৭:৪৭ অপরাহ্ণ - বুধবার, ২১ নভেম্বর , ২০১৮
Breaking News
Download http://bigtheme.net/joomla Free Templates Joomla! 3
Home / জরুরী সংবাদ / জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠিত না হলে তিস্তার পানিবণ্টনে চুক্তি হবে না : হাফিজ উদ্দিন আহমেদ

জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠিত না হলে তিস্তার পানিবণ্টনে চুক্তি হবে না : হাফিজ উদ্দিন আহমেদ

ঢাকা, ০৫ এপ্রিল, ২০১৭ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): আজ বুধবার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে এক সেমিনারে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান হাফিজ উদ্দিন আহমেদ বলেছেন, বর্তমান সরকার জনগণের সরকার নয়।

তিনি বলেছেন, জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠিত না হলে তিস্তার পানিবণ্টনে চুক্তি হবে না। বর্তমান সরকার ভারতের যা যা চাহিদা ছিল তার সবই দিয়েছে দাবি করে বিএনপি নেতা দাবি করেন, এর বিনিময়ে বাংলাদেশ কিছুই পায়নি দেশটির থেকে।

আগামী শুক্রবার চার দিনের সফরে ভারত যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এই সফরের আগে আগে বিএনপি আটকে থাকা তিস্তার পানিবণ্টন চুক্তি ও এই সফরে কথিত নিরাপত্তা চুক্তির সম্ভাবনা নিয়ে সমালোচনায় সোচ্চার।

বর্তমান সরকারের আমলে ভারতের সঙ্গে অমীসাংসিত বেশ কিছু সমস্যার সমাধান হয়েছে। দীর্ঘ দিন ধরে আটকে থাকার পর বিনিময় হয়েছে ছিটমহল এবং এই প্রক্রিয়ায় ভারতের কাছ থেকে ১০ হাজার একরেরও বেশি জমি পেয়েছে বাংলাদেশ। আন্তর্জাতিক আদালতের রায়ে নির্দিষ্ট হয়েছে সমুদ্র সীমাও। তবে সীমান্তে বিএসএফের গুলিতে বাংলাদেশি হত্যা আগের চেয়ে কমলেও সেটি এখনও উদ্বেগজনক পর্যায়ে রয়ে গেছে। পাশাপাশি তিস্তার পানিবণ্টন চুক্তি আটকে আছে ২০১১ সাল থেকেই।

বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের আমলের পানিসম্পদমন্ত্রী হাফিজ উদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘ভারতের সঙ্গে আমাদের সমস্যাই পানি। তারা দৃঢ় প্রতিজ্ঞ আমাদের পানি দেবে না।’

প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফরকে সামনে রেখে মঙ্গলবার এক সংবাদ সম্মেলনে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এইচ এম মাহমুদ আলী বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর আসন্ন ভারত সফরে আলোচনার টেবিলে অনেক ইস্যু রয়েছে, সেখানে তিস্তা চুক্তির মতো একটি বিষয় না হলে কিছু যায় আসে না।’

তার এই মন্তব্যের প্রেক্ষিতে হাফিজ উদ্দিন বলেন, ‘গতকাল আমাদের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, তিস্তা চুক্তি না হলে কিছু আসে যায় না। আসলে এ্ই সরকার জনগণের ভোটে নির্বাচিত নয়। তাই তাদের জনগণের প্রতি কোন দায়বদ্ধতা নাই। আর এ কারনে সরকারের মন্ত্রী এইভাবে কথা বলেন।’

ভারতের সাথে প্রতিরক্ষা চুক্তি হলে আমাদের প্রতিরক্ষা হুমকিতে পরবে মন্তব্য করে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বলেন, ‘ভারত একটি যুদ্ধবাজ রাষ্ট্র। তারা পাকিস্তান এবং চীনের সঙ্গে যুদ্ধে জড়িয়ে পরে। এই চুক্তির ফলে ভারতের সঙ্গে কারো যুদ্ধ হলে আমাদেরও সেই যুদ্ধে জড়িয়ে পড়তে হবে।’

প্রধানমন্ত্রী ভারত সফরে ৩৫ টির মত চুক্তি বা সমঝোতা স্মারক সই হতে পারে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। বিএনপি নেতা হাফিজ বলেন, ‘এসব চুক্তির সবগুলোই ভারতের অনুকূলে যাবে। এই সমস্ত চুক্তি থেকে অবশ্যই সরে আসতে হবে, নতুবা আমাদের সার্বোভৌমত্ব হুমকির মুখে পড়বে।’

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বেগম সেলিমা রহমান, বিএনপিপন্থী বুদ্ধিজীবী জাফজুল্লাহ চৌধুরী, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের সাবেক অধ্যাপক দিলারা চৌধুরী, বিএনপির সহ তথ্য সম্পাদক কাদের গণি চৌধুরী প্রমুখ এই সেমিনারে বক্তব্য রাখেন।

অন্যরা য়া পড়ছে...

Loading...



চেক

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ওমরাহ পালন

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৃহস্পতিবার রাতে এখানে পবিত্র …

জনগণ ছেড়ে বিদেশিদের কাছে কেন : ঐক্যফ্রন্টকে ওবায়দুল কাদের

গাজীপুর, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): শুক্রবার বিকেলে গাজীপুরের চন্দ্রায় ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক চার লেনে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

My title page contents