৪:৪২ পূর্বাহ্ণ - বুধবার, ২৬ সেপ্টেম্বর , ২০১৮
Breaking News
Download http://bigtheme.net/joomla Free Templates Joomla! 3
Home / জরুরী সংবাদ / বর্তমান সরকারের আমলে নজিরবিহীন উন্নয়নের কৃতিত্ব বিএনপিরও : মির্জা ফখরুল

বর্তমান সরকারের আমলে নজিরবিহীন উন্নয়নের কৃতিত্ব বিএনপিরও : মির্জা ফখরুল

ঢাকা, ১৩ জানুয়ারী ২০১৭ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): বর্তমান সরকারের আমলে সরকার নজিরবিহীন উন্নয়নের যে দাবি করেছে তার কৃতিত্ব বিএনপিরও-বলেছেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান অবরুদ্ধ অর্থনীতিতে মুক্ত করে যেসব কাজ করেছিলেন সেগুলোই ছিল উন্নয়নের ভিত্তি।

বর্তমান সরকারের দ্বিতীয় মেয়াদে তিন বছর পূর্তিতে প্রধানমন্ত্রীর ভাষণের পরদিন শুক্রবার এক প্রতিক্রিয়ায় মির্জা ফখরুল এ কথা বলেন। তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী তাঁর ভাষণে এমনভাবে চিত্রায়িত করেছেন যে সকল উন্নয়ন তাঁর দুই দফার সরকারের আট বৎসরেই হয়েছে। যা সঠিক নয়। অর্থনৈতিক উন্নয়ন একটি চলমান প্রক্রিয়া। ভিত্তি তৈরি করতে হয়, এরপর একটি একটি করে ইট লাগাতে হয়।’

বিএনপি নেতা ফখরুল বলেন, জিয়াউর রহমানের তাঁর সুযোগ্য নেতৃত্বে বাংলাদেশ ঘুরে দাড়িয়েছিলো। বহুদলীয় গণতন্ত্র ফিরিয়ে এনে অবরুদ্ধ অর্থনীতিকে তিনি মুক্ত করেছিলেন। বেসরকারি বিনিয়োগ, মুক্তবাজার অর্থনীতি, কৃষিতে নতুন প্রাণের সঞ্চার, শিল্পে তিন শিফটের কাজ, সর্বপ্রথম পোশাক শিল্পের উদ্যোগ ও বিদেশে বাজার সৃষ্টি, মধ্যপ্রাচ্যে শ্রম বাজার সৃষ্টি বাংলাদেশের অর্থনীতিকে নতুন এবং সচল অধ্যায়ে নিয়ে যায়। সেটাই ছিলো ভিত্তি। পরবর্তী গণতান্ত্রিক, অগণতান্ত্রিক, বৈধ-অবৈধ প্রায় সব সরকারই কমবেশি উন্নয়নে কাজ করে।

প্রধানমন্ত্রী তার ভাষণে অন্যান্য অনেক বিষয়ের পাশাপাশি তার সরকারের আমলে বাংলাদেশে ব্যাপক অর্থনৈতিক উন্নয়নের কথা তুলে ধরেন। তুলে ধরেন শিল্পায়ন, খাদ্য, কৃষি, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, বিদ্যুৎ, অবকাঠামোখাতে তার সরকারের আমলে নেয়া নানা প্রকল্পের কথা।

তবে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘দ্রুত সময়ের মধ্যে দারিদ্রবিমোচন, মিলেনিয়াম ডেভেলপমেন্ট লক্ষ মাত্রা অর্জন, জীবন যাত্রার মান উন্নয়ন, দুর্বল জনগোষ্ঠীর জন্য সামাজিক নিরাপত্তা বলয় গড়ে তোলা, খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করার কাজগুলো কোন একটি বিশেষ সরকারের একক প্রচেষ্টার ফসল নয়। প্রধানমন্ত্রীর দাবি তাই অনৈতিক এবং শুধুমাত্র আত্মতুষ্টির প্রচেষ্টা।’

