৮:০১ অপরাহ্ণ - শুক্রবার, ১৬ নভেম্বর , ২০১৮
Breaking News
Download http://bigtheme.net/joomla Free Templates Joomla! 3
Home / জরুরী সংবাদ / হকারদের সংঘর্ষের পরও গুলিস্তানের ফুটপাত অবৈধ দখলমুক্ত করলো ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন

হকারদের সংঘর্ষের পরও গুলিস্তানের ফুটপাত অবৈধ দখলমুক্ত করলো ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন

gulistan3-27-10-16ঢাকা, ২৭ অক্টোবর, ২০১৬ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): আজ দুপুর থেকে বিকাল পর্যন্ত কয়েক দফা সংঘর্ষের পর বঙ্গবন্ধু এভিনিউ থেকে সুন্দরবন স্কয়ার এবং গুলিস্তান হলের পাশের সড়ক ও ফুটপাত থেকে হকারদেরকে সরিয়ে দেয়া হয়। ফলে বিকালে ওই এলাকা দিয়ে নির্বিঘ্নে চলাচল করেছেন পথচারীরা। হকারদের সংঘর্ষের পরও রাজধানীর গুলিস্তান এলাকার ফুটপাত অবৈধ দখলমুক্ত করেছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন।

gulistan2-27-10-16স্থানীয়রা জানান, এক সপ্তাহ আগে তাদেরকে নোটিশ দেয়া হলেও তারা সরে যায়নি। বেলা আড়াইটার দিকে সিটি করপোরেশনের উচ্ছেদকারী দল গুলিস্তানে অভিযানে যায়। এ সময় তাদেরকে ব্যবসায়ীরা বাধা দিলে পাতাল মার্কেট দোকান মালিক সমিতির সভাপতি আনোয়ার হোসেনকে পুলিশ ধরে নিয়ে যায়।

এরপর ব্যবসায়ীরা একজোট হয়ে মিছিল নিয়ে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন কার্যালয়ে যান। সেখানে আশ্বাস না পেয়ে গুলিস্তানে ফিরে পুলিশের সঙ্গে আবার ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ায় জড়ান তারা। তবে পুলিশ লাঠিপেটা করে ব্যবসায়ীদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। এ সময় দুই একজন ব্যবসায়ী আহত হন।

ফুটপাতের দোকানি জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, ‘আমাদের আগে থেইক্যা ঘোষণা না দিয়াই উচ্ছেদ করছে সিটি করপোরেশন। পাতাল মার্কের্টের দোকানিগো লাগে মারামারির পরে আমাগো দোকান ভাইঙ্গা দিছে। এতে আমাগো লাখ লাখ টেকা ক্ষতি হইছে।’

স্থানীয় ব্যবসায়ী মাসুদ রানা জানান, উচ্ছেদ অভিযানের এক পর্যায়ে পাতাল মার্কেটের লোকজন সংঘবদ্ধ হয়ে সংঘর্ষে জড়ান।

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের রমনা অঞ্চলের সহকারী সহকারী কমিশনার শিবলী নোমান সাংবাদিকদের বলেন, ‘আজ উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করেছে সিটি করপোরেশন। আমরা উচ্ছেদের আগে ও পরে আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেছি কেবল।’

বিকাল চারটার দিকে দলের নেতা-কর্মীদেরকে নিয়ে ঘটনাস্থলে আসেন ঢাকা দক্ষিণের মেয়র সাঈদ খোকন। তিনি ছোটখাটো একটি সমাবেশও করেন। গোলাপশাহ মাজারের সামনের গোল চত্বরের ওই সমাবেশে মেয়র বলেন, ‘কোনো ফুটপাতে দোকান বসবে না। ফুটপাত পথচারীদের জন্য। দোকানদারি করতে হলে তাদের হাঁটার রাস্তা ছাড়তে হবে। ফুটপাতের এক ইঞ্চি জায়গাও কাউকে দেয়া হবে না।’

মেয়র বলেন, ফুটপাতের অবৈধ দখল উচ্ছেদে উচ্চ আদালতের নির্দেশনাও আছে। এই নির্দেশনা বাস্তবায়নে প্রশাসনের সহযোগিতাও চান মেয়র সাঈদ খোকন। তিনি বলেন, ‘ফুটপাত দখল করে রাখার কারণে যানজটে অসুস্থ রোগী রাস্তায় পড়ে যখন মারা যাবে, মেয়র হিসেবে এই বীভৎস দৃশ্য আমি দেখতে পারবো না। এই অবস্থা দেখার জন্য আমি মেয়র হইনি।’

গুলিস্তানে ফুটপাত উচ্ছেদে এ রকম অভিযান এর আগেও চালিয়েছে সিটি করপোরেশন। তবে অভিযানে উচ্ছেদ হলেও পরে আবার ফিরে আসে দোকানিরা। ফুটপাত ছাড়িয়ে হকাররা দখল করে নিয়েছে মূল সড়কের একাংশও। এ কারণে পথচারীরা চলাচল করতে গিয়ে ভোগান্তিতে পড়েন। সৌজন্যে ঢাকাটাইমস

অন্যরা য়া পড়ছে...

Loading...



চেক

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ওমরাহ পালন

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৃহস্পতিবার রাতে এখানে পবিত্র …

জনগণ ছেড়ে বিদেশিদের কাছে কেন : ঐক্যফ্রন্টকে ওবায়দুল কাদের

গাজীপুর, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): শুক্রবার বিকেলে গাজীপুরের চন্দ্রায় ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক চার লেনে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

My title page contents