২:১৮ অপরাহ্ণ - বুধবার, ২১ নভেম্বর , ২০১৮
Breaking News
Download http://bigtheme.net/joomla Free Templates Joomla! 3
Home / জরুরী সংবাদ / এই রকম নতুন বই আমরা সবসময় পেতাম না, পুরনো বই দিয়ে ক্লাস করতে হতো : অর্থমন্ত্রী

এই রকম নতুন বই আমরা সবসময় পেতাম না, পুরনো বই দিয়ে ক্লাস করতে হতো : অর্থমন্ত্রী

muhit2-1-1-17ঢাকা, ০১ জানুয়ারী ২০১৭ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): `কালকে রাত থেকে প্রস্তুতি নিচ্ছি। কাল থেকে ভাবছি, এমন একটা আসরে যাব, যে আসরটা আমাদের সময়ে কখনো হতো না। এই রকম নতুন বই আমরা সবসময় পেতাম না। অনেক সময় পুরনো বই দিয়ে ক্লাস করতে হতো।’

এই আক্ষেপ অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের। রোববার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় খেলার মাঠে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের বই বিতরণ উৎসবে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ৮৩ বছর বয়সী অর্থমন্ত্রী আক্ষেপমাখা কন্ঠে এসব কথা বলেন।

উৎসবে খেলার মাঠে উপস্থিত কয়েক হাজার শিক্ষার্থীর হাতে নতুন নতুন বই তুলে দেওয়া হয়, হৈ-হুল্লোড়ে আর পতাকা উড়িয়ে আনন্দের বহিঃপ্রকাশ ঘটায় তারা। বই সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে শিশুদের নাচ-গান এবং সিসিমপুরের হালুম-ইকরিদের পরিবেশনা অতিথিদের সঙ্গে শিশুরাও মন দিয়ে উপভোগ করে।

muhit3-1-1-17অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘আমি আজকে সকালে ভাবছিলাম, তোমাদের এখানে আসবো, এই রকম অনুষ্ঠানটা আমি কখনো দেখিনি জীবনে, কী করবো, কী বলবো, কি কাপড় পড়বো সবই চিন্তা করেছি। তারপরে একটু চিন্তা করে দেখলাম, আজকে একটু ভাল কাপড়চোপড় পড়ে যাই।’

বেশিরভাগ সময় পাজামা-পাঞ্জাবিতেই অভ্যস্ত অর্থমন্ত্রী এই অনুষ্ঠানে আসে স্যুট-টাই পরে।

মন্ত্রী বলেন, ‘আজকের দিনে আমার খুব আনন্দ, তোমাদের হাতে এই বইগুলো যাবে, তোমরা অত্যন্ত খুশী হবে, নতুন বইয়ের গন্ধ শুকবে এবং সেখানে মোটা মোট হরফে নাম লিখে দিবে।’

শিশুদের উপদেশ দিয়ে মুহিত বলেন,‘ বই তুলে দেওয়ার উদ্দেশ্যটা হচ্ছে, আমাকে জ্ঞান আহরণ করতে হবে, শিক্ষাদীক্ষা করতে হবে, মানুষ হয়ে গড়ে উঠতে হবে। তাহলে আমি এই দেশের উন্নয়নে ভবিষ্যতে অবদান রাখতে পারবো। আমরা যারা এখানে আমরা কিছু কিছু অবদান রাখতে পেরেছি, ভবিষ্যতে আরও ভাল অবদান আমরা তোমাদের কাছ থেকে আশা করি। এবং বাংলাদেশের উজ্জ্বল ভবিষ্যত আমরা অচিরেই আশা করছি।’

মুহিত বলেন, ‘আমাদের দেশে প্রায় সাড়ে ৯৭ ভাগ ছেলেমেয়ে লেখাপড়ার মধ্যে আছে। এটা আগে কখনো ছিল না। আমি মনে করি এক্ষেত্রে তোমরা আমাদের চেয়ে অনেক সৌভাগ্যবান, অনেক উন্নত। আমাদের সময়ে সকলে পড়াশোনা করতে পারতো না।’

অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘এই যে ভবিষ্যতটা গড়ে উঠার দায়িত্বটা তোমরা এখন গ্রহণ করছো, আজকে নতুন বই নিয়ে, সেটার যে উদ্দেশ্য সেটা যদি সাফল্য লাভ করে তাহলে সেটা আজকের দিনে আমার সবচেয়ে বড় প্রাপ্তি।’

অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি প্রাথমিক ও গণশিক্ষামন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান ফিজার শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের শোনান প্রাথমিক শিক্ষার অগ্রগতিতে সরকারের নানা উদ্যোগের কথা। তিনি বলেন, ‘সারাদেশের শতভাগ প্রায় শিশুরা এখন স্কুলে যায়। সেজন্য সারাদেশের প্রায় ৬৫ হাজার সরকারি স্কুলে ভাল পরিবেশ দেওয়ার চেষ্টা আমরা করছি। সকলে শিশুর হাতে বছরের প্রথম দিনে বই তুলে দিচ্ছি।’

গণশিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘মানসম্মত শিক্ষার যে লক্ষ্য সেটা মেটানোর জন্য এক্ষেত্রে মূল ভূমিকা পালনকারী শিক্ষকদের মানসম্পন্ন প্রশিক্ষণের আওতায় আনার চেষ্টা করছি। অল্প দিনের মধ্যে ৫০ হাজার ল্যাপটপ আমাদের স্কুলগুলো পৌঁছে যাবে। আমাদের পিটিআইতে, উপজেলা রিসোর্চ সেন্টারগুলোকে সমৃদ্ধ করেছি।’

শিক্ষকদের জীবন-মান বাড়ানোর চেষ্টা করা হচ্ছে জানিয়ে মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ‘শিক্ষা পরিবারে প্রাথমিক থেকে উচ্চশিক্ষা পর্যযন্ত কোনো শিক্ষক-কর্মকর্তা-কর্মচারীকে কষ্টের জীবন অতিবাহিত করতে হচ্ছে না। আমাদের শিক্ষকদেরকে দেশের বাইরে নিয়ে আচ্ছি আমরা। তাদের আইডিয়াটা যেন প্রসারিত হয়। তারা যেন পৃথিবীটাকে দেখতে পারে।’ সৌজন্যে ঢাকাটাইমস

অন্যরা য়া পড়ছে...

Loading...



চেক

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ওমরাহ পালন

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৃহস্পতিবার রাতে এখানে পবিত্র …

জনগণ ছেড়ে বিদেশিদের কাছে কেন : ঐক্যফ্রন্টকে ওবায়দুল কাদের

গাজীপুর, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): শুক্রবার বিকেলে গাজীপুরের চন্দ্রায় ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক চার লেনে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

My title page contents