১১:৫০ পূর্বাহ্ণ - বৃহস্পতিবার, ১৫ নভেম্বর , ২০১৮
Breaking News
Download http://bigtheme.net/joomla Free Templates Joomla! 3
Home / আন্তর্জাতিক / প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রামপাল প্রশ্নে আল গোরকে শক্ত জবাব দিয়ে রামপাল ঘুরে যাওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রামপাল প্রশ্নে আল গোরকে শক্ত জবাব দিয়ে রামপাল ঘুরে যাওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন

ঢাকা, ১৯ জানুয়ারী ২০১৭ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): সুন্দরবনের রামপালে কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণে পরিবেশগত ঝুঁকি নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট আল গোরের প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাকে রামপাল ঘুরে যাওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন।  তিনি বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দেশের পরিবেশ-প্রকৃতিসহ যেকোনো ইস্যুতে তার চেয়ে বেশি আর কেউ চিন্তিত থাকেন বলে তিনি মনে করেন না।

সুইজারল্যান্ডের ডাভোসে ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের চলমান বার্ষিক সভায় বুধবার সন্ধ্যায় একটি প্লেনারি সেশনে প্রধানমন্ত্রীর কাছে ওই প্রশ্ন তোলেন আল গোর। জবাবে শেখ হাসিনা তাকে ওই পরামর্শ দেন।

সভায় আরো অংশ নেন নরওয়ের প্রধানমন্ত্রী এমা সোলবার্গ, এইচএসবিসি ব্যাংকের প্রধান নির্বাহী স্টুয়ার্ট গালিভার, কফকো এগ্রির প্রধান নির্বাহী জিংতাও চাই। সেশন শেষে প্রধানমন্ত্রীর ডেপুটি প্রেস সেক্রেটারি এম নজরুল ইসলাম সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন।

ডাভোসের কংগ্রেস হলে অনুষ্ঠিত ‘লিডিং দ্য ফাইট অ্যাগেনস্ট ক্লাইমেট চেঞ্জ’ শীর্ষক প্লেনারি সেশনের আলোচনায় আল গোর প্রধানমন্ত্রীকে রামপালের পরিবেশগত ঝুঁকি নিয়ে জিজ্ঞেস করলে তিনি বলেন, ‘আমি আপনাকে বাংলাদেশে আমন্ত্রণ জানাচ্ছি। আপনি নিজে গিয়ে দেখে আসুন, রামপাল বিদ্যুৎ প্রকল্পের কারণে সুন্দরবনের কোনো ক্ষতি হবে কি না।’

প্রধানমন্ত্রী রামপালে কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের পক্ষে সরকারের শক্ত অবস্থানের বিষয়টি তুলে ধরে বলেন, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দেশের পরিবেশ-প্রকৃতিসহ যেকোনো ইস্যু নিয়ে তার চেয়ে বেশি আর কেউ চিন্তিত থাকেন বলে তিনি মনে করেন না।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘আমার সরকার দেশের ক্ষতি হবে এমন কোনো পদক্ষেপ কখনোই নিতে পারে না। আমি দেশের প্রধানমন্ত্রী। দেশের প্রতি আমার মায়া এবং দায়িত্ব সবচেয়ে বেশি। দেশের সামান্যতম ক্ষতি হবে এমন কোনো কাজ আমি হতে দিব না।’

হাসিনা রামপালবিরোধী আন্দোলনের ‘প্রকৃত’ উদ্দেশ্য নিয়েও প্রশ্ন তোলেন। তিনি বলেন,  রামপালের বিরোধীরা আন্দোলনের নামে ‘অপ্রয়োজনীয় ইস্যু’ তৈরির পাঁয়তারা করছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমি জানি না, তারা (আন্দোলনকারীরা) আসলে কী চায়, কী তাদের অভিপ্রায়! হতে পারে এদের অন্য কোনো উদ্দেশ্য আছে।’

রামপাল প্রকল্পের বিরোধীরা পরিবেশগত ঝুঁকি নিয়ে কোনো যুক্তি দেখাতে পারেনি উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমি তাদের (আন্দোলনকারী) প্রকল্পস্থলে গিয়ে ঝুঁকি চিহ্নিত করার আহবান জানিয়েছিলাম। কিন্তু তাদের সাড়া পাইনি।’

প্লেনারি সেশনকে শেখ হাসিনা বলেন, যেকোনো  মূল্যে বাংলাদশের অনন্য সম্পদ সুন্দরবন এবং এর আশপাশের পরিবেশ-প্রকৃতি অটুট রাখতে তার সরকার সব ধরনের পদক্ষেপ নিয়ে রেখেছে।

তিনি জানান, আচ্ছাদিত জাহাজযোগে বিদ্যুৎ প্রকল্পে কয়লা বহন করা হবে এবং খুব অল্প শব্দের অত্যাধুনিক ইঞ্জিন ব্যবহার করা হবে। ফলে পরিবেশগত ঝুঁকির আশঙ্কা থাকবে না।

বড়পুকুরিয়া কয়লা-ভিত্তিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের উদাহরণ দিয়ে শেখ হাসিনা বলেন,  ‘বড়পুকুরিয়ার ঘনবসতিপূর্ণ জনপদে সেই কয়লা-ভিত্তিক প্রকল্পের কোনো নেতিবাচক প্রভাবে পড়েনি। বরং সেখানকার মাটিতে আগের চেয়ে বেশি ফসল উৎপাদিত হচ্ছে।’ বড়পুকুরিয়া প্রকল্পে তৃতীয় প্ল্যান্ট স্থাপনের কাজও শুরু হয়েছে বলে তিনি সবাইকে অবহিত করেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বড়পুকুরিয়া একটি সাব-ক্রিটিক্যাল  বিদ্যুৎ প্রকল্প। গুণগত দিক থেকে একটি সাব-ক্রিটিক্যাল প্রকল্প আর সুপার-ক্রিটিক্যাল প্রকল্পের মধ্যে যোজন যোজন পার্থক্য রয়েছে।  একটি সুপার-ক্রিটিক্যাল প্রকল্প তুলনামূলকভাবে ৪০ শতাংশ কার্বন, সালফার ও নাইট্রোজেন গ্যাস নির্গমন করে। আলট্রা সুপার-ক্রিটিক্যাল প্রযুক্তি ব্যবহার করে একটি প্রকল্পের দূষণঝুঁকি প্রায় শূন্যে নামিয়ে আনা সম্ভব বলে প্রধানমন্ত্রী মন্তব্য করেন।

বাংলাদেশের বনায়ন পরিস্থিতি নিয়েও প্রধানমন্ত্রী মূল্যবান তথ্য উপস্থাপন করেন। তিনি বলেন, প্রথমবার ১৯৯৬ সালে তিনি যখন রাষ্ট্র পরিচালনার দায়িত্ব নেন, তখন দেশের বনাঞ্চলের পরিমাণ ছিল মাত্র ৭ শতাংশ।  ২০১৭ সালে এসে দেশের বনাঞ্চলের পরিমাণ ১৭ শতাংশে  পৌঁছেছে।

অন্যরা য়া পড়ছে...

Loading...



চেক

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ওমরাহ পালন

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৃহস্পতিবার রাতে এখানে পবিত্র …

জনগণ ছেড়ে বিদেশিদের কাছে কেন : ঐক্যফ্রন্টকে ওবায়দুল কাদের

গাজীপুর, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): শুক্রবার বিকেলে গাজীপুরের চন্দ্রায় ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক চার লেনে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

My title page contents