৭:৩৭ পূর্বাহ্ণ - বুধবার, ২১ নভেম্বর , ২০১৮
Breaking News
Download http://bigtheme.net/joomla Free Templates Joomla! 3
Home / খেলাধুলা / অন্যান্য খেলার খবর / অলিম্পিকের মতো বড় আসরে সরাসরি খেলার যোগ্যতা অর্জন করতে চাই : মেজবাহ আহমেদ

অলিম্পিকের মতো বড় আসরে সরাসরি খেলার যোগ্যতা অর্জন করতে চাই : মেজবাহ আহমেদ

mazba    31.7.16স্পোর্টস ডেস্ক, ৩১ জুলাই, ২০১৬ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): জাতীয় আসরগুলোতে মো. মেজবাহ আহমেদের সফলতা ঈর্ষণীয় হলেও এখন পর্যন্ত আন্তর্জাতিক পরিমন্ডলে কোন পদক নেই তার। বাগেরহাটের চিতলমারী উপজেলার ডুমুরিয়া গ্রামে জন্মগ্রহণকারী এই অ্যাথলেট নবম শ্রেণেিত পড়ার সময়েই জুনিয়র মিটে ঈর্ষণীয় সফলতা অর্জন করেন।

তখন থেকেই অলিম্পিকে অংশগ্রহণের স্বপ্ন মনের মধ্যে পুঞ্জিভূত হতে থাকে মেজবাহর মধ্যে। ২০০৮ সালে বেইজিং অলিম্পিক দেখার পর অলিম্পিকে অংশগ্রহণের স্বপ্ন দেখতে থাকেন তিনি। ব্রাজিলের রিও অলিম্পিকে প্রথমবারের মতো অংশগ্রহণের সুযোগ পেয়ে তাই বেশ উচ্ছ্বসিত এ আ্যাথলেট।

বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থাকে (বাসস) দেয়া এক সাক্ষাৎকারে মেজবাহ বলেন, ‘এখন আমি খুশি হলেও পুরোপুরি তৃপ্ত নই। ওয়াইল্ড কার্ড নয়, যোগ্যতা দিয়ে আমি অলিম্পিকের মতো বড় আসরগুলোতে অংশগ্রহণের সুযোগ সৃষ্টি করতে চাই। বাংলাদেশ থেকে কৃতি গলফার সিদ্দিকুর রহমান সরাসরি অংশগ্রহণের এই সুযোগটি পাওয়ার পর আমার মধ্যেও এই চাওয়াটি প্রবল হচ্ছে।’
অলিম্পিকে বিশ্ব সেরা তারকাদের ভিড়ে পদক পাওয়ার স্বপ্ন দেখাটা আকাশ-কুসুম কল্পনা বলেই মানছেন তিনি। সেখানে অভিজ্ঞতা অর্জন করাটাই নিজের জন্য সেরা অর্জন উল্লেখ করে মেজবাহ বলেন, ‘এই অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে আসন্ন এসএ গেমসসহ অপেক্ষাকৃত ছোট্ট পরিসরের আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টগুলোতে স্বর্ণপদক জয় করে দেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করতে চাই।’
বাগেরহাটের আল-ইসলাহ একাডেমীতে প্রশিক্ষণ নেয়া মেজবাহ একাডেমীর সহায়তা নিয়েই ভর্তি হয়েছিলেন বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে (বিকেএসপি)। সেখান থেকেই মূলত জাতীয় প্রতিযোগিতায় ভালো করার একটি তাড়না নিজের মধ্যে অনুভূত হয়। তিনি যখন নবম শ্রেণীতে, তখনই জাতীয় জুনিয়র অ্যাথলেটিকস প্রতিযোগিতায় শ্রেষ্ঠত্ব অর্জনের মাধ্যমে সবার দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। ২০০৯ সালে জুনিয়র মিটে ৫টি স্বর্ণপদক লাভ করেন মেজবাহ। পরের বছর ২০১০ সালে জাতীয় রেকর্ডসহ ৬টি ইভেন্টে স্বর্ণপদক লাভ করেন বাংলাদেশ নৌবাহিনীর এই কৃতি অ্যাথলেট। এ সময় ত্রিপল জাম্প ইভেন্টে নতুন জাতীয় রেকর্ড গড়েন মেজবাহ।
২০১১ সালেই সিনিয়র মিটে অংশগ্রহণ করেন তিনি। এ সময় ১০০ মিটার দৌঁড় ও ট্রিপল জাম্পে তৃতীয় স্থান অর্জন করেন তিনি। পরের বছর ২০১২ সালে ত্রিপল জাম্পে স্বর্ণপদক অর্জন করলেও দ্বিতীয় স্থান নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে ১০০ মিটার স্প্রিন্টে।
২০১৪ সালে এসে নিজেকে পুরোপুরি মেলে ধরতে সক্ষম হন মেজবাহ। ১০০ মিটার ইভেন্টে শ্রেষ্ঠত্বের মুকুট নিয়ে দ্রুততম মানবের খেতাব অর্জনের পাশাপাশি তিনি স্বর্ণপদক জয় করেছেন ২০০ মিটার, ৪ ী ২০০ মিটার রিলে ও ট্রিপল জাম্প ইভেন্টে। পরের বছর অর্থাৎ ২০১৫ সালে ১০০ মিটার ইভেন্টে স্বর্ণ জয় করলেও দ্বিতীয় স্থান পেয়েছেন ২০০ মিটার ইভেন্টে। রিলের স্বর্ণপদক অবশ্য অক্ষুণ্ন রাখেন তিনি।
জাতীয় আসরের পাশাপাশি বেশক’টি আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণ করেছেন মেজবাহ। এসব আসর থেকে কোনো পদক জয় করতে না পারলেও চলতি বছরের শুরুর দিকে ভারতের গৌহাটিতে অনুষ্ঠিত এসএ গেমসে নিজের ক্যারিয়ার সেরা টাইমিংটি খুঁজে পেয়েছেন মেজবাহ। এ ছাড়া ২০০৯ সালে সিঙ্গাপুরে এশিয়ান ইয়ুথ গেমস, ২০১২ সালে তুরস্কে বিশ্ব ইনডোর অ্যাথলেটিকস, ২০১৩ সালে রাশিয়ায় বিশ্ব অ্যাথলেটিকস চ্যাম্পিয়নশীপ ও ২০১৪ সালে স্কটল্যান্ডের গ্লাসগোতে অনুষ্ঠিত কমনওয়েলথ গেমসে অংশগ্রহণের সুযোগ লাভ করেছেন মেজবাহ।
খেলোয়াড়ি জীবন শেষ করে অ্যাথলেটিকস কোচ হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে চান মেজবাহ। তার স্বপ্ন নিজের হাতে গড়া অ্যাথলেট অর্জন করবে দ্রুততম মানব-মানবীর খেতাব।

অন্যরা য়া পড়ছে...

Loading...



চেক

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ওমরাহ পালন

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৃহস্পতিবার রাতে এখানে পবিত্র …

জনগণ ছেড়ে বিদেশিদের কাছে কেন : ঐক্যফ্রন্টকে ওবায়দুল কাদের

গাজীপুর, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): শুক্রবার বিকেলে গাজীপুরের চন্দ্রায় ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক চার লেনে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

My title page contents