১১:৫০ পূর্বাহ্ণ - বৃহস্পতিবার, ১৫ নভেম্বর , ২০১৮
Breaking News
Download http://bigtheme.net/joomla Free Templates Joomla! 3
Home / অর্থনীতি / বাণিজ্যমন্ত্রী মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশি সকল পণ্যের শুল্কমুক্ত প্রবেশাধিকার চেয়েছেন

বাণিজ্যমন্ত্রী মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশি সকল পণ্যের শুল্কমুক্ত প্রবেশাধিকার চেয়েছেন

tofayel  15.10.15ঢাকা, ১৫ অক্টোবর ২০১৫ (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): আজ ঢাকায় প্যানপ্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে বাংলাদেশ-মালয়েশিয়া চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি আয়োজিত তিনদিনব্যাপী ‘৪র্থ শোকেস মালয়েশিয়া-২০১৫’-এর উদ্বোধন করে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশি সকল পণ্যের শুল্কমুক্ত প্রবেশাধিকার চেয়েছেন।

তিনি বলেন, মালয়েশিয়ার বাজারে বাংলাদেশের সকল পণ্যের শুল্কমুক্ত প্রবেশাধিকার দেওয়া হলে দু’দেশের বাণিজ্য ব্যবধান অনেক কমে আসবে।

তিনি বলেন, মালয়েশিয়ায় বর্তমানে ৪৯৪ ট্যারিফ লাইনের মধ্যে ১৯৭টির আওতায় মাত্র ১৯টি বাংলাদেশি পণ্য মালয়েশিয়ার বাজারে শুল্কমুক্ত সুবিধা পাচ্ছে। মালয়েশিয়া ট্যারিফ ও নন-ট্যারিফ বাধাসমূহ দূর করলে সেখানে বাংলাদেশি পণ্যের রপ্তানি অনেক বৃদ্ধি পাবে।

বাংলাদেশ-মালয়েশিয়া চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি‘র প্রেসিডেন্ট নাসির এ চৌধুরির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশে নিযুক্ত মালয়েশিয়ার হাইকমিশনার নরলিন বিনতে ওথম্যান, এফবিসিসিআই-এর প্রেসিডেন্ট আব্দুল মতলুব আহমেদ এবং মেলার আয়োজক কমিটির চেয়ারম্যান সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন।

পৃথিবীর অনেক দেশই বাংলাদেশকে এ ধরনের সুবিধা প্রদান করছে উল্লেখ করে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, গত অর্থবছরে বাংলাদেশ মালয়েশিয়া থেকে আমদানি করেছে ১ হাজার ২৮৭.৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার মূল্যের পণ্য, একই সময়ে বাংলাদেশ রপ্তানি করেছে মাত্র ১৪০.০৯ মিলিয়ন মার্কিন ডলার মূল্যের পণ্য। বাংলাদেশের বাণিজ্যঘাটতি রয়েছে ১ হাজার ১৪৭.৪১ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। এ বিপুল বাণিজ্য ঘাটতি কমিয়ে আনতে মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশের বাণিজ্য সুবিধা প্রয়োজন।

তিনি বলেন, মালয়েশিয়ার বাজারে বাংলাদেশের পাট-পাটজাত পণ্য, মসলা, চামড়া- চামড়াজাত পণ্য, ওষুধ, আলু, শাকসবজি, সিরামিক টেবিল ওয়্যার, হিমায়িত মাছ, তৈরি পোশাক, নিটওয়্যার, টেক্সটাইল ও হালাল খাদ্যপণ্যের প্রচুর চাহিদা রয়েছে। বাণিজ্যসুবিধার কারণে চায়নার বাজারেও বাংলাদেশি পণ্যের রপ্তানি উল্লেখযোগ্য হারে বৃদ্ধি পেয়েছে।

মালয়েশিয়াকে বাংলাদেশের দীর্ঘদিনের বিশ্বস্ত বন্ধুরাষ্ট্র ও ব্যবসায়িক পার্টনার উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, বিভিন্ন আন্তর্জাতিক ফোরামে এই দেশটি বাংলাদেশকে সমর্থন দিয়ে আসছে। মালয়েশিয়কে বাংলাদেশের জনশক্তি রপ্তানির বড়বাজার বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

মন্ত্রী মালয়েশিয়ার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বাংলাদেশে বিনিয়োগের চমৎকার পরিবেশ বিরাজ করার কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে বলেন , মালয়েশিয়ার বিনিয়োগকারীগণ এখানে বিনিয়োগ করে লাভবান হতে পারেন। বাংলাদেশ সরকার বিদেশি বিনিয়োগকারীদের আকর্ষণীয় সুযোগ-সুবিধা দিচ্ছে।

অন্যরা য়া পড়ছে...

Loading...



চেক

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ওমরাহ পালন

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৃহস্পতিবার রাতে এখানে পবিত্র …

জনগণ ছেড়ে বিদেশিদের কাছে কেন : ঐক্যফ্রন্টকে ওবায়দুল কাদের

গাজীপুর, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): শুক্রবার বিকেলে গাজীপুরের চন্দ্রায় ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক চার লেনে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

My title page contents