৬:৩৪ অপরাহ্ণ - বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর , ২০১৮
Breaking News
Download http://bigtheme.net/joomla Free Templates Joomla! 3
Home / জরুরী সংবাদ / ঝিনাইদহের খবর

ঝিনাইদহের খবর

জাহিদুর রহমান তারিক-ঝিনাইদহ, ০৬ অক্টোবর, ২০১৬ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): 

ঝিনাইদহে উপজেলা চেয়ারম্যানের স্বামী সাংবাদিক ও স্কুল শিক্ষক রফিকুল ইসলাম গ্রেফতার

ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর উপজেলার ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান নাজমা খাতুনের বাড়িতে অভিযান চালিয়েছে পুলিশ। জামায়াত সংশ্লিষ্টার অভিযোগে পুলিশ ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের স্বামী কোটচাঁদপুরের সাংবাদিক ও স্কুল শিক্ষক রফিকুল ইসলামকে গ্রেফতার করেছে। পরে তাকে বিষ্ফোরক ও সন্ত্রাস বিরোধী আইনে আদালতে সোপর্দ করে।

ঘটনার দিনে রাতে ৪ জামায়াত কর্মীসহ মোট ৮ জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। কোটচাঁদপুর উপজেলার ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান নাজমা খাতুন জানান, বৃহস্পতিবার ভোরের দিকে কোটচাঁদপুর থানার এসআই ব্রজ বল্লভ সাধু তার বাড়িতে এসে স্বামী রফিকুল ইসলাম মন্ডলকে নিয়ে যান।

তিনি অভিযোগ করেন পরে পুলিশ কোটচাঁদপুরের দোড়া ইউনিয়নে গোপন বৈঠকের ভুয়া গল্প সাজায়। বিষয়টি নিয়ে কোটচাঁদপুরের ওসি আহম্মেদ কবীর হোসেন জানান, রফিকুল জামায়াত পরিবারের সদস্য। তার বিরুদ্ধে খাদ্য কর্মকর্তাকে হুমকীর অভিযোগ রয়েছে। এ নিয়ে রেজুলেশন হয়েছে।

তবে তিনি সন্ত্রাস নাশকতার কোন তথ্য দিতে পারেনি। তাকে কোথা থেকে ধরা হয়েছে তা অভিযানকারী এসআই এর কাছ থেকে জেনে নিতে বলেন ওসি।

গ্রেফতারকৃতরা জামায়াত কর্মীরা হলেন হলো কোটচাঁদপুর উপজেলার কবিরখালী গ্রামের মৃত আব্দুস সামাদের ছেলে উসমান গনি (৬০), জালালপুর গ্রামের মৃত আফজাল হোসেনের ছেলে শাহ আলম (৪৯) একই গ্রামের মুরাদ আলীর ছেলে শমসের আলী (৩৪) এবং ধোপাবিলা গ্রামের দরবেশ আলীর ছেলে হাসানুজ্জামান (৩৮)।

কোটচাঁদপুর থানার সেকেন্ড ব্রজ বল্লভ সাধু জানান, উপজেলার দোড়া ইউনিয়নের বিভিন্ন স্থানে সন্ত্রাসীরা নাশকতার পরিকল্পনা করছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে রাতে অভিযান চালিয়ে জামায়াতের ৩ জন রোকন ও ২ জন সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়।

তাদের বিরুদ্ধে থানায় বিষ্ফোরক ও সন্ত্রাস বিরোধী আইনে মামলা রয়েছে। গ্রেফতারকৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

ঝিনাইদহের ইউপি চেয়ারম্যানে আশরাফের বিরুদ্ধে ৮ মেম্বরের অভিযোগ
ঝিনাইদহে স্কুল শিক্ষক ও কলেজ প্রভাষকের নামে ১০ টাকা কেজির কার্ড প্রতিবাদে তোলপাড়

ঝিনাইদহ সদর উপজেলার কুমড়াবাড়িয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ভিজিএফ, এজিএসপি, গর্ভকালীন মাতৃত্ব ভাতা ও ১০ টাকা কেজির চালের কার্ড বিতরণে অসচ্ছতার গুরুতর অভিযোগ উঠেছে।

