৩:৩২ পূর্বাহ্ণ - বৃহস্পতিবার, ১৫ নভেম্বর , ২০১৮
Breaking News
Download http://bigtheme.net/joomla Free Templates Joomla! 3
Home / অর্থনীতি / বর্তমান সরকারের মেয়াদেই পুঁজিবাজার একটি শক্তিশালী ভিত্তির ওপর প্রতিষ্ঠিত হবে : মুহিত

বর্তমান সরকারের মেয়াদেই পুঁজিবাজার একটি শক্তিশালী ভিত্তির ওপর প্রতিষ্ঠিত হবে : মুহিত

ঢাকা, ০৮ জানুয়ারী ২০১৭ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): আজ সকালে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে বাংলাদেশ সিকিউরিটি অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ ভবনের উদ্বোন অনুষ্ঠানে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত বলেছেন, বর্তমান সরকারের মেয়াদেই পুঁজিবাজার একটি শক্তিশালী ভিত্তির ওপর প্রতিষ্ঠিত হবে।

২০০৯ সালে আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর পুঁজিবাজারে উল্লম্ফন ঘটে। তবে এক বছরের মধ্যে ব্যাপক ধসে ক্ষতিগ্রস্ত হয় লাখো বিনিয়োগকারী। এরপর পুঁজিবাজারে স্থিতিশীলতা ফেরাতে নানামুখি উদ্যোগ নেয়া হলেও বিনিয়োগকারীদের মধ্যে আস্থা ফেরেনি।

২০১০ সালে পুঁজিবাজারের সূচক ১০ হাজার পয়েন্টে পৌঁছে যায়। কিন্তু এরপর ধসের পর সূচক নেমে আসে তিন হাজারের কোটায়। পরে নতুন নতুন কোম্পানি যোগ হলেও এখনও সূচক পাঁচ হাজার পয়েন্টের আশেপাশে রয়ে গেছে।

তবে এই সময়ের মধ্যে পুঁজিবাজারে স্বচ্ছতা আনতে বেশ কিছু উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। পুঁজিবাজারের মামলা পরিচালনার জন্য বিশেষ ট্রাইব্যুনাল গঠন করা হয়েছে। ৯০০ কোটি টাকার একটি বিশেষ তহবিলও গঠন করা হয়েছে।

গত কয়েক মাসে পুঁজিবাজারের সূচক ধীরে ধীরে বাড়ছে। সেই সঙ্গে বাড়ছে লেনদেনের পরিমাণও। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, পুঁজিবাজারে এখন বিনিয়োগ অনেকটাই নিরাপদ। আর বেশিরভাগ শেয়ার এখন যে দামে আছে তা কেনা লাভজনক হতে পারে।

অর্থমন্ত্রী মন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের সরকারের আর দুই বছর সময় বাকি আছে। এই সময়ের মধ্যে আমাদের পুঁজিবাজারটি শুধু একটি শক্ত ভিত্তিতেই প্রতিষ্ঠিত হবে না, ধীরে ধীরে এগিয়েও যাবে।’

অর্থমন্ত্রী বলেন, `কার্যক্রম শুরুর পর থেকে বেশকিছু বিপদের সম্মুখীন হয়েছে আমাদের দেশের পুঁজিবাজার। বিশেষ করে ১৯৯৬ সাল এবং ২০১০ সালে আমাদের সরকারের আমলে দুইটি বড় ধসের ঘটনা ঘটেছে।’ তিনি বলেন, `২০১০ সালে ধসের পর এর কারণ খতিয়ে দেখতে কাজ শুরু করি আমরা। পুঁজিবাজারের ইতিহাসে প্রথম অর্থমন্ত্রী হিসেবে সিকিউরিটি অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনে গিয়ে বৈঠক করি আমি। বৈঠকে আমার প্রথম প্রস্তাব ছিল, ব্যবস্থাপনা থেকে মালিকানা পৃথক করা। ওই সময় অনেকেই এতে বাধা দেয়। পরবর্তীতে সবার সহযোগিতায় অত্যন্ত সুন্দরভাবে আমরা কাজটি শেষ করি। ফলে আজকে বিনিয়োগকারীরা নিশ্চিন্তে বাজারে আসছেন।’

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) নতুন ভবনের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শেরেবাংলা নগরে ৬০ কোটি টাকা ব্যয়ে ‘সিকিউরিটিজ কমিশন ভবন’ নির্মাণ করা হয়েছে। ১০ তলা এ ভবনের মোট আয়তন ৮৯ হাজার ২৫০ বর্গফুট। বিএসইসির নিজস্ব অফিস ছাড়াও আন্তর্জাতিক মানের কনফারেন্স হল, বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারের এজলাস, লাইব্রেরি, ডে-কেয়ার সেন্টার আছে এই ভবনে।

অন্যরা য়া পড়ছে...

Loading...



চেক

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ওমরাহ পালন

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৃহস্পতিবার রাতে এখানে পবিত্র …

জনগণ ছেড়ে বিদেশিদের কাছে কেন : ঐক্যফ্রন্টকে ওবায়দুল কাদের

গাজীপুর, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): শুক্রবার বিকেলে গাজীপুরের চন্দ্রায় ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক চার লেনে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

My title page contents