৪:২৫ অপরাহ্ণ - রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর , ২০১৮
Breaking News
Download http://bigtheme.net/joomla Free Templates Joomla! 3
Home / কেরানীগঞ্জে অবস্থিত ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারটির সার্বিক অবস্থা অত্যন্ত ভাল : প্রধান বিচারপতি

কেরানীগঞ্জে অবস্থিত ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারটির সার্বিক অবস্থা অত্যন্ত ভাল : প্রধান বিচারপতি

ঢাকা, ৩০ জানুয়ারী ২০১৭ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): আজ সোমবার সকাল নয়টার দিকে প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা রাজধানীর অদূরে কেরানীগঞ্জে অবস্থিত ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারটি পরিদর্শনে আসেন। বেলা পৌনে দুইটার দিকে তিনি ভেতর থেকে বের হন।

কারাগার থেকে বের হয়ে প্রধান বিচারপতি সংবাদিকদের  বলেন, ‘আমি কনডেম সেলগুলো পরিদর্শন করেছি। অন্য সেলগুলোতেও গিয়েছি। এত ভাল অবস্থা, আমাকে কোনো কয়েদি, বিচারাধীন কোনো মামলার আসামি কোনো ধরনের অভিযোগ করেনি বরং একজন বিচারাধীন মামলার কয়েদি নিজেই প্রশংসা করেছে। এখানে সার্বিক অবস্থা অত্যন্ত ভাল।’

প্রধান বিচারপতির এই পরিদর্শনকালে কারাগারের নানা সমস্যার কথা তুলে ধরে কারা কর্তৃপক্ষ। বিশেষ করে কারাগারের বাইরে সীমানা প্রাচীর না থাকা, কারাগারে গ্যাস সংযোগ না থাকা, বন্দীদেরকে ঢাকায় নিয়ে যাওয়া ও ফিরিয়ে আনার পথে ঝুঁকিসহ নিরাপত্তা ও অবকাঠামো সংক্রান্ত নানা বিষয় তুলে ধরা হয়।

প্রধান বিচারপতি বলেন, ‘জেলের নির্মাণ কাজ এখনো সম্প্রসারণ হচ্ছে। এইটা হলে আরো সুন্দর হবে। এটা একটা আধনিক জেল হিসেবে বলা যায়।’

কয়েদিদের কোনো দাবি ছিল কি না- সাংবাদিকরা জানতে চাইলে প্রধান বিচারপতি বলেন, ‘তাদের কোনো দাবি ছিল না। তারা প্রশংসা করেছে।’

কারাগার পরিদর্শনের সময় প্রধান বিচারপতির সঙ্গে ছিলেন কারা মহাপরিদর্শক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ইফতেখার উদ্দীন, ঢাকা জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ সালাহউদ্দিন, সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগের রেজিস্ট্রার আবু সাঈদ দিলজার হোসেন,স্পেশাল অফিসার হোসনে আরা, ডেপুটি রেজিস্ট্রার ফারজানা ইয়াসমিন, ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার জাহাঙ্গীর কবির।

এই পরিদর্শনে আইজি প্রিজনসের প্রসংশা করেন প্রধান বিচারপতি। বলেন, ‘তিনি একজন মেধাসম্পন্ন ভাল অফিসার।’

নাজিমউদ্দিন রোডে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দী ধারণক্ষমতা পেরিয়ে যাওয়ার পর সরকার কেরানীগঞ্জে এই কারাগারটি নির্মাণ করে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত বছর ১০ এপ্রিল এর উদ্বোধন করেন। গত বছর ২৯ জুলাই পুরাতন ঢাকার নাজিমুদ্দিন রোডের কেন্দ্রীয় কারাগারের সব বন্দী এখানে স্থানান্তর হয়।

তবে নতুন কারাগারেও ধারণক্ষমতার চেয়ে বন্দীর সংখ্যা বেশি। চার হাজার ৫৯০ বন্দী ধারণক্ষমতার এই কারাগারে সোমবার আটক বন্দীর সংখ্যা ছিল সাত হাজার ৬৪৫ জন। ধারণক্ষমতার চেয়ে বেশি বন্দী রয়েছে তিন হাজার ৫৫ জন।

বর্তমানে কারাগারটির ভিতরে এখনও তিনটি ছয় তলা বিশিষ্ট বন্দী ব্যারাক নির্মাণাধীন। কারগারের বহিরাংশে স্যুয়ারেজের নির্মাণ কাজ চলছে।

অন্যরা য়া পড়ছে...

Loading...



চেক

বিকল্পের সন্ধানে কোটা বাতিলের প্রজ্ঞাপনে দেরি হচ্ছে : ওবায়দুল কাদের

ঢাকা, ১৩ মে ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষণা অনুযায়ী সরকারি চাকরিতে কোটা …

স্যাটেলাইট মহাকাশে ঘোরায় বিএনপির মাথাও ঘুরছে : মোহাম্মদ নাসিম

ফেনী, ১৩ মে ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ মহাকাশে উৎক্ষেপণ হওয়ায় বিএনপির মাথাও ঘুরছে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

My title page contents