কুমড়াবাড়িয়া ইউনিয়নের ৮ জন নির্বাচিত ইউপি সদস্য এক লিখিত অভিযোগে এ সব তথ্য জানান। তাদের লেখা অভিযোগটি বুধবার ঝিনাইদহ জেলা প্রশাসক ও সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে দেওয়া হয়েছে।

অভিযোগ পত্রে কুমড়াবাড়িয়া ইউনিয়নের মেম্বর আনোয়ার হোসেন, আকতার আলী, মনিরুজ্জামান টোকন, কলিমুদ্দীন, ছালিমা খাতুন, নজরুল ইসলাম, মকলেচুর রহমান ও আমজাদ হোসেন সাক্ষর করেছেন।

অভিযোগ পত্রে ইউপি সদস্যগন উল্লেখ করেছেন, চেয়ারম্যান নিজে ব্যক্তিগত ভাবে ভিজিএফ, এজিএসপি, গর্ভকালীন মাতৃত্ব ভাতা ও ১০ টাকা কেজির চালের কার্ড বিতরণ করছেন। এ ক্ষেত্রে তারা জনগনের ভোটে সরাসরি নির্বাচিত হলেও তাদের কোন মতামত নেওয়া হচ্ছে না। নিজে খেয়াল খুশি মতো কাজ করছেন।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তারা জানান, কুমড়াবাড়িয়া গ্রামের শরিফুল ইসলাম ও তার মেয়ে রুখসানাকে ১০ টাকা কেজির কার্ড দিয়েছে চেয়ারম্যান, শরিফুল ইসলাম গাড়ি বাড়ির মালিক। মাঠে ও ঝিনাইদহ শহরে জমি আছে। নগরবাথান এমএ খালেক কলেজের প্রভাষক জামির হোসেন ও ডেফলবাড়িয়া স্কুলের শিক্ষক জাহিদকে ১০ টাকা কেজির কার্ড দেওয়া হয়েছে।

কুমড়াবাড়িয়া গ্রামের ধনাঢ্য ব্যক্তি জামাল মিস্ত্রির কার্ড দেওয়া হয়েছে। চেয়ারম্যানের সাথে থাকা কাসেম ও আনোয়ারের পরিবারে একাধিক ১০ টাকা কেজির কার্ড দেওয়া হয়েছে। অথচ কত হতদরিদ্র মানুষ কার্ড পায়নি।

বিষয়টি তারা তদন্তের জন্য জেলা প্রশাসকের কাছে অনুরোধ করেছেন। এ বিষয়ে ঝিনাইদহ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান জানান, মেম্বররা অভিযোগ দিয়েছিল। আমি তাদের মধ্যে সমন্বয় করে দিয়েছি। আশা করা যায় ভুল বোঝাবুঝির অবসান ঘটবে।

অবশেষে তিন ডাকাত ঝিনাইদহের গান্না থেকে গ্রেফতার

অবশেষে ঝিনাইদহ সদর উপজেলার সন্ত্রাস কবলিত গান্না ইউনিয়ন থেকে তিন ডাকাতকে পাকড়াও করেছে পুলিশ। তিন ডাকাত সদস্য হলো সদর উপজেলার কুঠিদুর্গাপুর গ্রামের রিয়াজ, ছোট ঝিনাইদহ গ্রামের ময়নালের ছেলে মামুন ও কালুহাটী গ্রামের রিয়াজ।

বুধবার রাতে তাদের ঝিনাইদহ সদর থানায় সোপর্দ করা হয়েছে। বেতাই পুলিশ ক্যাম্পের তদন্ত কর্মকর্তা তরিকুল ইসলাম তারেক খবরের সত্যতা স্বীকার করে জানান, ছোট ঝিনাইদহ জলিল মুন্সির বাড়িতে সম্প্রতি ডাকাতি হয়। গৃহকর্তা ডাকাতদলের সদস্যদের চিনে ফেলেন। বাদীর চিনিয়ে দেওয়া ডাকাত সদস্যদের বুধবার পুলিশ গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে যায়।

ঝিনাইদহ সদর থানায় জলিল মুন্সির স্ত্রী আনোয়ারা বেগম সাংবাদিকদের জানান, এরাই আমার বাড়িতে ডাকাতি করেছে। আমি এদের চিনি। এর আগে আমির নামে একজনকে রামদা সহকারে আটক করেও পুলিশ ছেড়ে দেয় বলে অভিযোগ।

