৯:০৫ পূর্বাহ্ণ - সোমবার, ১৮ নভেম্বর , ২০১৯
Breaking News
Download http://bigtheme.net/joomla Free Templates Joomla! 3
Home / অপরাধ / জালিয়াতির দুটি মামলায় সিলেটে রাগীব আলীর জামিন নামঞ্জুর : কারাগারে প্রেরন

জালিয়াতির দুটি মামলায় সিলেটে রাগীব আলীর জামিন নামঞ্জুর : কারাগারে প্রেরন

ragib-ali-24-11-16সালেহ আল মাহমুদ রনি-সিলেট, ২৪ নভেম্বর, ২০১৬ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সিলেটের অতিরিক্ত মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতের বিচারক উম্মে সরাবন তহুরার  আদালত তারাপুর চা বাগানের দেবোত্তর সম্পত্তিতে অবৈধ স্থাপনা নির্মাণের মাধ্যমে হাজার কোটি টাকার ভূমি আত্মসাৎ এবং জালিয়াতির দুটি মামলায় জামিন নামঞ্জুর করে শিল্পপতি রাগীব আলীকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন।

সিলেট জেলা জজ কোর্টের পিপি মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ জানান, আদালতে রাগীব আলীর পক্ষে জামিন আবেদন জানানো হয়। তবে আদালত জামিন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার সকালে রাগীব আলীকে ভারতের করিমগঞ্জে আটক করে ইমিগ্রেশন পুলিশ। রাগীব আলীর ভিসার মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ায় তাকে আটক করা হয় বলে জানিয়ে ছিলেন সিলেট জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (মিডিয়া) সুজ্ঞান চাকমা।

ragib-ali2-24-11-16পরে বৃহস্পতিবার বেলা ৩টায় সিলেটের বিয়ানীবাজারের সুতারকান্দি সীমান্ত দিয়ে রাগীব আলীকে বাংলাদেশে হস্তান্তর করে ভারতীয় ইমিগ্রেশন পুলিশ। বিকাল পৌনে ৫টায় তাকে সিলেট আদালতে তোলা হয়।

দুটি মামলায় জামিন নাকচ হলেও সিলেটের ডাক প্রকাশনা সংক্রান্ত আরেকটি মামলায় এই শিল্পপতিকে জামিন দেওয়া হয় বলে জানিয়েছেন সিলেটের পাবলিক প্রসিকিউটর মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ।

গ্রেপ্তার এড়াতে দেশ ছেড়ে চলতি বছরের ১০ আগস্ট ভারত পালিয়েছিলেন। গ্রেপ্তারি পরোয়ানা নিয়ে দেশ ছেড়ে পালিয়ে যাওয়ার তিন মাস ১৪ দিন পর বৃহস্পতিবার রাগীব আলীকে গ্রেপ্তার করে ভারতীয় ইমিগ্রেশন পুলিশ। অবৈধভাবে অবস্থানের দায়ে বৃহস্পতিবার সকালে তাকে গ্রেপ্তার করে ভারতের আসাম রাজ্যের করিমগঞ্জ জেলার ইমিগ্রেশন পুলিশ। এরপর বিকেলে সিলেটের শেওলা শুল্ক স্টেশন দিয়ে রাগীব আলীকে বিডিআরের কাছে হস্তান্তর করে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ)।

ইমিগ্রেশনের প্রক্রিয়া শেষ করে সিলেট জেলা পুলিশের হাতে এই শিল্পপতিকে তুলে দেয় বিডিআর। সেখান থেকে সন্ধ্যায় প্রতারণামূলকভাবে তারাপুর চা বাগান দখলের মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে তোলা হয়।

ভূমি মন্ত্রণালয়ের স্মারক (চিঠি) জালিয়াতি ও প্রতারণা করে সিলেটের দুই হাজার কোটি টাকার দেবোত্তোর সম্পত্তি তারাপুর চা বাগান দখলের অভিযোগে দুটি মামলায় গত ১০ অগাস্ট রাগীব আলী ও তার একমাত্র ছেলে আবদুল হাইসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করে আদালত। পরোয়ানা জারির দিনই গোপনে সপরিবারে ভারত পালিয়ে যান তারা। সিলেটের জকিগঞ্জ সীমান্ত দিয়েই সপরিবারে ভারত পালান রাগীব আলী।

এছাড়া পরোয়ানা নিয়ে পলাতক থাকা অবস্থায় সিলেটের ডাকের প্রকাশক পদে থাকার ঘটনায় করা আরেকটি মামলায় পরোয়ানা জারি হয় তাঁর বিরুদ্ধে।

ভিসার মেয়াদ শেষ হওয়ার পর গত ১২ নভেম্বর এই সীমান্ত দিয়েই দেশে ফেরার পথে রাগীব আলীর ছেলে আব্দুল হাইকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। বর্তমানে তিনি কারাগারে আছেন।

বিএসএফের আসাম অঞ্চলের আইজি পাওয়ান কুমার দুবের বারত দিয়ে সিলেটের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুজ্ঞান চাকমা জানান, ১০ নভেম্বর রাগীব আলীর টানা ৯০ দিন ভারতে অবস্থানের মেয়াদ শেষ হয়। অতিরিক্ত ১৩ দিন অবৈধভাবে বসাবাসের পর ভিসার মেয়াদ বাড়াতে বৃহস্পতিবার সকালে করিমগঞ্জ ইমিগ্রেশন অফিসে হাজির হন তিনি। এসময় ইমিগ্রেশন পুলিশ তাকে আটক করে।

সিলেটের উপ-মহাপরিদর্শক (ডিআইজি) মিজানুর রহমান বলেন, গ্রেপ্তারি পরোয়ানা নিয়ে পলাতক থাকা রাগীব আলী ভারতে আটক হয়েছেন সংবাদ পাওয়ার পরই তাকে ফিরিয়ে আনার প্রক্রিয়া শুরু হয়।

দুই পক্ষের সমঝোতার ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার বিকালে সিলেটের শেওলা শুল্ক স্টেশন দিয়ে দেশে আনার হয় রাগীব আলীকে।

বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)-এর শেওলা কোম্পানি কমান্ডার বাসুদেব চক্রবর্তী বলেন, বেলা পৌনে তিনটার দিকে বিএসএফ রাগীব আলীকে আমাদের হাতে তুলে দেয়। এরপর পরোয়ানাভুক্ত আসামি হওয়ায় আমরা রাগীব আলীকে পুলিশের হাতে তুলে দেই। সৌজন্যে ঢাকাটাইমস

অন্যরা য়া পড়ছে...

Loading...



চেক

যথাযত মর্যাদায় বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি বজলুর রহমানের ৪র্থ মৃত্যু বার্ষিকী পালিত

ঢাকা, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি, বঙ্গবন্ধুর হত্যার প্রতিবাদকারী, …

সকল ধর্ম ও বর্ণ নির্বিশেষে সকলকে উন্নয়নের এই ধারা অব্যাহত রাখতে হবে : রাষ্ট্রপতি

ঢাকা, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): রাষ্ট্রপতি মো: আবদুল হামিদ দেশের শান্তি ও অগ্রগতি …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

My title page contents