুকলা বরিশালের আয়োজনে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান শুরু হয়। পরে শিশুরা গুণীজন ও মুক্তিযোদ্ধাদের রাখি পরিয়ে নববর্ষের আনুষ্ঠানিকতা শুরু করে। পাশাপাশি তাদের সম্মাননা প্রদান করা হয়।

সকাল ৮টায় চারুকলার মঙ্গল শোভাযাত্রার উদ্বোধন করেন মাহাবুব উদ্দিন আহমেদ বীর বিক্রম। অপরদিকে মঙ্গল শোভযাত্রা বের করে উদীচী বরিশাল। বরিশাল জেলা প্রশাসন, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়, সরকারি ব্রজমোহন কলেজসহ বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের আয়োজনেও ছিল নানা অনুষ্ঠানিকতা।

ময়মনসিংহ: ময়মনসিংহে জেলা, উপজেলা প্রশাসন, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের উদ্যোগে বর্ণিল ও বর্ণাঢ্য আয়োজনে উদযাপন হচ্ছে বর্ষবরণ। বর্ষবরণ উদযাপন পর্ষদ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ এর উদ্যোগে শুক্রবার গুরুত্বপূর্ণ সড়কে মঙ্গল শোভাযাত্রা হয়েছে।

এছাড়াও জেলার ময়মনসিংহ সদর, মুক্তাগাছা, ফুলবাড়ীয়া, ভালুকা, ত্রিশাল, গফরগাঁও, ঈশ্বরগঞ্জ, গৌরীপুর, নান্দাইল, ধোবাউড়া, ফুলপুর, তারাকান্দা ও হালুয়াঘাটে উপজেলা প্রশাসন ও সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠনের উদ্যোগে মঙ্গল শোভাযাত্রা হয়েছে।

নববর্ষ পালনে দিনব্যাপী বিভিন্ন সংগঠন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানসহ নানান কর্মসূচি পালন করছে। জেলা সদর ও উপজেলাগুলোর বিভিন্ন স্থানে বসেছে বৈশাখী মেলা।

ভোলা: ভোলা জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে পহেলা বৈশাখ পালন উপলক্ষে মঙ্গল শোভাযাত্রা বের করা হয়েছে। শুক্রবার সকালে জেলা প্রশাসনের কার্যালয়ের সামনে থেকে জেলা প্রশাসক মো. সেলিম উদ্দিনের নেতৃত্বে এ শোভাযাত্রা বের করা হয়। শোভাযাত্রাটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে আবার জেলা প্রশাসক কার্যালয় গিয়ে শেষ হয়।

এর আগে বৈশাখের প্রথম প্রহরে অফিসার্স ক্লাবের সামনে জেলা প্রশাসনের আয়োজনে ও স্থানীয় শিল্পীদের অংশগ্রহণে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হয়।

বান্দরবান: বর্ষবরণে বৈচিত্র্যময় ঐতিহ্যের ছোঁয়া লেগেছে পার্বত্য জেলা বান্দরবানে। পহেলা বৈশাখে দেশের অন্যান্য জেলার চেয়ে কিছুটা ভিন্ন আঙ্গিকে নতুন বছরকে স্বাগত জানিয়েছে পাহাড়ের বাসিন্দারা।

শুক্রবার সকাল সাড়ে ৮টায় ঐতিহ্যবাহী রাজার মাঠ হতে পার্বত্য জেলা পরিষদের আয়োজনে এক বর্ণাঢ্য মঙ্গল শোভাযাত্রা বের করা হয়। শোভা যাত্রাটি শহর ঘুরে আবার একই স্থানে গিয়ে শেষ হয়।

শোভাযাত্রায় বিভিন্ন সম্প্রদায়ের শিশু কিশোর, তরুণ-তরুণীরা নিজস্ব ঐতিহ্যের পোশাকে নেচে-গেয়ে বর্ষবরণ অনুষ্ঠানে অংশ নেন। এছাড়াও তাদের বিভিন্ন বাদ্যযন্ত্রের সুর মূর্ছনা ও সংস্কৃতিক ভাবধারা প্রদর্শনের মাধ্যমে নিজস্ব ঐতিহ্যকে তুলে ধরে।

খাগড়াছড়ি: সাংগ্রাই উদযাপন উপলক্ষে খাগড়াছড়িতে ভিন্ন রকম আয়োজন করেছে বাংলাদেশ মারমা ঐক্য পরিষদ। শুক্রবার সকাল ১১টায় মহিলা কলেজ সংলগ্ন নিজস্ব কার্যালয়ের সামনে বিশ্ববাসীর শান্তি কামনায় সংগঠনটির মঙ্গল প্রদীপ জ্বেলে কর্মসূচির উদ্বোধন করা হয়।

সাংগ্রাই অনুষ্ঠানে বিভিন্ন বয়সের মারমা সম্প্রদায়ের নেতৃবৃন্দসহ নানা শ্রেণিপেশার মানুষ অংশ নেয়।

অন্যরা য়া পড়ছে...

Loading...



চেক

সরকার রেল খাতে অধিক গুরুত্ব দিয়েছে, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে বড় বড় প্রকল্প হাতে নেয়া হচ্ছে : রেলপথ মন্ত্রী

ঢাকা, ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ইং (দালান কোঠা ডটকম): আজ রেলভবনে দোহাজারী-রামু-কক্সবাজার নতুন ডুয়েলগেজ রেললাইন নির্মান প্রকল্পের …

সরকার বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোট ভাঙার চেষ্টা করছে : মির্জা ফখরুল

ঢাকা, ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ইং (দালান কোঠা ডটকম): আজ শনিবার বিএনপি চেয়ারপারসনের গুলশান কার্যালয়ে ২০ দলীয় …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

My title page contents