১১:৩৭ অপরাহ্ণ - বৃহস্পতিবার, ১৫ নভেম্বর , ২০১৮
Breaking News
Download http://bigtheme.net/joomla Free Templates Joomla! 3
Home / রাজনীতি / অন্যান্য দলের খবর / সুফিবাদ চর্চার মাধ্যমেই জঙ্গিবাদ নির্মূল সম্ভব : আহলে সুন্নাত ওয়াল জামা’আত

সুফিবাদ চর্চার মাধ্যমেই জঙ্গিবাদ নির্মূল সম্ভব : আহলে সুন্নাত ওয়াল জামা’আত

ঢাকা, ০৫ নভেম্বর, ২০১৬ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): আজ শনিবার রাজধানীর ইনস্টিটিউশন অব ইঞ্জিনিয়ার্স মিলনায়তনে ‘সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে ওলামা ও পীর মাশায়েখের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা এবং কোরআন সুন্নাহ’র আদর্শ সর্বত্র ছড়িয়ে দিতে’ আয়োজিত ওলামা মাশায়েক সম্মেলনে বক্তারা সূফিবাদ তথা তাসাউফ চর্চার মাধ্যমেই জঙ্গিবাদ নির্মূল করা সম্ভব বলে মনে করে বাংলাদেশ আহলে সুন্নাত ওয়াল জামা’আত।

বক্তারা বলেন, আজ সমাজে রাসুল (সা.) এর আদর্শ থেকে দূরে সরে থাকার কারণে উগ্রবাদ ও সন্ত্রাসবাদের সৃষ্টি হয়েছে। ইসলাম কখনও উগ্রবাদকে সমর্থন করে না। কারবালার প্রান্তরে থেকে ইসলাম দুই ধারায় বিভক্ত হয়ে যায়। একটি মোহাম্মদি ইসলাম ও অপরটি ইয়াজিদি ইসলাম। ইয়াজিদি মতাদর্শী ওয়াহাবি, মওদুদি, সালাফি মতাদর্শীরাই মূলত সমাজে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে জঙ্গি সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড পরিচালনা করছে বলে উল্লেখ করেন তারা।

বাংলাদেশ আহলে সুন্নত ওয়াল জামা’আতের সভাপতি সৈয়দ বাহাদুর শাহ মোজাদ্দেদির সভাপতিত্বে সম্মেলনে আরও বক্তব্য দেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের অধ্যাপক আতাউর রহমান মিয়াজী, বুড়িশ্চর জিয়াউল উলুম ফাযিল মাদরাসার অধ্যক্ষ এসএম ফরিদ উদ্দিন, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক এমদাদুল হক, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক আব্দুল্লা আল মারুফ, সম্মেলন আয়োজক কমিটির আহ্বায়ক আরিফুর রহমান তাহেরী।

অধ্যক্ষ এস এম ফরিদ উদ্দিন বলেন, ‘যারা সুফিবাদে বিশ্বাস করে তারা কখনও সন্ত্রাসী জঙ্গি কর্মকাণ্ডে বিশ্বাসী নয়। ওয়াহাবি, মওদুদি, সালাফি মতবাদে বিশ্বাসীরাই মূলত সমাজে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে। কারণ তাদের মাঝে রাসুলের আদর্শ নেই, উগ্রবাদই তাদের মূল পুঁজি। এ কারণে তারা সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডকেই বেছে নেয়।’

ফরিদ উদ্দিন বলেন, ‘কারবালার সেই মর্মান্তিক ঘটনার পরেই ইসলাম দুটি ধারায় বিভক্ত হয়ে পড়ে। ইয়াজিদি ইসলামের মতাদর্শের বিশ্বাসীরাই যুগে যুগে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড করে আসছে। এরাই ওহাবি, সালাফি, মওদুদিবাদের নামে জঙ্গিবাদী কর্মকাণ্ড করে যাচ্ছে।’

প্রফেসর এমদাদুল হক বলেন, ‘সত্যিকারের ইসলামে জঙ্গিবাদের কোনো স্থান নেই। ওহাবি, মওদুদিবাদী এক শ্রেণির মুসলমান ইসলামকে ধ্বংস করার জন্য বিভিন্ন ধরনের তৎপরতা চালাচ্ছে। ইসলামকে কলঙ্কিত করার জন্য জঙ্গিবাদী কার্যক্রম চালানোর ষড়যন্ত্র করছে।’

এমদাদুল হক বলেন, ‘কারবালার মর্মান্তিক ঘটনার পর এই গোষ্ঠীকে চাঙ্গা করেছে আব্দুল ওয়াহাব নজদি। এই মতবাদকেই আবার উপমহাদেশে চাঙ্গা করেছে আবুল আলা মওদুদি। মুসলমানকে কলুষিত করার জন্য, ইসলামকে কলঙ্কিত করার জন্য ওয়াহাবি, মওদুদিবাদের লোকেরাই জঙ্গিবাদী কর্মকাণ্ড করে যাচ্ছে। এই জঙ্গিবাদ শুধু বাংলাদেশের সমস্যা নয়, সারা বিশ্বেই আইএস এর নামে ইসলামবিরোধী কর্মকাণ্ড করে যাচ্ছে তারা।’

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের অধ্যাপক আতাউর রহমান মিয়াজী বলেন, ‘মদিনা সনদ হচ্ছে সুন্নিয়াতের সবচেয়ে বড় অস্ত্র। মদিনা সনদের মাধ্যমে দেশ পরিচালনা হলে কোনো জঙ্গিবাদ থাকবে না।’

মিয়াজী বলেন, ‘কারা দেশে জঙ্গিবাদকে উস্কে দিচ্ছে সেটা জানতে হবে। যারা ঈদে মিলাদুন্নবির বিরুদ্ধে কথা বলে, যারা রাসুলের আদর্শের বিরুদ্ধে কথা বলে তাদের সঙ্গে জঙ্গিবাদের সরাসরি সম্পর্ক রয়েছে। তারা মানুষ হত্যা করেছে, নাসিরনগরে হিন্দুরে ওপর হামলা করেছে এরাই প্রকৃত জঙ্গি।’  সৌজন্যে ঢাকাটাইমস

অন্যরা য়া পড়ছে...

Loading...



চেক

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ওমরাহ পালন

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৃহস্পতিবার রাতে এখানে পবিত্র …

জনগণ ছেড়ে বিদেশিদের কাছে কেন : ঐক্যফ্রন্টকে ওবায়দুল কাদের

গাজীপুর, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): শুক্রবার বিকেলে গাজীপুরের চন্দ্রায় ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক চার লেনে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

My title page contents