৭:২৫ অপরাহ্ণ - বুধবার, ১৪ নভেম্বর , ২০১৮
Breaking News
Download http://bigtheme.net/joomla Free Templates Joomla! 3
Home / রাজনীতি / আওয়ামী লীগ / রাজধানীর আশপাশের নদীর পাড়ের অবৈধ স্থাপনা অচিরেই গুড়িয়ে দেয়া হবে : শাজাহান খান

রাজধানীর আশপাশের নদীর পাড়ের অবৈধ স্থাপনা অচিরেই গুড়িয়ে দেয়া হবে : শাজাহান খান

ঢাকা, ১৩ নভেম্বর, ২০১৬ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): আজ রবিবার দুপুরে নৌমন্ত্রণালয়ে ট্রাস্কফোর্সের ৩৩তম সভা শেষে সাংবাদিকদের নৌপরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান বলেছেন, রাজধানীর আশপাশের নদীর পাড়ের অবৈধ স্থাপনা অচিরেই গুড়িয়ে দেয়া হবে।

শাজাহান খান বলেন, নদীগুলোর যেসব সীমানা পিলার ছিল ভূমিদস্যুরা অনেক পিলার ভেঙে ফেলেছে। পুনরায় এসব পিলার নতুনভাবে তৈরি করা হবে। তিনি বলেন, ‘আমরা ১৩টি অবৈধ প্রতিষ্ঠান চিহ্নিত করেছি। তাদের অচিরেই গুড়িয়ে ফেলা হবে। আপাতত তাদের নাম বলছি না। ইতিমধ্যেই একটি বড় প্রতিষ্ঠান গুড়িয়ে দেয়া হয়েছে।’

নৌমন্ত্রী বলেন, নদী রক্ষায় বর্তমান সরকার বদ্ধপরিকর। নদী রক্ষায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের ব্যাপারে আজকের সভায় সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

এক প্রশ্নের জবাবে শাজাহান খান বলেন, ‘অবৈধ উচ্ছেদ অভিযান আমাদের চলমান প্রক্রিয়ার অংশ। উচ্ছেদের পর নদী যেন আবার দখল না হয়, সেজন্য স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও গণ্যমান্য ব্যক্তিদের সমন্বয়ে আমরা কমিটি গঠন করেছি। এসব মনিটরিং করে তারা আমাদের সহায়তা করবে।’

সভায় এক সপ্তাহের মধ্যে ঢাকার আশপাশের চারটি নদীর ম্যাপ জেলাপ্রশাসকের হাতে তুলে দিতে ভূমি অফিসকে নির্দেশনা দেয়া হয়।

নির্দেশনায় বলা হয়, আগামী সাত দিনের মধ্যে তুরাগ, শীতলক্ষ্যা ও বুড়িগঙ্গা নদীর ম্যাপ জেলা প্রশাসকদের হাতে তুলে দিতে হবে। এসব ম্যাপ দেখে প্রশাসকরা নদীগুলোর নিজস্ব জায়গা চিহ্নিত করবে। এরপর অবৈধ দখল উচ্ছেদ করা হবে।

সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন, ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ ও পানিসম্পদমন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদ প্রমুখ।

অন্যরা য়া পড়ছে...

Loading...



চেক

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ওমরাহ পালন

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৃহস্পতিবার রাতে এখানে পবিত্র …

জনগণ ছেড়ে বিদেশিদের কাছে কেন : ঐক্যফ্রন্টকে ওবায়দুল কাদের

গাজীপুর, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): শুক্রবার বিকেলে গাজীপুরের চন্দ্রায় ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক চার লেনে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

My title page contents