১০:১৩ অপরাহ্ণ - মঙ্গলবার, ২৫ জুন , ২০১৯
Breaking News
Download http://bigtheme.net/joomla Free Templates Joomla! 3
Home / আন্তর্জাতিক / রিকগনিশন অব এক্সিলেন্স পুরস্কার পেল বাংলাদেশের বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট প্রকল্প

রিকগনিশন অব এক্সিলেন্স পুরস্কার পেল বাংলাদেশের বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট প্রকল্প

টেকনোলজী ডেস্ক, ১৭ নভেম্বর, ২০১৬ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): থাইল্যান্ডে অনুষ্ঠিত আইটিউ টেলিকম ওয়ার্ল্ড ২০১৬ এ রিকগনিশন অব এক্সিলেন্স পুরস্কার পেল বাংলাদেশের বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট প্রকল্প। আজ ১৭ নভেম্বর বাংলাদেশের ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিমের হাতে এই পুরস্কার তুলে দেন আন্তর্জাতিক টেলিকমিউনিকেশন ইউনিয়ন(আইটিউ) সভাপতি হাউলিন ঝাও।

ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম ফেসবুকে জানান, ‘প্রথমবারের মতো আইটিইউ টেলিকম ওয়ার্ল্ডে বাংলাদেশ প্যাভিলিয়ন স্থাপন করে। এর মাধ্যমে গোটা বিশ্বকে আমরা বাংলাদেশের টেলিযোগাযোগ খাতের অগ্রগতি সম্পর্কে জানাতে সক্ষম হয়েছি।’

এবারের আন্তর্জাতিক প্রদর্শনীতে অংশ নিয়েছেন বিশ্বের ১০০টি দেশের প্রায় ৪ হাজার সরকারি কর্মকর্তা, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের নির্বাহী এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিখাতের শীর্ষ নেতৃবৃন্দ।

‘বেটার সুনার, অ্যাকসেলেরেটিং আইসিটি ইনোভেশন টু ইমপ্রুভ লাইভস ফাস্টার’ স্লোগান নিয়ে এবারের এ আয়োজনের লক্ষ্য তথ্যপ্রযুক্তি খাতে নতুন উদ্ভাবনের মাধ্যমে বৈশ্বিক উন্নয়নের ধারাকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া। যোগাযোগ প্রযুক্তিখাতে বিশ্বের অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের সাথে ‘এনাবলার অব দ্য ডিজিটাল ইকোনমি, বিল্ডিং এ বেটার কানেক্টেড ওয়ার্ল্ড’ প্রতিপাদ্য নিয়ে ক্লাউড সম্পর্কে নতুন ধারণা ও অভিজ্ঞতা, জাতীয় ব্রডব্যান্ড নেটওয়ার্ক, আলট্রা ফাস্ট ওয়্যারলেস কমিউনিকেশন এবং স্মার্ট সব ডিভাইস প্রদর্শনের লক্ষ্যে এবারের এ আন্তর্জাতিক প্রদর্শনীতে অংশগ্রহণ করেছে বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় তথ্যপ্রযুক্তি সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়ে।

টেলিকম ওয়ার্ল্ড ২০১৬-এ বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করতে সেখানে অংশ নিয়েছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিমের নেতৃত্বে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয় এবং বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ ও নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) অন্যান্য উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাগণ।

উল্লেখ্য, বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইট বাংলাদেশের প্রথম কৃত্রিম উপগ্রহ প্রকল্প। এটি ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের অধীন বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন কর্তৃক বাস্তবায়িত হবে। যার উৎক্ষেপনের খরচ ৩ হাজার ২৪৩ কোটি টাকা। এর মধ্যে বাংলাদেশ সরকার ১ হাজার ৫৫৫ কোটি টাকা নিজেদের তহবিল থেকে এবং বাকি ১ হাজার ৬৮৮ কোটি টাকা বিদেশি সংস্থার কাছ থেকে ঋণ হিসাবে নেওয়া হবে।

অন্যরা য়া পড়ছে...

Loading...



চেক

সকল ধর্ম ও বর্ণ নির্বিশেষে সকলকে উন্নয়নের এই ধারা অব্যাহত রাখতে হবে : রাষ্ট্রপতি

ঢাকা, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): রাষ্ট্রপতি মো: আবদুল হামিদ দেশের শান্তি ও অগ্রগতি …

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ওমরাহ পালন

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৃহস্পতিবার রাতে এখানে পবিত্র …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

My title page contents