এদিকে কাশিমনগর গ্রামে নাসির সরকার ও সরোজিত নামে আরো দুই ব্যক্তির বাড়িতে ডাকাতি হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে। দেড়মাস আগে সরোজিত ও গত শুক্রবার নাসির সরকারের বাড়িতে ডাকাতি হয় বলে এলাকাবাসি জানায়।

এদিকে এলাকাবাসি অভিযোগ করেছে, গ্রেফতারকৃতরা চিহ্নিত ডাকাত। তাদের ছোড়ে দিলে এলাকায় আরো ডাকাতি হবে।

প্রধানমন্ত্রী সম্পর্কে কটূক্তির মামলায় পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকের চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সম্পর্কে কটূক্তি, মানহানিকর বক্তব্য দেয়ায় পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকের চেয়ারম্যান মিহির কান্তি মজুমদারের বিরুদ্ধে ঝিনাইদহ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ১ম আদালতে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

বুধবার বিকালে ঝিনাইদহ ঝিনাইদহ জেলা বঙ্গবন্ধু স্মৃতি সংসদ ও পাঠাগারের সভাপতি মফিজ উদ্দিন বাদী হয়ে এ মামলা দায়ের করেন। বিকেলে আদালত আসামী পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকের চেয়ারম্যান মিহির কান্তি মজুমদারের বিরুদ্ধে ৫০০/৫০৬ (০২) ধারা মোতাবেক গ্রেফতারি পরোয়ানা ইস্যু করেন।

আদালত সুত্রে জানা যায়, সম্প্রতি পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকের চেয়ারম্যান মিহির কান্তি মজুমদার তার কর্মচারী জসিম উদ্দিনের সামনে প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা সম্পর্কে মারাত্মক সব কটূক্তি করেছেন। অনেক অসভ্য মন্তব্য করেন।

এ ঘটনায় মফিজ উদ্দিন বাদী হয়ে বুধবার মামলাটি দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পর বিচারক এস এম মনিরুজ্জামান গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির আদেশ দেন। বাদীর পক্ষে মামলাটি পরিচালনা করেন এপিপি এ্যাড. আব্দুল খালেক সাগর।

ঝিনাইদহে নাশকতা মামলায় জামায়াতের ৫ নেতাকর্মী গ্রেফতার

ঝিনাইদহে নাশকতা মামলায় জামায়াতের ৫ নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বুধবার (৫ অক্টোবর) রাত থেকে বৃহস্পতিবার (৬ অক্টোবর) সকাল পর্যন্ত কোটচাঁদপুর উপজেলার দোড়া ইউনিয়ন থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃতরা হলো-কোটচাঁদপুর উপজেলার কবিরখালী গ্রামের উসমান গনি (৬০), কোটচাঁদপুর বাজারপাড়া এলাকার মৃত মঈদুল ইসলামের ছেলে রফিকুল ইসলাম (৪০) , জালালপুর গ্রামের শাহ আলম (৪৯) একই গ্রামের মুরাদ আলীর ছেলে শমসের আলী (৩৪) ও ধোপাবিলা গ্রামের দরবেশ আলীর ছেলে হাসানুজ্জামান (৩৮)।

কোটচাঁদপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আহম্মেদ কবীর হোসেন জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কোটচাঁদপুর থানা পুলিশ দোড়া ইউনিয়নের বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে জামায়াতের ৩ রোকন ও ২ সদস্যকে গ্রেফতার করে।

তাদের বিরুদ্ধে থানায় বিস্ফোরক ও সন্ত্রাসবিরোধী আইনে মামলা রয়েছে। গ্রেফতারকৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

অন্যরা য়া পড়ছে...

Loading...



চেক

বিকল্পের সন্ধানে কোটা বাতিলের প্রজ্ঞাপনে দেরি হচ্ছে : ওবায়দুল কাদের

ঢাকা, ১৩ মে ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষণা অনুযায়ী সরকারি চাকরিতে কোটা …

স্যাটেলাইট মহাকাশে ঘোরায় বিএনপির মাথাও ঘুরছে : মোহাম্মদ নাসিম

ফেনী, ১৩ মে ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ মহাকাশে উৎক্ষেপণ হওয়ায় বিএনপির মাথাও ঘুরছে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

My title page contents