বর্তমান সরকারের আমলে বিদ্যুতের উৎপাদনক্ষমতা বেড়ে চার গুণ হয়েছে। এ ক্ষেত্রেও বিএনপির অবদান আছে বলে দাবি করেন মির্জা ফখরুল। তিনি বলেন, ‘জোট সরকারের আমলে ইডকল এর মাধ্যমে প্রত্যন্ত অঞ্চলে সোলার হোম সিস্টেম বসানোর কাজ দ্রুত এগিয়ে নেয়া হয়। দুই লক্ষ সোলার লাগানোর পরে বেগম জিয়া তা আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্ভোধন করেন। ঐ ধারাবাহিকতায় সোলার হোম সিস্টেমের কাজ চলছে যাকে আমরা স্বাগত জানাই। কিন্তু আমরা উদ্বিগ্ন কুইক রেন্টাল পাওয়ার প্লান্টের নামে জনগণের পকেট কেটেই চলেছে।’

বিএনপির মহাসচিব বলেন, অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি প্রথম সাত এর কোঠা অতিক্রম করে ২০০৬-২০০৭ অর্থবছওে জোট সরকারের আমলে। বর্তমান সরকারের আমলে তা বরং হ্রাস পেয়েছে। তিনি বলেন, ‘শুধুমাত্র পোশাক খাতের আয় ও রেমিন্টেন্সের কারণে যে বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ বাড়লেই অর্থনীতি চাঙ্গা হয় না। সত্যিকার বিনিয়োগ অর্থাৎ ম্যানুফ্যাকচারিং শিল্পে বিনিয়োগের জন্য মূলধনি যন্ত্রপাতি আমদানি কত পরিমাণ বেড়েছে না কমেছে সেটা দেখা অত্যন্ত জরুরি। কর্মসংস্থান সৃষ্টি হচ্ছে কিনা তাও দেখতে হবে।’

শিক্ষাখাতের অগ্রগতিতে বিএনপির ভূমিকা বর্ণনা করে ফখরুল বলেন, ‘আমাদের সময়ে বেসকারি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের যে সুযোগ দেওয়া হয়েছে তার ফলে উচ্চ শিক্ষার প্রসার ঘটছে।’

বৈষম্য ও দুর্নীতির অভিযোগ

বর্তমান সরকারের আমলে বেশ কিছু খাতে উন্নয়ন হয়েছে স্বীকার করে মির্জা ফখরুল এও বলেন, ‘গত আট বৎসরে ধনী আরও ধনী, গরিব আরও গরিব হয়েছে। জবাবদিহিতার অভাব, অকার্যকর পালার্মেন্ট দুর্নীতিকে লাগামহীন পর্যায়ে নিয়ে গেছে।ৃমাথাপিছু আয় ৫৪৩ থেকে বেড়ে ১৪৬৬ ডলার হলেও আয় বৈষম্য বেড়েই চলেছে। উন্নয়নের সুফল কিছু সরকারের অনুগ্রহপুষ্ট ব্যক্তিদের কাছে কুক্ষিগত হচ্ছে। দরিদ্র্য ও নিম্নমধ্যেবিত্তের অবস্থা আরো শোচনীয় হচ্ছে।’

বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভের টাকা চুরির ওপর ফরাস উদ্দিন কমিটির প্রতিবেদন নিয়ে লুকোচুরি চলছে দাবি করে ফখরুল বলেন,  ‘মনে হচ্ছে কোন রাঘব বোয়ালের নাম আড়াল করতেই এ লুকোচুরি।’

ফখরুল বলেন, হাজার হাজার কোটি টাকা বের করে নেয়া হয়েছে ব্যাংকগুলো থেকে। এ সব দুর্নীতির বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা না নিয়ে প্রতি বছর সাধারণ মানুষের করের টাকা থেকে হাজার হাজার কোটি টাকা সাহায্য দিয়ে এসব ব্যাংকগুলোকে বাঁচানো হচ্ছে।

