৩:৫৭ পূর্বাহ্ণ - মঙ্গলবার, ২০ নভেম্বর , ২০১৮
Breaking News
Download http://bigtheme.net/joomla Free Templates Joomla! 3
Home / জরুরী সংবাদ / সকল মেডিকেল কলেজ, হাসপাতাল ও ক্লিনিক ধুমপানমুক্ত রাখতে হবে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

সকল মেডিকেল কলেজ, হাসপাতাল ও ক্লিনিক ধুমপানমুক্ত রাখতে হবে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

nasim    31.5.16ঢাকা, ৩১ মে ২০১৬ (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): আজ মঙ্গলবার ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে বিশ্ব তামাকমুক্ত দিবসের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় স্বাস্থ্য মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম দেশের সকল মেডিকেল কলেজ, হাসপাতাল ও ক্লিনিক ধুমপানমুক্ত রাখতে কর্তৃপক্ষকে কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণের নির্দেশ দিয়েছেন।

স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্য সচিব সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম সভাপতিত্ব করেন।
এদিকে দেশের সর্বস্তরের মানুষকে ধূমপানমুক্ত রাখতে সচেতনতা সৃষ্টিতে সবাইকে যার যার অবস্থান থেকে ভূমিকা পালনের আহ্বান জানানোর মধ্য দিয়ে আজ রাজধানীসহ সারা দেশে বিশ্ব তামাকমুক্ত দিবস পালিত হয়।

তামাকের ক্ষতিকর প্রভাব সম্পর্কে সচেতনতা সৃষ্টির জন্য বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে পৃথকভাবে আয়োজন করা হয় আলোচনা সভা, সেমিনার, শোভাযাত্রাসহ নানা কর্মসূচি।

এ উপলক্ষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) বিজনেস স্টাডিজ অনুষদ মিলনায়তনে ‘তামাক মুক্ত বাংলাদেশ চাই’ শীর্ষক এক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়।
ঢাবি বিজনেস স্টাডিজ অনুষদের সহযোগিতায় মাদক দ্রব্য ও নেশা নিরোধ সংস্থা (মানস) এই সেমিনারের আয়োজন করে।
মানস-এর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি অধ্যাপক ড. অরূপরতন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্য বিষয়ক উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী।

এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন ঢাবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক ও বিজনেস স্টাডিজ অনুষদের ডিন অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াতুল ইসলাম।

সেমিনারে অন্যান্যের মধ্যে আরও বক্তব্য রাখেন মানস-এর সাংগঠনিক সম্পাদক মতিউর রহমান তালুকদার, সদস্য সাদিয়া শারমিন উর্মি, মহিউদ্দিন প্রমুখ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রীর তথ্য বিষয়ক উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী বলেন, ধূমপান ও তামাকজাত দ্রব্য ব্যবহারে ব্যক্তি, পরিবার ও সমাজকে ক্রমান্বয়ে ধ্বংসের দিকে নিয়ে যায়।

তিনি বলেন, তামাক সেবনে বিশ্বে প্রতি বছর ৬০ লক্ষ লোক মৃত্যুবরণ করে, তার মধ্যে বাংলাদেশে মৃত্যুবরণ করে প্রায় ৫৭ হাজার মানুষ। তাই এ সমস্যাকে সামনে রেখে বর্তমান সরকার দেশে ধূমপান প্রতিরোধমূলক আইন প্রয়োগ ও বাস্তবায়ন করতে নানামুখী বাস্তব পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে।

ঢাবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক বলেন, মাদক ও তামাক ব্যক্তি, পরিবার, সমাজ, দেশ ও জাতির জন্য ক্ষতিকর। তাই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসকে মাদক ও তামাক মুক্ত এলাকা হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে। এজন্য তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষকসহ সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি সহযোগিতা করার আহ্বান জানান।

অন্যদিকে ‘বিশ্ব তামাকমুক্ত দিবস’ পালন উপলক্ষে আজ সকালে রাজধানীর জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে ধূমপান, মাদক ও সন্ত্রাস বিরোধী জোট : ক্যাট, ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি), আধূনিক, ধূমপান ও নেশা বিরোধী ছাত্র সংগঠন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাস্ক এবং চেতনা পরিষদ যৌথভাবে র‌্যালি ও সমাবেশের আয়োজন করে।

সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন ক্যাটের সভাপতি আলী নিয়ামত। এসময় আধূনিকের নির্বাহি সচিব এম এ জব্বার, ক্যাটের মহাসচিব আমজাদ হোসেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাস্ক-এর সভাপিতি এস এম হাহিদ হাসান নয়ন, চেতনা পরিসদেও সভাপতি জাহিদ সোহেলসহ ডিএমপির প্রতিনিধিবৃন্দ।

অন্যরা য়া পড়ছে...

Loading...



চেক

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ওমরাহ পালন

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৃহস্পতিবার রাতে এখানে পবিত্র …

জনগণ ছেড়ে বিদেশিদের কাছে কেন : ঐক্যফ্রন্টকে ওবায়দুল কাদের

গাজীপুর, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): শুক্রবার বিকেলে গাজীপুরের চন্দ্রায় ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক চার লেনে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

My title page contents