১১:১৬ পূর্বাহ্ণ - মঙ্গলবার, ১৩ নভেম্বর , ২০১৮
Breaking News
Download http://bigtheme.net/joomla Free Templates Joomla! 3
Home / আন্তর্জাতিক / ১১ লাখ ব্রিটিশ নাগরিক ট্রাম্প বিরোধী পিটিশনে স্বাক্ষর করলো

১১ লাখ ব্রিটিশ নাগরিক ট্রাম্প বিরোধী পিটিশনে স্বাক্ষর করলো

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক, ৩১ জানুয়ারী ২০১৭ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের যুক্তরাষ্ট্রে সফর ও রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের সঙ্গে ভোজে অংশ নেয়ার আমন্ত্রণ প্রত্যাহার করে নেয়ার জন্য ১১ লাখের বেশি ব্রিটিশ নাগরিক স্বাক্ষর করেছেন। খবর এনডিটিভির।

গত সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্র সফরে গিয়ে ট্রাম্পকে ব্রিটিশ রানির পক্ষ থেকে যুক্তরাজ্য সফরের আমন্ত্রণ জানান ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে। ট্রাম্প এই আমন্ত্রণ গ্রহণ করেছেন। চলতি বছরের শেষের দিকে ব্রিটেন সফরে আসার কথা ট্রাম্পের।

গত বছরের ৮ নভেম্বর মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ট্রাম্প জয়ী হওয়ার পর এ পিটিশনটি খোলা হয়। কিন্তু গত শুক্রবার ট্রাম্পের এক নির্বাহী আদেশে সাতটি মুসলিম দেশের নাগরিকদের ৯০ দিন এবং শরণার্থীদের ১২০ দিনের জন্য যুক্তরাষ্ট্র সফরে নিষেধাজ্ঞা জারির পর পিটিশনটি জনপ্রিয় হয়ে উঠে। এই নিষেধাজ্ঞা জারির পর এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ১১ লাখ ৭৫ হাজার ৯২৮ জন ব্রিটিশ নাগরিক এতে স্বাক্ষর করেছেন। খুব দ্রুত গতিতেই স্বাক্ষরের সখ্যা বাড়ছে।

পিটিশনে বলা হয়েছে, মার্কিন সরকার প্রধান হিসেবে ডোনাল্ড ট্রাম্প ব্রিটেন সফরে আসতে পারেন। তবে তাকে রাষ্ট্রীয় অতিথি হিসেবে আমন্ত্রণ জানানো উচিত নয়। কারণে তা মহামান্য রানির জন্য লজ্জাজনক।

ব্রিটেনের নিয়ম অনুযায়ী, কোনো পিটিশনে যদি এক লাখের বেশি মানুষ স্বাক্ষর করে তা আলোচনার জন্য আইনপ্রণেতারা গুরুত্বসহকারে গ্রহণ করেন।

ক্ষমতাসীন কনজারভেটিভ পার্টি এবং বিরোধী দল লেবার পার্টি ট্রাম্পের এই পদক্ষেপের সমালোচনা করেছেন।

লেবার পার্টির নেতা জেরেমি করবিন বলেছেন, ট্রাম্পের রাষ্ট্রীয় সফর অবশ্য স্থগিত করা উচিত।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প অভিবাসনে বিধিনিষেধ আরোপ করার পর যুক্তরাজ্যে তার রাষ্ট্রীয় সফর বাতিল করার যে দাবি উঠেছে, লন্ডনে ডাউনিং স্ট্রিট তা খারিজ করে দিয়েছে।

সোমবার বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সূত্রগুলো জানিয়েছে, মি ট্রাম্পের আমন্ত্রণ বাতিল করা হলে তা হয়তো একটি ‘জনপ্রিয় পদক্ষেপ’ হবে, কিন্তু সেই আমন্ত্রণ ইতিমধ্যেই গৃহীত হয়েছে এবং এখন সেটা বাতিল করা হলে ‘সব কিছু নষ্ট হয়ে যাবে’।

জেরেমি করবিন বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী টেরেসা মে যদি মি ট্রাম্পের ওই সফর পিছিয়ে দিতে না পারেন- তাহলে তিনি দেশের মানুষের কাছে ব্যর্থ প্রতিপন্ন হবেন।

তবে ডাউনিং স্ট্রিটের একটি সূত্র বিবিসিকে জানিয়েছে, আমেরিকা আমাদের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এক মিত্র। আমাদের যা করার, তা লম্বা সময়ের কথা ভেবেই করতে হবে।

অন্যরা য়া পড়ছে...

Loading...



চেক

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ওমরাহ পালন

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৃহস্পতিবার রাতে এখানে পবিত্র …

জনগণ ছেড়ে বিদেশিদের কাছে কেন : ঐক্যফ্রন্টকে ওবায়দুল কাদের

গাজীপুর, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): শুক্রবার বিকেলে গাজীপুরের চন্দ্রায় ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক চার লেনে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

My title page contents