৩:১০ অপরাহ্ণ - রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর , ২০১৮
Breaking News
Download http://bigtheme.net/joomla Free Templates Joomla! 3
Home / ভারতীয় সন্ত্রাসী দাউদ মার্চেন্টের ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে মুক্তির খবর জানতো না ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ

ভারতীয় সন্ত্রাসী দাউদ মার্চেন্টের ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে মুক্তির খবর জানতো না ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ

ঢাকা, ০৭ নভেম্বর, ২০১৬ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): ভারতীয় সন্ত্রাসী দাউদ মার্চেন্টে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে মুক্তির খবর জানতো না ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ। এই গোয়েন্দা শাখার যুগ্ম কমিশনার আবদুল বাতেন জানান, কারা কর্তৃপক্ষ এই বিষয়ে তাদেরকে কিছুই জানায়নি।

নিয়মানুযায়ী কুখ্যাত কোনো সন্ত্রাসীকে মুক্তি দেওয়া হলে গোয়েন্দা সংস্থা ও স্থানীয় থানাকে আগে জানানোর রীতি আছে। কিন্তু দাউদের মুক্তির বিষয়ে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের পাশাপাশি কেরানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকেও কিছু জানানো হয়নি।

কারা প্রশাসনের কাছে বিষয়টি জানতে চাইলে তারা অবশ্য বলছে, তারা ভালো করেই জানেন কোথায় জানাতে হয় আর কোথায় হয় না।

গতকাল কঠোর গোপনীতার মধ্যে কেরানীগঞ্জের ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে মুক্তি দেওয়া হয় ভারতীয় সন্ত্রাসী আবদুর রউফ ওরফে দাউদ মার্চেন্টকে। যা আজ সোমবার বিকালে গণমাধ্যমের কাছে স্বীকার করেন  কারা অধিদপ্তর।

দাউদের মুক্তির বিষয়ে জানতে চাইলে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের যুগ্ম কমিশনার আবদুল বাতেন বলেন, ‘তার মুক্তির ব্যাপারে আমি কিছুই জানি না। আমাদেরকে কিছু জানানো হয়নি।’

ঢাবা দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মনিরুল ইসলাম বলেন, ‘দাউদ মার্চেন্টের মুক্তির খবর আমি জানি না। আদালতের নির্দেশ অনুযায়ী তাকে মুক্তি দেওয়া হয়েছে। সেক্ষেত্রে আমাদের জানানোটা মুখ্য বিষয় নয়।’

ভারতের বিখ্যাত প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান টি-সিরিজের কর্ণধার গুলশান কুমার হত্যা মামলায় ১০ বছরের কারাদ- হয়েছিল দাউদ মার্চেন্টের। ১৯৯৭ সালের ১২ আগস্ট মুম্বাইয়ে গুলি করে গুলশানকে হত্যা করা হয়। ২০০৯ সালের ২৭ মে তাকে এক সহযোগীসহ ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে গ্রেপ্তার করে গোয়েন্দা পুলিশ।  জাল পাসপোর্ট তৈরি ও অবৈধ অনুপ্রবেশের অভিযোগে তখন তাদের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছিল।

সে সময় পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়েছিল, ভারতের অপরাধ জগতের আলোচিত ডন দাউদ ইব্রাহিম বাংলাদেশে নিজের কর্মকা- বিস্তারের জন্য দাউদ মার্চেন্টকে এ দেশে পাঠিয়েছেন। ২০১৪ সালের ডিসেম্বরে দাউদ জামিন পেলে গাজীপুরের কাশিমপুর কারাগার থেকে মুক্তির পরপরই তাকে আবার আটক করে পুলিশ।

বিভিন্ন সময়ে দাউদকে ফিরিয়ে নেওয়ার জন্য ভারতের পক্ষ থেকে আলোচনা তোলা হলেও বিষয়টি দীর্ঘদিন আটকে থাকে।

গোয়েন্দা পুলিশ বা স্থানীয় থানাকে না জানিয়ে দাউদের মতো একজন সন্ত্রাসীকে মুক্তি দেয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে অতিরিক্ত কারা মহাপরিদর্শক ইকবাল হোসেন বলেন, ‘এটা আমার দায়িত্ব। কাকে জানাতে হবে আর কাকে জানাতে হবে সেটা আমি আপনার থেকে বেশি জানি।’ এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী তাকে মুক্ত করা হয়েছে।’

মুক্তি পাওয়ার পর দাউদ কোথায় আছেন-সে বিষয়ে কারা কর্তৃপক্ষ বা পুলিশ কিছুই বলতে পারছে না।  ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা বলেন, ‘তিনি এখন কোথায় আছেন এটা জানা আমাদের দায়িত্ব না।’ গোয়েন্দা পুলিশ ও কেরানীগঞ্জ থানাও এই ভারতীয় ‘সন্ত্রাসী’র অবস্থানের বিষয়ে কোনো তথ্য দিতে পারেনি।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার ঢাকার মহানগর হাকিম এ কে এম মঈন উদ্দিন সিদ্দিকী তাকে ফৌজদারি কার্যবিধির ৫৪ ধারার অভিযোগ থেকে অব্যাহতি দেন। সৌজন্যে ঢাকাটাইমস

অন্যরা য়া পড়ছে...

Loading...



চেক

বিকল্পের সন্ধানে কোটা বাতিলের প্রজ্ঞাপনে দেরি হচ্ছে : ওবায়দুল কাদের

ঢাকা, ১৩ মে ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষণা অনুযায়ী সরকারি চাকরিতে কোটা …

স্যাটেলাইট মহাকাশে ঘোরায় বিএনপির মাথাও ঘুরছে : মোহাম্মদ নাসিম

ফেনী, ১৩ মে ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ মহাকাশে উৎক্ষেপণ হওয়ায় বিএনপির মাথাও ঘুরছে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

My title page contents