৮:১৯ অপরাহ্ণ - বুধবার, ২১ নভেম্বর , ২০১৮
Breaking News
Download http://bigtheme.net/joomla Free Templates Joomla! 3
Home / জরুরী সংবাদ / দেশের উত্তরাঞ্চলের বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হচ্ছে

দেশের উত্তরাঞ্চলের বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হচ্ছে

bonna2    2.8.16ঢাকা, ০২ আগষ্ট, ২০১৬ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম):  দেশের উত্তরাঞ্চলের বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হচ্ছে। এছাড়া পদ্মা তীরবর্তী জেলাসমূহের বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হচ্ছে এবং আগামী কয়েক দিনে আরো উন্নতি হবে।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্ককরণ কেন্দ্রের নির্বাহী প্রকৌশলী সাজ্জাদ হোসেন জানান, ব্রহ্মপুত্র নদ ও যমুনা নদীতে পানি হ্রাস পাওয়ায় গাইবান্ধা, জামালপুর, সিরাজগঞ্জ, বগুড়া এবং ধরলা তীরবর্তী কুড়িগ্রাম জেলার বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হয়েছে। আগামী কয়েকদিনে ব্রহ্মপুত্র অববাহিকার নদ-নদীগুলোতে পানি হ্রাস পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। ফলে বন্যা পরিস্থিতির আরো উন্নতি হবে।

তিনি জানান, পদ্মা নদীর পানি স্থিতিশীল রয়েছে এবং আগামী কয়েকদিনে পানি হ্রাস পাবে। ফলে রাজবাড়ী, মানিকগঞ্জ, মুন্সিগঞ্জ ও শরিয়তপুর জেলার নি¤œাঞ্চলে বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হবে।

নির্বাহী প্রকৌশলী জানান, দেশের নদ-নদীর ২৮টি স্থানে পানি বৃদ্ধি ও ৫৪টি স্থানে পানি হ্রাস পেয়েছে। ৩টি স্থানে পানি অপরিবর্তিত রয়েছে।

তিনি জানান, রাজধানী ঢাকার আশপাশে বুড়িগঙ্গা, তুরাগ, বালু ও শীত লক্ষ্যা নদ-নদীর পানি সমতল বৃদ্ধি পাচ্ছে। যা আগামী ২৪ ঘণ্টা পর্যন্ত অব্যাহত থাকতে পারে। আজ সকাল ৯টার তথ্যানুযায়ী ডেমরায় বালু নদীর পানি ২৩ সেন্টিমিটার এবং মিরপুরে তুরাগ নদীর পানি ২১ সেন্টিমিটার বিপদ সীমার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

আগামী ২৪ ঘণ্টায় ঢাকা শহরের পূর্ব পাশে বালু নদী সংলগ্ন নি¤œাঞ্চলে পানি সমতল বৃদ্ধি অব্যাহত থাকতে পারে।
রংপুর থেকে বাসস প্রতিনিধি জানান, গত ৩ দিনে ব্রহ্মপুত্র অববাহিকায় বন্যা পরিস্থিতির উল্লেখভাবে উন্নতি হয়েছে। ফলে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় স্বাভাবিক অবস্থা ফিরে আসতে শুরু করেছে। সরকারি ও স্থানীয় সূত্র এ কথা জানায়।
বন্যা কবলিত রংপুর, নীলফামারী ও লালমনিরহাট জেলায় স্বাভাবিক অবস্থা ফিরে আসতে শুরু করেছে এবং কুড়িগ্রাম গাইবান্ধা, বগুড়া ও সিরাজগঞ্জ জেলার বন্যা পরিস্থিতির দ্রুত উন্নতি হচ্ছে। পানি উন্নয়ন বোর্ড এ কথা জানায়।

জেলা প্রশাসন সূত্র জানায়, বন্যা পরিস্থিতির আরো উন্নতি হওয়ায় ক্ষতিগ্রস্ত উত্তরাঞ্চলের ৭টি জেলার বন্যায় ঘর ছাড়া মানুষ ঘরে ফিরতে শুরু করেছে।

কুড়িগ্রাম পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মাহফুজুর রহমান জানান, গত কয়েকদিনে প্রধান নদী ও শাখা নদীগুলোতে পানি হ্রাস পাওয়ায় বন্যা পরিস্থিতির উন্নতির সাথে ব্যাপক ভাঙ্গনের খবর পাওয়া যাচ্ছে।

তিনি জানান, পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তা ও কর্মচারীগণ ঘনিষ্ঠভাবে পরিস্থিতি মনিটরিং করছে এবং বন্যার পানি হ্রাস পাওয়ার সাথে সাথে ঝুঁকিপূর্ণ পয়েন্টে বালি ভর্তি ব্যাগ ও প্রয়োজনীয় উপকরণ আমরা রেখেছি।

পানি উন্নয়ন বোর্ড সূত্র জানায়, নুনখাওয়ায় ব্রহ্মপুত্রের পানি বিপদসীমার ৮৬ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে এবং চিলমারীতে ২০ সেন্টিমিটার ও ফুলছুড়ি পয়েন্টে ২৫ সেন্টিমিটার বিপদসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

আজ সকাল ৯টায় ব্রহ্মপুত্র অববাহিকায় যমুনা নদীর পানি বাহাদুরাবাদে ৬৩টি সেন্টিমিটার, সারিয়াকান্দিতে ৫২ সেন্টিমিটার, কাজীপুরে ৫২ সেন্টিমিটার এবং সিরাজগঞ্জে ৫০ সেন্টিমিটার বিপদসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় পানি আরো হ্রাস পাওয়ায় আজ সকালে ডালিয়ায় তিস্তা নদীর পানি ৪৮ সেন্টিমিটার এবং কাউনিয়ায় ১৫৪ সেন্টিমিটার বিপদসীমার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

গত ২৪ ঘন্টায় পানি দ্রুত হ্রাস পাওয়ায় কুড়িগ্রামে ধরলা নদীর পানি বিপদসীমার ওপর দিয়ে এবং গাইবান্ধায় ঘাঘট নদীর পানি বিপদসীমা ২৭ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিল।

জেলা প্রশাসন এবং পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তাগণ জানান, আগামী ৭২ ঘন্টায় প্রধান নদী ও শাখা নদীগুলোতে পানি হ্রাস অব্যাহত থাকলে বন্যা পরিস্থিতি আরো উন্নতি হবে এবং ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় স্বাভাবিক অবস্থা ফিরে আসবে।

অন্যরা য়া পড়ছে...

Loading...



চেক

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ওমরাহ পালন

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৃহস্পতিবার রাতে এখানে পবিত্র …

জনগণ ছেড়ে বিদেশিদের কাছে কেন : ঐক্যফ্রন্টকে ওবায়দুল কাদের

গাজীপুর, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): শুক্রবার বিকেলে গাজীপুরের চন্দ্রায় ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক চার লেনে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

My title page contents