৪:৩৮ পূর্বাহ্ণ - মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই , ২০১৯
Breaking News
Download http://bigtheme.net/joomla Free Templates Joomla! 3
Home / অর্থনীতি / জলবায়ু ঝুঁকির মধ্যে থাকায় গ্রিণ ক্লাইমেট ফান্ডের সুবিধা পাওয়া আমাদের ন্যার্য অধিকার : অর্থমন্ত্রী

জলবায়ু ঝুঁকির মধ্যে থাকায় গ্রিণ ক্লাইমেট ফান্ডের সুবিধা পাওয়া আমাদের ন্যার্য অধিকার : অর্থমন্ত্রী

muhit- 03.11.15ঢাকা, ০৮ নভেম্বর ২০১৫ (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): আজ সকালে শেরেবাংলা নগরস্থ বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত এক কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন, বিশ্ব জলবায়ু ঝুঁকির মধ্যে থাকায় গ্রিণ ক্লাইমেট ফান্ডের সুবিধা পাওয়া আমাদের ন্যার্য অধিকার।

তিনি বলেন, ‘বিশ্বব্যাপী জলবায়ু বিপর্যয়ের দরুণ যে কয়টা দেশ চরম ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে, তার মধ্যে বাংলাদেশ অন্যতম। তাই সবুজ জলবায়ু তহবিল বা গ্রিন ক্লাইমেট ফান্ড (জিসিএফ)-এর সুবিধা পাওয়া আমাদের ন্যায্য অধিকার।’ সরকার, প্রাইভেট সেক্টর ও সুশীল সমাজের সবাইকে এই লক্ষ্য অর্জনের জন্য তিনি জোর প্রচেষ্টা চালানোরও আহবান জানান।

অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের (ইআরডি) উদ্যোগে এবং জিআইজেড, আইআইইডি, আইসিসিসিএডি, ব্র্যাক এবং ইউএনডিপি-র সহযোগিতায় ‘অ্যাকসেসিং গ্রিন ক্লাইমেট ফান্ড : অপরচুনিটিস, অপশনস অ্যান্ড চ্যালেঞ্জেস ফর প্রাইভেট সেক্টর অ্যান্ড সিভিল সোসাইটি অরগানাইজেশনস’ শীর্ষক এই কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়।

দিনব্যাপী এই কর্মশালার উদ্বোধনী পর্বে অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের সিনিয়র সচিব ও এনডিএ মোহাম্মদ মেজবাহউদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন- শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু এবং পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী আবদুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব ।

শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু বলেন, ‘পরিবেশ ও জনস্বাস্থ্যের জন্য ঝুঁকিপুর্ণ কোন শিল্প স্থাপনে আমাদের সরকার অনুমতি দিচ্ছে না। শিল্পোন্নত দেশগুলোর অতিমাত্রায় কার্বন নিঃসরণের ফলেই একের পর এক প্রাকৃতিক দুর্যোগ সংঘটিত হচ্ছে। কিন্তু দুর্যোগের শিকার উন্নয়নশীল দেশগুলোকে এর ক্ষতিপূরণ দেয়ার ক্ষেত্রে নানারকম শর্তারোপ করা হচ্ছে।’

আবদুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব বলেন, ‘দুর্যোগ মোকাবেলায় সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোর সচেতনতার ক্ষেত্রে এরকম কর্মশালা গুরুত্বপূর্ণ। এ থেকেই বেরিয়ে আসবে উত্তরণের উপায়।

জলবায়ু পরিবর্তনের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় প্রাইভেট সেক্টর এবং সুশীল সমাজের সংগঠনগুলোর বড় ভূমিকা রয়েছে। এই প্রেক্ষাপটে এবং পাবলিক সেক্টরের সাথে কাজ করার অভিজ্ঞতার আলোকে ইআরডি প্রাইভেট সেক্টর এবং সুশীল সমাজের সংগঠনগুলোকে সম্পৃক্ত করার মানষে এই কর্মশালার আয়োজন করে।

দেশের প্রাইভেট সেক্টর, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, ব্যবসায়ীদের সংগঠন, সুশীল সমাজ, কর্পোরেট ব্যক্তিত্ব, পরিবেশ বিশেষজ্ঞ এবং উন্নয়ন সংস্থার প্রতিনিধিরা এই কর্মশালায় অংশ নেন।

অন্যরা য়া পড়ছে...

Loading...



চেক

সকল ধর্ম ও বর্ণ নির্বিশেষে সকলকে উন্নয়নের এই ধারা অব্যাহত রাখতে হবে : রাষ্ট্রপতি

ঢাকা, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): রাষ্ট্রপতি মো: আবদুল হামিদ দেশের শান্তি ও অগ্রগতি …

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ওমরাহ পালন

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৃহস্পতিবার রাতে এখানে পবিত্র …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

My title page contents