৬:৪৫ পূর্বাহ্ণ - মঙ্গলবার, ১৩ নভেম্বর , ২০১৮
Breaking News
Download http://bigtheme.net/joomla Free Templates Joomla! 3
Home / রাজনীতি / আওয়ামী লীগ / বিজয় দিবসে রাজধানীর হাতিরঝিলে ‘ওয়াটার ট্যাক্সি’ সার্ভিস শুভ উদ্বোধন

বিজয় দিবসে রাজধানীর হাতিরঝিলে ‘ওয়াটার ট্যাক্সি’ সার্ভিস শুভ উদ্বোধন

ঢাকা, ১৬ ডিসেম্বর, ২০১৬ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): রাজধানীর হাতিরঝিলে ‘ওয়াটার ট্যাক্সি’ সার্ভিস শুভ উদ্বোধন হয়েছে। চক্রাকার বাস সার্ভিস চালু করার এক বছর পর হাতিরঝিল সমন্বিত উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় এই সেবা চালু করা হয়। একে বিজয় দিবসের উপহার বলছেন সংশ্লিষ্টরা।

শুক্রবার বেলা আড়াইটার দিকে এই সেবা উদ্বোধন করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল। ‘মেসার্স ওয়াহিদ মিয়া’ নামের একটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান আগামী ২০ বছর এই নৌ সার্ভিস পরিচালনা করবে।

এর ফলে হাতিরঝিলের আশেপাশের এলাকার সাথে সড়ক পথের মতো পানি পথেও নগরীর পূর্ব-পশ্চিম অংশের (বনশ্রী, আফতাবনগর, রামপুরা, উলন, গুলশান, বাড্ডার সাথে মগবাজার, বেগুনবাড়ী, তেজগাঁও, কারওয়ানবাজার ও পান্থপথ) এলাকার যোগাযোগ সহজ হবে বলে বলছেন প্রকল্প সংশ্লিষ্টরা।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেন, এই ওয়াটার ট্যাক্সি নগরবাসীর যাতায়াতের দুর্ভোগ কমাবে বলে আশা করছেন তিনি। বলেন, শিগগির হা‌তির‌ঝি‌লের নিরাপত্তার জন্য একটি থানা হ‌বে। ত‌বে কোন ঠিক কোন জায়গা‌তে থানা হবে তা তি‌নি নি‌শ্চিত ক‌রেন‌নি মন্ত্রী।

ভাড়া কত

এফডিসি মোড়ের টার্মিনাল থেকে রামপুরা পর্যন্ত ২৫ থেকে ৩০ টাকা ভাড়ায় যাতায়াত করতে পারবেন যাত্রীরা। প্রতিদিন সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত চলবে এই ওয়াটার ট্যাক্সি সার্ভিস।

২২ থেকে ৩০ আসনের প্রতিটি ওয়াটার ট্যাক্সিতে ৪০ হর্স পাওয়ারের দুটি ইঞ্জিন রয়েছে। প্রতিটি নৌ যান ২০ থেকে ৩০ মিনিটে এফডিসির মোড় টার্মিনাল থেকে রামপুরা পর্যন্ত এক চক্কর দিতে পারবে বলে জানানো হয় অনুষ্ঠানে।

আব্দুল করিম গ্রুপের তত্ত্বাবধানে চট্টগ্রামের একটি কারখানায় এই চারটি নৌযান তৈরি করা হয়। এগুলোর ইঞ্জিন চীন থেকে আমদানি করা হয়েছে।

চলতি মাসের শুরুতে ভাবে চারটি ট্যাক্সি (একটি সাদা এবং তিনটি কমলা রং এর) হাতিরঝিলে আনা হয়েছে। ঐদিন রাত্র ১১-১২ টার মধ্যে সবগুলো পানিতে নামানো হয় এবং এগুলোতে ইঞ্জিন স্থাপন করে ১৫ ডিসেম্বরের মধ্যে বেশ কয়েকবার নৌযানগুলো পরীক্ষা নিরীক্ষা করা হয়।

হাতিরঝিল প্রকল্প পরিচালক মেজর কাজী শাকিল ঢাকা টাইমসকে জানান, প্রতিটি নৌযান তৈরিতে ৩৫ থেকে ৪০ লক্ষ টাকা ব্যয় হয়েছে। জানুয়ারি শেষের দিকে আরো দুইটি ওয়াটার ট্যাক্সি নামানো হবে বলেও জানান তিনি। বলেন, তখন এই সেবা গুলশান লেক হয়ে বাড়িধারা পর্যন্ত সম্প্রসারণ করা হবে ।’

মেজর শাকিল জানান, ‘যাত্রীদেরকে অবশ্যই ওয়াটার ট্যাক্সিতে বসে যেতে হবে। নিরাপত্তার স্বার্থে দাঁড়িয়ে আসা-যাওয়া করার কোন সুযোগ দেয়া হবে না।’

ঝিলের দুই তীর ভাঙার আশঙ্কা থাকায় বোটগুলোর গতি কিছুটা নিয়ন্ত্রণে রেখেই চালানো হবে বলে আশ্বস্ত করেন এই সেনা কর্মকর্তা।

যাত্রীদের বিনোদনের পাশাপাশি ট্যাক্সি টার্মিনালেই হালকা সুস্বাদু খাবারের ব্যবস্থাও রাখছে কর্তৃপক্ষ। প্রাথমিক ভাবে গণপরিবহন হলেও পরবর্তীতে দর্শনার্থীদের চাহিদার উপর ভিত্তি করে প্রয়োজনে ’নৌকা রিজার্ভ’ এর ব্যবস্থা করা হবে বলে জানান মেজর শাকিল।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আনিসুল হক ও হাতিরঝিল প্রকল্পের পরিচালক মেজর কাজী শাকিল হোসেন এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

অন্যরা য়া পড়ছে...

Loading...



চেক

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ওমরাহ পালন

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৃহস্পতিবার রাতে এখানে পবিত্র …

জনগণ ছেড়ে বিদেশিদের কাছে কেন : ঐক্যফ্রন্টকে ওবায়দুল কাদের

গাজীপুর, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): শুক্রবার বিকেলে গাজীপুরের চন্দ্রায় ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক চার লেনে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

My title page contents