ফখরুল বলেন, প্রধানমন্ত্রী সড়ক উন্নয়নের ফিরিস্তি দিয়েছেন। কিন্তু তিনি বলেননি বাংলাদেশের এক কিলোমিটার সড়ক নির্মাণ ও এক কিলোমিটার ফ্লাইওভার নির্মাণ ব্যয় চীন, ভারত ও যুক্তরাজ্যের চেয়ে কত বেশি। তিনি বলেননি নানা অজুহাতে মেগা প্রজেক্টগুলোর প্রকল্প ব্যয় কয়েকশগুন বৃদ্ধি করে মেগা চুরির কি সুবন্দোবস্ত করা হয়েছে। পদ্মা সেতুর প্রকল্প ব্যয় ছিলো ১১ হাজার কোটি টাকা আর তা বাড়িয়ে করা হয়েছে প্রায় ২৯ হাজার কোটি টাকা। মালিবাগ ফ্লাইওভারসহ প্রায় সবগুলো ফ্লাইওভারের প্রকল্প ব্যয়  এভাবে কয়েকগুণ বৃদ্ধি করা হয়েছে।’

আশ্রয়ন প্রকল্প ও একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্প এবং  ১০ টাকা কেজির চালেও ব্যাপক অনিয়ম হয়েছে বলেও অভিযোগ করেন ফখরুল। বলেন, ‘সরকার মেগা প্রকল্প গ্রহণে বেশি আগ্রহী কারণ এতে তারা মেগা চুরির সুযোগ সৃষ্টি করেন।’ তিনি বলেন, ‘সোনাদিয়া গভীর সমুদ্র বন্দরের ভবিষ্যত কী জনগণ তা জানতে চায়।’

দেশে বিনিয়োগ বান্ধব পরিবেশ নেই দাবি করে বিএনপি নেতা বলেন, ‘সরকারি দলীয় লোকজনের চাঁদাবাজি, গ্যাস ও বিদ্যুতের অভাবে বিনিয়োগ রুদ্ধ হয়ে পড়েছে। আর তাই দেশের পুঁজি পাচার হয়ে যাচ্ছে বিদেশে।’

রামপাল আর রূপপুর বন্ধের দাবি

সুন্দরবনের পাশে রামপালে কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র বন্ধের দাবি জানান ফখরুল। বলেন, ‘২০২১ সনে উচ্চ মাধ্যম আয়ের দেশ হতে হলে আমাদের আরও বিদ্যুতের প্রয়োজন। কিন্তু সুন্দরবনের পাশে রামপাল বিদ্যুৎ প্রকল্প কিছুতেই নয়।’

রূপপুরে পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ নিয়েও আরও যাচাইবাছাই করার দাবি জানান ফখরুল। বলেন, ‘এই পারমাণবিক বর্জ্য বাংলাদেশে শত বছর ধরে সংরক্ষণ আদৌ সম্ভব নয়। জাপানসহ অন্যান্য দেশে একই প্রযুক্তির পারমাণবিক কেন্দ্র বিস্ফোরণের ফলে প্রাণহানি ও অন্যান্য ক্ষতির জের এখনও তারা বয়ে চলেছে। আমাদের মত ঘনবসতিপূর্ণ জনাকীর্ণ দেশে এ ধরনের ঝুঁকিপূর্ণ প্রকল্প স্থাপনের ভয়াবহতা কল্পনাও করা যায় না।’

শিক্ষার গুণগত মানকে সরকার ধ্বংস করে দিয়েছে বলেও দাবি করেন ফখরুল। বলেন, ‘পত্র-পত্রিকায় আমাদের অধিকাংশ গ্রাজুয়েটদের শিক্ষার মানের যে চিত্র ফুটে উঠছে তাতে লজ্জায় মাথা হেট হয়ে যায়।’ তিনি বলেন, ‘চকচকে মলাটের রঙিন বই ছাত্রছাত্রীদের হাতে ধরিয়ে দেয়া হচ্ছে। এনসিটিবিসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ ভুলে ভরা প্রাথমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পাঠ্য পুস্তুকের দায় দায়িত্ব এড়াতে পারে না।’ সৌজন্যে ঢাকাটাইমস

অন্যরা য়া পড়ছে...

Loading...



চেক

বিকল্পের সন্ধানে কোটা বাতিলের প্রজ্ঞাপনে দেরি হচ্ছে : ওবায়দুল কাদের

ঢাকা, ১৩ মে ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষণা অনুযায়ী সরকারি চাকরিতে কোটা …

স্যাটেলাইট মহাকাশে ঘোরায় বিএনপির মাথাও ঘুরছে : মোহাম্মদ নাসিম

ফেনী, ১৩ মে ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ মহাকাশে উৎক্ষেপণ হওয়ায় বিএনপির মাথাও ঘুরছে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

My title page contents