৫:২৬ অপরাহ্ণ - সোমবার, ১৯ নভেম্বর , ২০১৮
Breaking News
Download http://bigtheme.net/joomla Free Templates Joomla! 3
Home / জরুরী সংবাদ / আমরা ভারতকেও বলবো-বিতর্কিত প্রতিরক্ষা চুক্তি করা থেকে বিরত থাকুন : মোশাররফ

আমরা ভারতকেও বলবো-বিতর্কিত প্রতিরক্ষা চুক্তি করা থেকে বিরত থাকুন : মোশাররফ

ঢাকা, ০৫ এপ্রিল, ২০১৭ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): আজ বুধবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে এক আলোচনায়  ভারতকে বাংলাদেশের বিশ্বস্ত বন্ধুরাষ্ট্র আখ্যা দিয়ে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, এই দেশের সঙ্গে তাহলে কেন প্রতিরক্ষা চুক্তি করতে হবে।

আগামী শুক্রবার চার দিনের সফরে ভারতে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এই সফরে দুই দেশের মধ্যে ৩৫টির মতো চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক সই হতে পারে বলে জানিয়েছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। তবে বিএনপি নেতারা সবচেয়ে বেশি সোচ্চার কথিত প্রতিরক্ষা চুক্তি নিয়ে।

বিএনপির দাবি, প্রতিরক্ষা বিষয়ে কোনো চুক্তি হলে বাংলাদেশের স্বাধীনতা হুমকির মুখে পড়বে। বাংলাদেশের মানচিত্রই থাকবে কি না এ নিয়ে সংশয়ের কথাও জানিয়েছেন একজন নেতা।

খন্দকার মোশাররফ বলেন, ‘ভারত আমাদের বিশ্বস্ত বন্ধু রাষ্ট্র। তাদের পক্ষ থেকে আমাদের এখানে আক্রমণ করার কোনো আশঙ্কা আমরা করি না। তাহলে কেন তাদের সঙ্গে প্রতিরক্ষা চুক্তি করতে হবে? প্রধানমন্ত্রীকে এটা জনগণের সামনে পরিষ্কার করতে হবে।’

প্রতিরক্ষা বিষয়ে কোনো চুক্তি না করতে ভারতকেও অনুরোধ করেন এই বিএনপি নেতা। তিনি বলেন, ‘আমরা ভারতকেও বলবো যে চুক্তি সম্পর্কে বাংলাদেশের মানুষ জানে না, সেই বিতর্কিত প্রতিরক্ষা করা থেকে আপনারা বিরত থাকুন।’

তিস্তা চুক্তি না হলে প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফরের মানে হয় না বলেও মনে করেন খন্দকার মোশাররফ তিনি বলেন, ‘গতকাল পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন এই সফরে ৩৫টি চুক্তি ও সমঝোতা হবে। তাই একটা তিস্তা চুক্তি না হলে কিছুই হবে না। তাকে বলতে চাই, ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের যে বিষয়টি খুব গুরুত্বপূর্ণ এবং জীবন মরণের প্রশ্ন তা হলো পানি সমস্যা। তাই প্রধানমন্ত্রীর যত চুক্তিই হোক তিস্তা চুক্তি না হলে এই সফর হবে সম্পূর্ণ ব্যর্থ। এতে কোনো সফলতা আসবে না।’

আওয়ামী লীগে অনাকাঙ্ক্ষিতদের অনুপ্রবেশ নিয়ে সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের পর এবার ‘কাউয়া’ প্রসঙ্গ তুললেন খন্দকার মোশাররফও। তিনি বলেছেন, কেবল আওয়ামী লীগে নয়, কাউয়া ঢুকেছে সরকারে এবং তারাই দেশ চালাচ্ছে।

গত ২২ মার্চ সিলেটে আওয়ামী লীগের এক জনসভায় ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আওয়ামী লীগে কাউয়া ঢুকেছে। তারা ঘরের মধ্যে ঘর তৈরির চেষ্টা করছে।’

ওবায়দুল কাদেরের এই বক্তব্যের পর একই ধরনের কথা বলেন দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফও। এই দুই বক্তব্যের রেশ টেনে মোশাররফ বলেন, ‘একজন বলছেন সরকারের মধ্যে কাউয়া আছে। আর একজন বলছেন দলের মধ্যে কাউয়া আছে। এরমানে আমরা দেখছি সব জায়গা কাউয়া। তাই কাউয়া ও চাটার দল সরকার পরিচালনা করছে।’

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের একটি উক্তি উল্লেখ করে বিএনপি নেতা খন্দকার মোশাররফ বলেন, ‘শেখ মুজিবুর রহমান নিজে তার দলকে বলেছেন চাটার দল। আর এখন এই দলের নেতারা বলছেন আওয়ামী লীগ হলো কাউয়ার দল। এদের হাত থেকে দেশকে রক্ষা করতে হলে দেশে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার করতে হবে। ভোটের অধিকার নিশ্চিত করতে হবে।’

খালেদা জিয়া ‘সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ’ সরকারের অধীনে নির্বাচনের জন্য নিরপেক্ষ সরকারের রূপরেখা দেবেন জানিয়ে বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘আমরা আশা করি নির্বাচন হবে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে, সেই নির্বাচনে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড হবে এবং কুমিল্লার মতো সারা বাংলাদেশে বিএনপির বিজয়ের পতাকা উড্ডীন হবে।’

আলোচনায় বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক সুলতানা রহমান প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন মহিলা দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হেলেন জেরিন খান।

অন্যরা য়া পড়ছে...

Loading...



চেক

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ওমরাহ পালন

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৃহস্পতিবার রাতে এখানে পবিত্র …

জনগণ ছেড়ে বিদেশিদের কাছে কেন : ঐক্যফ্রন্টকে ওবায়দুল কাদের

গাজীপুর, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): শুক্রবার বিকেলে গাজীপুরের চন্দ্রায় ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক চার লেনে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

My title page contents