৬:০৫ অপরাহ্ণ - রবিবার, ১৮ নভেম্বর , ২০১৮
Breaking News
Download http://bigtheme.net/joomla Free Templates Joomla! 3

খুলনার খবর

ডাঃ আওরঙ্গজেব কামাল-খুলনা, ০৬ অক্টোবর, ২০১৬ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): 

খুবিতে সেলফ এসেসমেন্ট শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত

বৃহস্পতিবার সকাল ১০ টায় খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের তৃতীয় একাডেমিক ভবনে পদার্থ বিজ্ঞান ডিসিপ্লিনের উদ্যোগে দিনব্যাপী সেলফ এসেসমেন্ট ওয়ার্কশপ অন এ্যাওয়ারনেস ডেভেলপমেন্ট এন্ড টিম বিল্ডিং শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ডিসিপ্লিন প্রধান প্রফেসর ড. ফারজানা নাহিদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ কর্মশালায় বক্তব্য রাখেন বিজ্ঞান প্রকৌশল ও প্রযুক্তিবিদ্যা স্কুলের ডিন প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ইসমত কাদির ও আইকিউএসির পরিচালক প্রফেসর ড. মোঃ রেজাউল করিম। পরে টেকনিক্যাল সেশনে বিষয়ভিত্তিক বক্তব্য রাখেন সংশ্লিষ্ট ডিসিপ্লিন প্রধান প্রফেসর ড. ফারজানা নাহিদ, আইকিউএসির অতিরিক্ত পরিচালকদ্বয় প্রফেসর ড. মোঃ সারওয়ার জাহান ও প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জিয়াউল হায়দার। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন সংশ্লিষ্ট ডিসিপ্লিনের প্রভাষক মোঃ ইমরান হোসেন। এ সময় সংশ্লিষ্ট ডিসিপ্লিনের শিক্ষক ও কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

ভবদহ পানি নিষ্কাশন সংগ্রাম কমিটির কর্মসূচিতে পুলিশের বর্বরোচিত হামলা

ওয়ার্কার্স পার্টির তীব্র নিন্দা

বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির খুলনা জেলা কমিটির নেতৃবৃন্দ আজ এক বিবৃতিতে ভবদহ পানি নিষ্কাশন সংগ্রাম কমিটির পূর্ব নির্ধারিত কর্মসূচিতে বিনা উস্কানিতে পুলিশের বর্বরোচিত হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ করে বলেন, যখন ভবদহের মানুষ দীর্ঘদিন যাবত জলাবদ্ধতার মধ্যে বসত ঘরে মাচা বানিয়ে বাস করছে, ছেলেমেয়েরা স্কুলে যেতে না পেরে পড়ালেখা বন্ধ, মানুষের জীবন-জীবিকা প্রবাহ বন্ধ, ব্যবসা-বাণিজ্য বন্ধ হয়ে অনাহারে অর্ধাহারে থেকে অত্যন্ত মানবেতর জীবন-যাপন করছে, ঠিক তখনই জলাবদ্ধ পানি সরানোর দাবি জানাতে বুধবার নওয়াপাড়ার রাজপথে হাজার হাজার নারী-পুরুষের সমাবেশে পুলিশ নির্দয় ও নির্মমভাবে লাঠিপেটা করে ওয়ার্কার্স পার্টির পলিটব্যুরোর সদস্য ও সংগ্রাম কমিটির প্রধান উপদেষ্টা কমরেড ইকবাল কবীর জাহিদকে রক্তাক্ত জখম করেছে এবং ঐ হামলায় ভবদহ পানি নিষ্কাশন সংগ্রাম কমিটির আহ্বায়ক রণজিৎ বাওয়ালী, সমন্বয়কারী বৈকুণ্ঠ বিহারী রায়সহ শতাধিক নারী-পুরুষ, শিশু, সাংবাদিক আহত হয়েছে।

নেতৃবৃন্দ বিবৃতিতে অবিলম্বে  ভবদহ জলাবদ্ধ নিষ্কাশনের আন্দোলনরত মানুষের উপর হামলাকারীদের শাস্তি এবং ভবদহ জলাবদ্ধ পানি নিষ্কাশনের স্থায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করতে জোর দাবি জানান। বিবৃতিদাতা নেতৃবৃন্দ হলেন-বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির খুলনা জেলা ভারপ্রাপ্ত সভাপতি কমরেড দেলোয়ার উদ্দিন দিলু, সাধারণ সম্পাদক কমরেড এড. মিনা মিজানুর রহমান, পার্টির কেন্দ্রীয় সদস্য কমরেড শেখ সাহিদুর রহমান, ওয়ার্কার্স পার্টির জেলা সম্পাদকম-লীর সদস্য কমরেড আনসার আলী মোল্লা, কমরেড মোজাম্মেল হক, কমরেড শেখ মফিদুল ইসলাম, কমরেড এস এম ফারুখ-উল-ইসলাম, পার্টির জেলা সদস্য কমরেড মনিরুজ্জামান, কমরেড গাজী নওশের আলী, কমরেড গৌরাঙ্গ প্রসাদ রায়, কমরেড শেখ মিজানুর রহমান, কমরেড সন্দীপন রায়, কমরেড স ম রেজাউল করিম, কমরেড মনির আহমেদ, কমরেড শেখ সেলিম আখতার স্বপন, কমরেড মোঃ খলিলুর রহমান প্রমুখ।

