৩:২০ অপরাহ্ণ - বৃহস্পতিবার, ২০ সেপ্টেম্বর , ২০১৮
Breaking News
Download http://bigtheme.net/joomla Free Templates Joomla! 3
Home / আন্তর্জাতিক / অভিবাসীদের আফ্রিকায় পাঠানোর সিদ্ধান্ত ইইউ’র

অভিবাসীদের আফ্রিকায় পাঠানোর সিদ্ধান্ত ইইউ’র

uro 08.11.15ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক, ০৮ নভেম্বর ২০১৫ (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম):  ইউরোপে প্রবেশ করা লাখ লাখ মানুষ কে আফ্রিকায় পাঠানোর পরিকল্পনা করছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন।

গত কয়েক মাস ধরেই অভিবাসী নিয়ে মানবিক সঙ্কটে ইউরোপের দেশগুলো। এই সঙ্কট কাটিয়ে উঠতেই ই্উরোপের মন্ত্রীরা এমন সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছেন বলে জানিয়ে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য টেলিগ্রাফ।

ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে জানানো হয়, যারা সমাজে অবদান রাখতে পারবে শুধু তাদেরই আশ্রয় দিবে তারা। এদিকে ইইউ এর সঙ্গে সম্পর্কোন্নয়নে ইউনিয়নের প্রেসিডেন্ট ডোনার্ড টাস্ককে চিঠি পাঠাতে জাচ্ছেন যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন। তার ঠিক আগেই এমন সিদ্ধান্ত আসলো ইইউ এর পক্ষ থেকে।

তবে তাদের এই সিদ্ধান্তকে ‘পাগলামি’ বলে মন্তব্য করেছেন বিশেষজ্ঞরা। তারা জানান, এমন সিদ্ধান্তে ব্রিটিশ নাগরিকরা ইইউ ছাড়ার জন্য ভোট দিতে পারেন।

ইইউ এর সঙ্গে সম্পর্ক আরো জোরদার করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন ডেভিড ক্যামেরন। এজন্য আগামী মঙ্গলবার একটি বক্তব্য দেওয়ার কথা রয়েছে তার। তবে ব্রিটেনের আহবান না মানা হলে ইইউ ত্যাগ করারও হুমকি দিয়েছেন তিনি।

তবে ক্যামেরনের মন্ত্রিসভার কয়েক সদস্য টেলিগ্রাফকে জানায় যে, ইইউ এ যুক্তরাজ্যের সদস্যপদে পরিবর্তন আসতে পারে। এছাড়া ‍বুধবার মাল্টার ভ্যালেটায় অভিবাস সঙ্কট নিয়ে অনুষ্ঠিতব্য সম্মেলনে ইইউ এর গাঠনিক পরিবর্তনে চাপ প্রয়োগ করার কথাও আছে ডেভিড ক্যামরনের।

তবে এর আগে তাকে সিদ্ধান্ত নিতে হবে যে অভিবাসন সঙ্কট নিয়ে নতুন এই সমাধানটিকে তিনি সমর্থন করবেন কিনা। ইতোমধ্যেই এমন সিদ্ধান্ত নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছে ব্রিটিশ কর্মকর্তারা।

ফাঁস হওয়া এক নথির বরাতে দ্য টেলিগ্রাফ জানায়, আফ্রিকার শুধু এলিট শ্রেণীকেই ভাষা শিক্ষাসহ ইউরোপে ভিসার অনুমতি দেওয়া হবে। এর মাধ্যমে আসলে আফ্রিকান নেতাদের সামনে আসলে ‘মূলা ঝোলানো’ হচ্ছে বলেও মন্তব্য করা হয় প্রতিবেদনটিতে।

এই পরিকল্পনার আওতায় ইথিওপিয়া সুদান, উগান্ডা এবং কেনিয়াসহ অন্যান্য আফ্রিকান দেশগুলোতে ১.৩ বিলিয়ন পাউন্ড সহায়তাও দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে ইইউ। এছাড়া অভিবাসীদের জন্য কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরিরও আহবান জানায় তারা।

এদিকে, এই পরিকল্পনা যু্ক্তরাজ্যের উপর সরাসরি প্রভাব রাখবে না। কারণ, তারা সরাসরি ইইউ এর সদস্য না। ব্রিটিশ এক কূটনৈতিক বলেন, বৈধ অভিবাসন বিষয়টি জাতীয় ইস্যু হলেও নিজস্ব অবস্থান থেকে যুক্তরাজ্যের চলে আসার কোনো কারণ নেই।

কমন্স ইউরোপিয়ান স্ক্রুটিনি কমিটির চেয়ারম্যান স্যার বিল ক্যাশ বলেন, এই সিদ্ধান্তের মাধ্যমে অভিবাসন সঙ্কট কিছুটা হলেও লাঘব করা যাবে। ব্রিটিশ নাগরিকরা দেখছে। আমি আগেই বলেছিলাম,মানুষের জনস্রোত আসবে, এখন শোনা যাচ্ছে প্রায় ৩০ লাখ মানুষ ইউরোপে আসছেন। আমাদের সীমান্ত নিয়ন্ত্রণ করা জরুরি।

অন্যরা য়া পড়ছে...

Loading...



চেক

জাতীয় নির্বাচনে হেরে বারিসান ন্যাশনালের সভাপতির দল থেকে পদত্যাগ করলো নাজিব রাজাক

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক, ১৩ মে ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): জাতীয় নির্বাচনে হেরে নিজের দল বারিসান ন্যাশনালের …

মার্কিন নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও ইরানকে ৪০ টি সুপার জেট বিমান দিচ্ছে রাশিয়া

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক, ১৩ মে ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): রাশিয়ার সুখোই সিভিল এয়াক্রাফট কর্তৃপক্ষ বলেছে, ইরানের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

My title page contents