১২:১৪ পূর্বাহ্ণ - বৃহস্পতিবার, ২০ সেপ্টেম্বর , ২০১৮
Breaking News
Download http://bigtheme.net/joomla Free Templates Joomla! 3
Home / Uncategorized / ১৭তম এশীয় চারুকলা প্রদর্শনী বাংলাদেশ-২০১৬’ ঢাকায় শুরু হয়েছে

১৭তম এশীয় চারুকলা প্রদর্শনী বাংলাদেশ-২০১৬’ ঢাকায় শুরু হয়েছে

noor-1-12-16ঢাকা, ০১ ডিসেম্বর, ২০১৬ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): দক্ষিণ এশিয়ার বৃহত্তম চারুশিল্পের প্রদর্শনী ‘১৭তম এশীয় চারুকলা প্রদর্শনী বাংলাদেশ-২০১৬’ ঢাকায় শুরু হয়েছে। অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালা মিলনায়তনে আজ সকালে এ প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন।

অর্থমন্ত্রী উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বলেন,“এ উৎসবটি আমাদের রাজনৈতিক-অর্থনৈতিক-সামাজিক গন্ডি পেরিয়ে শিল্পকলাকে বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে দেবে।”

সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর বলেন, “বাংলাদেশের ইতিহাস ঐতিহ্য ও সংস্কৃতি হাজার বছরের প্রাচীন। আমরা আমাদের আবহমান এ সংস্কৃতিকে পৃথিবীব্যাপী ছড়িয়ে দিতে চাই।”

noor2-1-12-16তিনি বলেন, বিভিন্ন দেশের শিল্পীদের ছবির মধ্য দিয়ে বৈশ্বিক শিল্প-সংস্কৃতি সম্পর্কে ধারণা নেওয়ার পাশাপাশি নিবিড় সাংস্কৃতিক যোগাযোগ গড়ে তোলার ক্ষেত্রে এই আয়োজন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে।

সংস্কৃতি সচিব আখতারী মমতাজের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক ও সপ্তদশ দ্বিবার্ষিক এশীয় চারুকলা প্রদর্শনী বাংলাদেশ-২০১৬-এর সাংগঠনিক কমিটির প্রধান সমন্বয়কারী লিয়াকত আলী লাকী। উত্তর কোরিয়ার সংস্কৃতিবিষয়ক উপমন্ত্রী ইয়ং চোল এবং থাইল্যান্ডের উপমন্ত্রী চাওরো কাসিতসুন অরং ত্রন এ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দেন।

বিচারকমন্ডলীর সভাপতি শিল্পী রফিকুন্নবী প্রদর্শনীতে অংশগ্রহণকারী শিল্পীদের মধ্যে থেকে বিজয়ী নয় জন শিল্পীর নাম ঘোষণা করেন। এর মধ্যে গ্র্যান্ড পুরস্কার পেয়েছেন তিন জন; বাংলাদেশের কামরুজ্জামান স্বাধীন, মো: হারুন-অর-রশীদ এবং চিলির ডাগমারা হুইসকেল। সম্মানসূচক পুরস্কার পেয়েছেন ছয় জন; কুন্তল বাড়ৈ, বিপাশা হায়াত, রাজিব কুমার রায়, শ্যামল চন্দ্র সরকার, জিহান করিম ও দিলীপ কুমার কর্মকার।

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত সম্মাননা প্রাপ্তদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন। প্রতিটি গ্রান্ড পুরস্কারের মূল্য ৫০০০০০/- (পাঁচ লাখ) টাকা এবং প্রতিটি সম্মানসূচক পুরস্কার-এর মূল্য ৩ লাখ টাকা। এছাড়াও অর্থমন্ত্রী ১৭তম এশিয়ান চারুকলা প্রদর্শনী উপলক্ষে একটি স্বারক ডাকটিকিট উন্মোচন করেন।

প্রদর্শনীতে বাংলাদেশের ১৪৮ জন শিল্পীর ১৫৪টি শিল্পকর্ম প্রদর্শিত হবে। একইসাথে বাংলাদেশের বিশিষ্ট ৫৪ জন আমন্ত্রিত চিত্রশিল্পীর ৫৪টি শিল্পকর্ম প্রদর্শনীতে স্থান পাচ্ছে। অন্যদিকে ৫৩টি দেশের ১৫০ জন শিল্পীর ২৬০টি শিল্পকর্ম প্রদর্শনীতে স্থান পেয়েছে। অংশগ্রহণকারী দেশগুলো থেকে শিল্পী, শিল্প সমালোচক, মিউজিয়াম কিউরেটরসহ মোট ১৪৫ জন এ প্রদর্শনীতে অংশ নিচ্ছেন।

মাসব্যাপী এ প্রদর্শনী ৩১ ডিসেম্বর ২০১৬ পর্যন্ত প্রতিদিন বেলা ১১ টা থেকে রাত ৮ টা পর্যন্ত দর্শকদের জন্য উন্মুক্ত থাকবে।

অন্যরা য়া পড়ছে...

Loading...



চেক

বিকল্পের সন্ধানে কোটা বাতিলের প্রজ্ঞাপনে দেরি হচ্ছে : ওবায়দুল কাদের

ঢাকা, ১৩ মে ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষণা অনুযায়ী সরকারি চাকরিতে কোটা …

স্যাটেলাইট মহাকাশে ঘোরায় বিএনপির মাথাও ঘুরছে : মোহাম্মদ নাসিম

ফেনী, ১৩ মে ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ মহাকাশে উৎক্ষেপণ হওয়ায় বিএনপির মাথাও ঘুরছে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

My title page contents