দূর্গাপূজা উপলক্ষে খুলনা বিভাগে ২৬৩২৪ জন আনসার পূজামন্ডপে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় নিয়োজিত

আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর, সদর দপ্তরের নির্দেশ মোতাবেক আগামী ৭ অক্টোবর হতে ১১ অক্টোবর ২০১৬খ্রিঃ পর্যন্ত খুলনা বিভাগের ১০টি জেলার ৪৫৫৬ টি পূজামন্ডপে ২৫৪৯০ জন আনসার-ভিডিপি সদস্য-সদস্যা পূজামন্ডপে আইন-শৃংখলা রক্ষা ও সুষ্ঠু পরিবেশ বজায় রাখতে মোতায়েনের সকল প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে।

অধিক গুরুত্বপূর্ণ পূজামন্ডপে ৮ জন আনসার, গুরুত্বপূর্ণ পূজামন্ডপে ৬ জন আনসার এবং সাধারণ পূজামন্ডপে ৪ জন আনসার বাহিনীর সদস্য ও সদস্যা আইন-শৃংখলা রক্ষার দায়িত্ব পালন করবে। উল্লেখ্য প্রতিটি পূজামন্ডপে ২ জন করে মহিলা আনসার নিয়োজিত থাকবে। খুলনা বিভাগের ১০টি জেলায় যথাক্রমে খুলনা জেলার ৯০৭ টি পূজামন্ডপে পিসি ও এপিসি ১১৩৫ জন আনসার ৪০১৭জন মোট=৫১৫২ জন, বাগেরহাট জেলার ৫৮৩ টি পূজামন্ডপে পিসি ২০১, এপিসি ৫৮৩ আনসার (পুরুষ) ১৪৯৪ জন ও আনসার (মহিলা) ১১৬৬জন মোট ৩৪৪৪ জন, সাতক্ষীরা জেলার ৫৬৩ টি পূজামন্ডপে পিসি ১১৮, এপিসি ৫৬৩ আনসার (পুরুষ) ১২৫৭ জন ও আনসার (মহিলা) ১১২৬ জন মোট৩০৭৪ জন, যশোর জেলার ৬২৯ টি পূজামন্ডপে পিসি ২১৫, এপিসি ৬২৯ আনসার (পুরুষ) ১৬৯৪ জন ও আনসার (মহিলা) ১২৮৫ জন মোট ৩৭৯৬ জন, ঝিনাইদহ জেলার ৪০৫ টি পূজামন্ডপে পিসি ৪১, এপিসি ৪০৫  আনসার (পুরুষ) ৯২২ জন ও আনসার (মহিলা) ৮১০ জন মোট ২১৭৮ জন, মাগুরা জেলার ৫৮০ টি পূজামন্ডপে পিসি ১১৩, এপিসি ৫৮০ আনসার (পুরুষ) ১৩৪৭ জন ও আনসার (মহিলা) ১১৬০ জন মোট ৩২০০ জন, নড়াইল জেলার ৫৫৬ টি পূজামন্ডপে পিসি ১৩১, এপিসি ৫৫৬ আনসার (পুরুষ) ১৪৭১ জন ও আনসার (মহিলা) ১১১২ জন মোট ৩২৭০ জন, কুষ্টিয়া জেলার ২২৭ টি পূজামন্ডপে পিসি ৯০, এপিসি ২২৭ আনসার (পুরুষ) ৬৭৯ জন ও আনসার (মহিলা) ৪৫৪ জন মোট ১৪৫০ জন, চুয়াডাংগা জেলার ৯৭ টি পূজামন্ডপে পিসি ১৫, এপিসি ৯৭ আনসার (পুরুষ) ২০২ জন ও আনসার (মহিলা) ১৯৪ জন মোট ৫০৮ জন, মেহেরপুর জেলার ৩৭ টি পূজামন্ডপে পিসি ১৮, এপিসি ৩৭ আনসার (পুরুষ) ১২৫ জন ও আনসার (মহিলা) ৭৪ জন মোট ২৫৪ জন আনসার বাহিনীর সদস্য-সদস্যা পূজামন্ডপে আইন-শৃংখলা রক্ষার দায়িত্বে মোতায়েন করা হয়েছে।পরিচালক, আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনী, খুলনা রেঞ্জ, খুলনা মোহাঃ আকবর আলী পূজামন্ডপে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা ও সুষ্ঠু পরিবেশ বজায় রাখার জন্য প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের সাথে সার্বক্ষনিক অপারেশন কাজের সমন্বয় করছেন এবং সংশ্লিষ্ট জেলা কমান্ড্যান্ট ও আনসার ও ভিডিপি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সঠিকভাবে দায়িত্ব পালনের জন্য নির্দেশ প্রদান করেন।

