কিন্তু ব্যাট হাতে অনূর্ধ্ব-১৯ দলের সেই মিরাজের দেখা মেলেনি। ইংলিশদের বিপক্ষে চার ইনিংসে করেছিলেন মাত্র পাঁচ রান। নিউজিল্যান্ড সফরে গিয়েও ব্যাট হাতে নিজেকে চেনাতে পারেননি। এখন পর্যন্ত চার টেস্টের আট ইনিংসে মাত্র ২০ রান করেছেন বাংলাদেশের এই ভবিষ্যত কান্ডারি।

তবে ব্যর্থতার এই বৃত্ত ভাঙতে চান চার টেস্ট থেকে ২৩ উইকেট তুলে নেয়া মিরাজ। নিজের ব্যাটিং করার জায়গার গুরুত্ব অনুযায়ী ব্যাটিং করতে চান তিনি। হায়দরাবাদ টেস্টে ভারতের প্রথম ইনিংস দেখার পর এটার গুরুত্ব আরও বেশি করে অনুধাবন করছেন মিরাজ। ভারতের করা ৬৮৭ রানের জবাবে ব্যাটিং করার সুয়োগ পেলে এবার নিজেকে অন্যভাবে চেনাতে চান তিনি।

দ্বিতীয় দিনের খেলা শেষে সংবাদ সম্মেলনে মিরাজ নিজের ব্যাটিং নিয়ে বলেন, ‘ব্যাটসম্যান হিসেবে চেষ্টা করব রান করার জন্য। রান করতে পারলে আমার আত্মবিশ্বাস বাড়বে। আমি টেস্ট ম্যাচে এখনও বড় কোন স্কোর গড়তে পারিনি। চেষ্টা করব নিজেকে তৈরি করে ভাল কিছু করার। আমি যেখানে খেলি সেটা অনেক গুরুত্বপূর্ণ জায়গা। চেষ্টা করব রান করার জন্য।’

ভারত রান পাহাড় গড়লেও নিউজিল্যা ন্ড সফরের কথা মনে করিয়ে দিয়ে মিরাজ বলেন, ‘আমরা শেষ টেস্টেও ভালো করেছি। নিউজিল্যান্ডে ৫৯৬ করেছি। আমাদের আত্মবিশ্বাস আছে। আমাদের টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানরা যদি ভাল ব্যাটিং করে আমাদের বিশ্বাস আছে এখান থেকে বড় রান করতে পারব। তাহলে আমরা ম্যাচে ফিরতে পারব।’

অভিষেক সিরিজে মিরাজ যেভাবে বোলিং করেছিলেন সেভাবে করতে পারছেন না গত কয়েক ম্যাচ ধরে। এর ব্যাখায় বাংলাদেশ স্পিনার বলেন, ‘যখন আমার অভিষেক হয়েছিল তখন টার্নিং উইকেট ছিল। ইংল্যান্ডের টার্নিং উইকেটে খেলতে সমস্যা হয়ে যায়। আমাদের সঙ্গেও অনেক সমস্যা হয়েছে। ভারতের বিপক্ষেও হয়েছে। পার্থক্য এখানেই। টার্নিং উইকেটে বাজে বল করেও বাঁচা যায়। কিন্তু এই ধরনের উইকেটে পুরো সময় টাইট বোলিং করতে হয়।’ সৌজন্যে প্রিয়.কম