২:২০ পূর্বাহ্ণ - শনিবার, ১৭ নভেম্বর , ২০১৮
Breaking News
Download http://bigtheme.net/joomla Free Templates Joomla! 3
Home / জরুরী সংবাদ / মাতুয়াইলের দু’টি মূদ্রণ প্রতিষ্ঠানে ঝটিকা অভিযানে শিক্ষামন্ত্রী নূরুল ইসলাম নাহিদ

মাতুয়াইলের দু’টি মূদ্রণ প্রতিষ্ঠানে ঝটিকা অভিযানে শিক্ষামন্ত্রী নূরুল ইসলাম নাহিদ

nahid    28.10.15ঢাকা, ২৮ অক্টোবর ২০১৫ (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): আজ সকালে মাতুয়াইলের দু’টি মূদ্রণ প্রতিষ্ঠানে ঝটিকা অভিযানে গিয়ে শিক্ষামন্ত্রী নূরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, আপাতদৃষ্টিতে মনে হচ্ছে, প্রাথমিক স্তরের বইয়ের কাগজ, ছাপার মান ও বাইন্ডিং অন্যান্য বছরের তুলনায় মানসম্মত হচ্ছে। শিশুরা এসব বইটি হাতে পেয়ে বেশ খুশি হবে।

এবারই প্রথম দেশের মূদ্রণ প্রতিষ্ঠানগুলো প্রাথমিকের বই ছাপানোর কাজ পেয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, বিগত বছরগুলোতে এসব বই বিদেশ থেকে ছাপিয়ে আনা হতো। তবে দেশের প্রতিষ্ঠানগুলোর কাজের মান তাদের তুলনায় খারাপ নয়, বরং ভাল হচ্ছে।

মন্ত্রী বইয়ের ছাপা, কাগজ ও বাইন্ডিং নিজ চোখে মিডিয়া কর্মীদের দেখানোর জন্য মাতুয়াইলের আনন্দ প্রিন্টিং প্রেস ও ব্রাইট প্রিন্টিং প্রেসে এ ঝটিকা অভিযানে নিয়ে যান।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, বিনা নোটিশে এ অভিযানে এসে যে কাগজে বই ছাপাতে দেখলাম, তার নমুনা সংগ্রহ করে নিয়ে যাচ্ছি। তা পরীক্ষা করে দেখা হবে এর কোয়ালিটি ঠিক আছে কিনা।

সাংবাদিকদের দৃষ্টি আকর্ষণ করে তিনি বলেন, বইয়ের কাগজের মান, ছাপার কোয়ালিটি অর্থাৎ ঝকঝকে ছাপা হচ্ছে কিনা, বাইন্ডিং ঠিক আছে কিনা, তা নিজ চোখে দেখানোর উদ্দেশে আপনাদের এখানে নিয়ে আসা হয়েছে।

নাহিদ বলেন, ৮০ গ্রাম সাদা কাগজে প্রাথমিকের বই ছাপানো হচ্ছে। তারপরও এখান ছাপানো যে কাগজ নিয়ে যাচ্ছি, এর কোয়ালিটি ঠিক আছে কিনা, তা জানার জন্য প্রয়োজনে বুয়েটে এ কাগজটি পরীক্ষা করা হবে। কোন গরমিল পেলে প্রিন্টিং প্রেসের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

তিনি বলেন, বিগত সময়ে বিদেশ থেকে যে ধরণের কাগজে বই ছাপিয়ে আনা হয়েছে, সে একই ধরণের কাগজে এবারও বই ছাপানো হচ্ছে। তাদের কাগজের সঙ্গে পরীক্ষা করেই এ কাগজ নির্বাচন করা হয়েছে।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, দেশীয় মূদ্রণ প্রতিষ্ঠানগুলো অটোমেটিক মেশিনে প্রাথমিকের বই ছাপানোর কাজ করছে। ছাপার এ পর্যায়ে কোণ ধরণের ত্রুটি দেখা দিয়ে মেশিন অটো বন্ধ হয়ে যায়। আবার কোন কাগজে ছাপা স্বচ্ছ না হলে বা কাগজে কোন ধরণের দাগ এলে মেশিন তা অটোমেটিক্যালি বাইরে ফেলে দেয়।

তিনি বলেন, বই ছাপা থেকে শুরু করে সেলাই ও বাইন্ডিং সব কাজই হচ্ছে অটোমেটিক মেশিনে। তাই এ পর্যায়ে ম্যানুয়াল্লি খাবার কিছু করার বা খারাপ বই ছাপা সম্ভব নয়। প্রেস মালিক বা কর্মচারীরা কিছু করতে গেলেও তাদের অঙ্গহানির সম্ভাবনা রয়েছে।

নাহিদ বলেন, সরকার প্রাথমিকের বইয়ের মানের দিক নিয়ে যে, কোন সমঝোতা করেনি তা এখানকার কাজ দেখলেই বোঝা যায়।

তিনি বলেন, প্রযুক্তির সুবিধা আমাদের এমন পর্যায়ে নিয়ে গেছে যে, কোয়ালিটি সম্পন্ন কাজ দিতে প্রেস মালিকরা বাধ্য। এখানে ক্লাস-২ এর যে বই ছাপানো হচ্ছে, তা সত্যিই ঝকঝকে তকতকে হয়েছে।

মন্ত্রী বলেন, তারপরও কোয়ালিটির যেন কোন ব্যত্যয় না হয়, তা দেখভালের জন্য এনসিটিবি’র ৬টি কমিটি প্রতিদিন বিভিন্ন প্রেসে ঝটিকা অভিযানে যাচ্ছে।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, দেশীয় মূদ্রণ প্রতিষ্ঠানের ছাপা ও বাইন্ডিংয়ের কাজের মান নিয়ে বিশ্বব্যাংক এখনও কোন আপত্তি করেনি।

তিনি বলেন, বিশ্বব্যাংক তাদের সোর্স দিয়ে খোঁজ নিচ্ছে এবং আমাদের মনিটরিং টিমের প্রতিদিনের রির্পোটও তাদের কাছে পাঠানো হচ্ছে। এসব তথ্যের ভিত্তিতে তারা কাজের মান নিয়ে এখন পর্যন্ত সন্তুষ্টি প্রকাশ করে আসছে।

২২টি দেশীয় মূদ্রণ প্রতিষ্ঠান এবার প্রাথমিকের বই প্রস্তুতের কাজ করছে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, নভেম্বরের মাঝামাঝি পর্যায় থেকে আমরা এসব বই উপজেলা পর্যায়ে পৌঁছে দিতে সক্ষম হবো।

এবার ৪ কোটি ৪৪ লাখ ১৬ হাজার ৪২৮ জন শিক্ষার্থীর জন্য ৩৩ কোটি ৩৯ লাখ ৬১ হাজার ৭২৪টি বই বিতরণের লক্ষ্যে প্রস্তুত করা হচ্ছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, এবতেদায়ি, মাদরাসা ও মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষার্থীদের ৭০ ভাগ বই ইতোমধ্যে উপজেলা পর্যায়ে পৌঁছে দেয়া হয়েছে।

এ সময় শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের (এনসিটিবি) কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

 

অন্যরা য়া পড়ছে...

Loading...



চেক

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ওমরাহ পালন

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৃহস্পতিবার রাতে এখানে পবিত্র …

জনগণ ছেড়ে বিদেশিদের কাছে কেন : ঐক্যফ্রন্টকে ওবায়দুল কাদের

গাজীপুর, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): শুক্রবার বিকেলে গাজীপুরের চন্দ্রায় ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক চার লেনে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

My title page contents