খুবিতে এগ্রোটেকনোলজি ডিসিপ্লিনে সাংস্কৃতিক সপ্তাহের পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত

khulna-2-6-10-16খুবির গ্রোটেকনোলজি ডিসিপ্লিনের উদ্যোগে আয়োজিত সাংস্কৃতিক সপ্তাহ-২০১৬ এর সমাপনী ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান ২ নম্বর একাডেমিক ভবনে সাংবাদিক লিয়াকত আলী মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়।

সংশ্লিষ্টডিসিপ্লিনের প্রফেসর ও সংস্কৃতি বিষয়ক কমিটির আহবায়ক প্রফেসর ড. মোঃ মনিরুল ইসলাম এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জীব বিজ্ঞান স্কুলের ডিন প্রফেসর ড. মোঃ নাজমুল আহসান। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আইকিউএসি এর পরিচালক প্রফেসর ড. মোঃ রেজাউল করিম ও প্রফেসর ড. মোঃ সারওয়ার জাহান। পৃষ্ঠপোষকতায় ছিলেন ডিসিপ্লিন প্রধান প্রফেসর ড. মোহাম্মদ বশীর আহমেদ। পরে প্রধান অতিথি বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন। উল্লেখ্য, বিতর্ক, দেশাত্ববোধক গান, কবিতা, উপস্থিত বক্তৃতা, সাধারণ জ্ঞান প্রতিযোগিতা ইত্যাদি বিষয়ে ডিসিপ্লিনের প্রায় ৫০জন শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে। দেশাত্ববোধক গানে ১ম স্থানঞ্চ  অধিকার করে ১৪ ব্যাচের শিক্ষার্থী স্বাসতী নাগ, দ্বিতীয় স্থান ১৫ ব্যাচের তমালিকা ও তৃতীয় স্থান অধিকার করে ১২ ব্যাচের তুষার কান্তি সাহা। কবিতা আবৃত্তিতে ১ম স্থান ১৬ ব্যাচের শিক্ষার্থী মিল্লাত জাহান লিরা, দ্বিতীয় স্থান ১৪ ব্যাচের রেদোয়ান নূর হৃদয় ও তৃতীয় স্থান অধিকার করে ১৩ ব্যাচের মোঃ জাহিদুল ইসলাম সজল। উপস্থিত বক্তৃতায় ১ম স্থান ১২ ব্যাচের শিক্ষার্থী রিনিতা ইসলাম, দ্বিতীয় স্থান ১৩ ব্যাচের মোঃ জাহিদুল ইসলাম সজল ও তৃতীয় স্থান অধিকার করে ১৪ ব্যাচের হাসিবুর রহমান। সাধারণ জ্ঞানে ১ম স্থান ৪র্থ বর্ষের ২য় টার্মের শিক্ষার্থীরা, দ্বিতীয় স্থান ৩য় বর্ষের ১ম টার্মঞ্চ  ও তৃতীয় স্থান অধিকার করে ৩য় বর্ষের ২য় টার্ম। বিতর্ক প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করে ১ম বর্ষের ২য় টার্মের শিক্ষার্থীরা ও রার্নাস আপ ৩য় বর্ষের ২য় টার্মের শিক্ষার্থীরা। শ্রেষ্ঠ বক্তা হিসেবে নির্বাচিত হয়েছে ১৬ ব্যাচের শিক্ষার্থী মিল্লাত জাহান লিরা। বিতর্কের বিষয় ছিলো পুঁজি নয় প্রযুক্তি কৃষি উন্নয়নের চাবিকাঠি। এ সময় সংশ্লিষ্ট ডিসিপ্লিনের শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

অন্যরা য়া পড়ছে...

Loading...



চেক

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ওমরাহ পালন

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৃহস্পতিবার রাতে এখানে পবিত্র …

জনগণ ছেড়ে বিদেশিদের কাছে কেন : ঐক্যফ্রন্টকে ওবায়দুল কাদের

গাজীপুর, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): শুক্রবার বিকেলে গাজীপুরের চন্দ্রায় ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক চার লেনে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

My title page contents