১২:২৯ পূর্বাহ্ণ - রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর , ২০১৮
Breaking News
Download http://bigtheme.net/joomla Free Templates Joomla! 3
Home / জরুরী সংবাদ / জেল-জরিমানার ভয়ে মোটরসাইকেল ফুটপাতে নেই

জেল-জরিমানার ভয়ে মোটরসাইকেল ফুটপাতে নেই

ঢাকা, ০৩ এপ্রিল, ২০১৭ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): রাজধানীর ফুটপাতে মোটরসাইকেল চলার বিষয়টি নতুন কিছু নয়। রাস্তায় একটু জ্যাম দেখলেই চালকরা তাদের মোটরসাইকেলটি উঠিয়ে দেন ফুটপাতে। বিকট শব্দে বাজাতে থাকেন হর্ন। এতে নগরবাসী বরাবরই ত্যক্ত-বিরক্ত।

নগরবাসীকে এই বিরক্তি থেকে মুক্তি বিভিন্ন সময় নেয়া হয়েছে বিভিন্ন উদ্যোগ। তবে কাজের কাজ কিছুই হয়নি। এমনকি উচ্চ আদালতের নির্দেশও মানছিলেন না মোটরসাইকেল চালকরা।

তবে ফুটপাতে ‘মোটরসাইকেল উঠালে তিন মাসের কারাদণ্ড ও ৩৫ হাজার টাকা জরিমানা’ এমন আইনের সিদ্ধান্ত হওয়ার পরপরই পাল্টে গেছে ফুটপাতের দৃশ্য। এখন আর মোটরসাইকেল চালকদের হুট করে ফুটপাতে উঠতে দেখা যায় না। আইন পাস না হলেও অনেকে খবরে জেনেছেন এই আইনটির কথা। এতেই অনেক সচেতনতা এসেছে রাজধানীবাসীর। জেল-জরিমানার ভয়ে তারা এখন ফুটপাতে মোটরসাইকেল চালাচ্ছেন না।

গত সোমবার (২৭ মার্চ) সচিবালয়ে মন্ত্রিসভার বৈঠকে সড়ক পরিবহন আইনের খসড়ার অনুমোদন হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, ফুটপাতে মোটরসাইকেল চালালে তিন মাসের কারাদণ্ডের পাশাপাশি জরিমানা হবে ৩৫ হাজার টাকা। আইনটি এখনো খসড়ায়, চূড়ান্ত হওয়ার পর তা সংসদে পাস হবে; পরেই কার্যকর হবে এর বিধান।

আইনের খসড়া পাস হওয়ার পর মোটরসাইকেল ফুটপাতে উঠানো হচ্ছে কি না সেটা দেখার জন্য রবিবার সরেজমিনে রাজধানীর বিভিন্ন সড়কে দুই ঘণ্টা অপেক্ষা করেন ঢাকাটাইমসের প্রতিবেদক। এই সময়ে কোনো মোটরসাইকেল আরোহীকে ফুটপাথে উঠতে দেখা যায়নি।

বিকাল তখন চারটা। অফিসফেরত যাত্রীদের চাপ বেড়েছে সড়কে। যানজটও আছে কিছু। এর মধ্যে বাংলামোটর এলাকায় এক মোটরসাইকেল আরোহীকে দেখা গেল ফুটপাতে উঠার চেষ্টা করছেন। কিন্তু হুট করেই নেমে পড়লেন মূল সড়কে। কেন উঠতে চেয়েও ফুটপাতে উঠলেন না এমন প্রশ্নে তিনি কিছুটা বিব্রতবোধ করলেন। কোনো কথা বলতে রাজি হননি।

এই সময়ে অন্য কোনো মোটরসাইকেল আরোহীকে ফুটপাতে উঠার চেষ্টাও করতে দেখা যায়নি। অথচ আইনের খসড়া হওয়ার আগে এই দৃশ্য অহরহ দেখা যেতো।

আইনের খসড়া হওয়ার পরপরই নগরবাসীর মধ্যে এই সচেতনতা সৃষ্টি হলো কিভাবে? এ সম্পর্কে জানতে চাইলে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার মোসলেহ আহমেদ ঢাকাটাইমসকে বলেন, ‘ফুটপাত মানুষের চলাচলের জন্য, মোটরসাইকেল চালানোর জন্য নয়। আমরা খুব কঠোরভাবে ব্যাপারটা হেন্ডেল করছি। কেউ ফুটপাতে মোটরসাইকেল উঠালে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে। এক্ষেত্রে কাউকে ছাড় দেয়া হবে না।’ তিনি জানান, ফুটপাতে যেন মোটরসাইকেল উঠতে না পারে সেজন্য লোহার পাইপ গেড়ে বাধার সৃষ্টি করা হবে।

২০১২ সালে হাইকোর্ট রাজধানীর ফুটপাতে মোটরসাইকেল চালানো অবৈধ ঘোষণা করে। সেই সময় চালকদের বিরুদ্ধে তাৎক্ষণিক শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণে পুলিশকে নির্দেশ দেয় সর্বোচ্চ আদালত। কিন্তু এই আদেশের প্রয়োগ দেখা যায়নি তেমন।

ফুটপাতে মোটরসাইকেল ঠেকাতে বিভিন্ন সময় ট্রাফিক বিভাগ বিভিন্ন উদ্যোগও গ্রহণ করে। ফুটপাতে লোহার পাইপও বসানো হয়। তবে কোনো উদ্যোগই পুরোপুরি ফলপ্রসূ হয়নি। এবার জেল-জরিমানার বিধান রেখে যে কঠোর আইনের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে তাতে রাজধানীর ফুটপাতগুলো মোটরসাইকেল মুক্ত হবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। সৌজন্যে ঢাকাটাইমস

অন্যরা য়া পড়ছে...

Loading...



চেক

বিকল্পের সন্ধানে কোটা বাতিলের প্রজ্ঞাপনে দেরি হচ্ছে : ওবায়দুল কাদের

ঢাকা, ১৩ মে ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষণা অনুযায়ী সরকারি চাকরিতে কোটা …

স্যাটেলাইট মহাকাশে ঘোরায় বিএনপির মাথাও ঘুরছে : মোহাম্মদ নাসিম

ফেনী, ১৩ মে ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ মহাকাশে উৎক্ষেপণ হওয়ায় বিএনপির মাথাও ঘুরছে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

My title page contents