৫:১০ অপরাহ্ণ - মঙ্গলবার, ২০ নভেম্বর , ২০১৮
Breaking News
Download http://bigtheme.net/joomla Free Templates Joomla! 3
Home / সারা দেশের খবর / বিভাগের খবর / চট্টগ্রাম / চট্টগ্রামের কর্ণফুলী নদীর ওপারে একটি মেয়ের রূপান্তর ঘটেছে ছেলেতে : মুনতাহিন এখন আবদুল্লাহ

চট্টগ্রামের কর্ণফুলী নদীর ওপারে একটি মেয়ের রূপান্তর ঘটেছে ছেলেতে : মুনতাহিন এখন আবদুল্লাহ

চট্টগ্রাম, ০৬ জানুয়ারী ২০১৭ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): চট্টগ্রামের কর্ণফুলী নদীর ওপারে একটি মেয়ের রূপান্তর ঘটেছে ছেলেতে। তাকে দেখতে লোকজন ভিড় করছে বাড়িতে। তাদের মিষ্টি দিয়ে আপ্যায়ন করছেন পরিবারের লোকজন। কয়েক দিনের মধ্যে মেজবানের আয়োজন করা হবে বলে জানিয়েছে ছেলেটির পরিবার। মেরিন একাডেমি স্কুলের অষ্টম শ্রেণিতে পড়ুয়া মুনতাহিন নামের মেয়েটি এখন ‘আবদুল্লাহ আল মুহিন’ নামের ছেলে।

আবদুল্লাহ আল মুহিনের বাবা নগরীর কর্ণফুলী থানার বদলপুরা এলাকার আহমদ হোসেন কাতার প্রবাসী। তিনি জানান, তিন মাস আগে তার বড় মেয়ে মুনতাহিন ছেলেতে রূপান্তরিত হয়। খবর পেয়ে মাস খানেক আগে তিনি বাড়িতে আসেন।
এরপর সন্তানকে নিয়ে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, বারডেম ও সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে পরীক্ষা করান। বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা নানা পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর মুসতাহিনকে ছেলে মর্মে প্রতিবেদন দেন। এরপর আহমদ হোসেনের বাড়িতে রীতিমতো উৎসব চলছে।

মেয়ের এই রূপান্তরের ঘটনায় আল্লাহর কাছে কৃতজ্ঞ আহমদ হোসেন সিরাজী। তিনি বলেন, ‘আল্লাহ আমাকে একের পর এক চারটি কন্যাসন্তান দিয়েছেন। তিনবার পবিত্র মক্কা শরিফে গিয়ে আল্লাহর কাছে একটি ছেলে সন্তানের জন্য ফরিয়াদ করেছি। আল্লাহ আমার ফরিয়াদ এমনভাবে শুনলেন, আমার বড় মেয়েকেই ছেলে বানিয়ে দিলেন।’

আহমদ হোসেন তার রূপান্তরিত ছেলের মধ্যে পয়গাম্বরি সুন্নত হয়েছে বলে দাবি করেন। ‘আমার চার কন্যার মধ্যে মুনতাহিন (১৪) বড়। মেরিন একাডেমি স্কুলের অষ্টম শ্রেণীতে পড়ে। তিন মাস আগে মুনতাহিন ঘুমের মধ্যে স্বপ্ন দেখে, সে ছেলে হয়ে গেছে। সকালে ঘুম ভাঙার পর দেখতে পায়, সত্যি সত্যি সে ছেলে। তার মধ্যে পয়গাম্বরি সুন্নত হয়েছে।’

মেয়ে মুনতাহিনের ছেলেতে পরিণত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার জন্য নানা পরীক্ষার কথা উল্লেখ করে আহমদ হোসেন বলেন, ‘আমরা ঢাকার বারডেম হাসপাতাল এবং তাদের পরামর্শে সামরিক হাসপাতাল, সবশেষে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের ডা. তাহমিনা বানুর শরণাপন্ন হই। তারা সবাই পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে আমার মেয়েটি ছেলেতে পরিণত হয়েছে বলে রিপোর্ট দেন। এরপর কয়েক দিন আগে তার লম্বা চুল কেটে ছোট করে দিই, তার জন্য ছেলেদের পোশাক কিনে আনি।’

এরপর বাড়িতে মৌলভি এনে দোয়া-দরুদ পড়ে মুনতাহিনের নাম রাখা হয় আবদুল্লাহ আল মুহিন।  আহমদ হোসেন বলেন, ‘এখন আমার এক ছেলে তিন মেয়ে। আমার ছেলেসন্তানের তীব্র আকাক্সক্ষা আল্লাহ পূরণ করেছে। এ জন্য আল্লাহর কাছে শোকরিয়া জানাই। ছেলের জন্য দোয়া চাই সবার।’

তবে চিকিৎসক বলছেন, ‘সে (মুনতাহিন) আসলে ছেলে হিসেবেই জন্ম নিয়েছে। তার পুরুষাঙ্গ অস্পষ্ট ছিল।  চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের শিশু সার্জারি বিশেষজ্ঞ (অবসরপ্রাপ্ত) ডা. তাহমিনা বানু বলেন, এটা এক ধরনের রোগ। এর নাম হাইপোসপিয়াডিয়া। জন্ম থেকেই এই রোগে ভুগছিল শিশুটি।

ডা. তাহমিনা বলেন, ‘পিরিয়ড শুরু না হলে গত আগস্ট মাসে তার এক মামা তাকে আমার কাছে নিয়ে আসে। আমি তার বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষা করি। সিসটোসকপি (প্রস্রাবের রাস্তা দিয়ে মেইল-ফিমেইল নির্ণয়ের ডায়াগনোসিস) করেও নিশ্চিত হই, সে পুরুষ। পূর্ণাঙ্গ পুরুষের অবয়ব তৈরি ও পুরুষাঙ্গ স্বাভাবিক করার জন্য ছেলেটিকে কয়েকটি ইনজেকশন প্রেসক্রাইভ করা হয়েছে বলে জানান ডা. তাহমিনা।

ডা. তাহমিনা বানু বলেন, ‘জন্মের সময় শিশুটির প্রস্রাবের জায়গা একটু নিচের দিকে ছিল। দুই পাশে অন্ডকোষও ছিল। তবে পুরুষাঙ্গ কিছুটা অ¯পষ্ট। ফলে জন্মের পর বাবা-মা শিশুটিকে মেয়ে ভাবতে শুরু করে। এই ভাবনা থেকে ১৪ বছর পর্যন্ত মেয়ে হিসেবে বড় হয়েছে সে। এ সময়টাতে ভেতরে ভেতরে তার পুরুষ চরিত্র চলে এলেও সংকোচ ও লজ্জায় তা মা-বাবাকে বলেনি সে।’ সৌজন্যে ঢাকাটাইমস

অন্যরা য়া পড়ছে...

Loading...



চেক

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ওমরাহ পালন

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৃহস্পতিবার রাতে এখানে পবিত্র …

জনগণ ছেড়ে বিদেশিদের কাছে কেন : ঐক্যফ্রন্টকে ওবায়দুল কাদের

গাজীপুর, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): শুক্রবার বিকেলে গাজীপুরের চন্দ্রায় ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক চার লেনে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

My title page contents