কারাদণ্ডপ্রাপ্ত অপর চার আসামি হলেন- রাগীব আলীর ছেলে আবদুল হাই, রাগীব আলীর আত্মীয় দেওয়ান মোস্তাক মজিদ, রাগীব আলীর মেয়ে রোজিনা কাদির এবং তার স্বামী আবদুল কাদির। খালাস পেয়েছেন তারাপুর চা-বাগানের বৈধ সেবায়েত পঙ্কজ কুমার গুপ্ত্।

এর আগে, উচ্চ আদালতের নির্দেশনায় ২৩ ফেব্রুয়ারি বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় দুই সপ্তাহের জন্য এ রায় ঘোষণা স্থগিত করা হয়।