১:২৯ অপরাহ্ণ - বুধবার, ২১ নভেম্বর , ২০১৮
Breaking News
Download http://bigtheme.net/joomla Free Templates Joomla! 3
Home / সারা দেশের খবর / নাটোরের লালপুরে লোডশেডিং জনজীবন অতিষ্ট

নাটোরের লালপুরে লোডশেডিং জনজীবন অতিষ্ট

LalpurUpazilaমোঃ রুহুল কুদ্দুস কোহেল, লালপুর (নাটোর), ০৫ অক্টোবর ২০১৫ (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): বাংলাদেশের উষ্ণতম এবং কম বৃষ্টিপাতের এলাকা নাটোরের লালপুর উপজেলা। ভ্যাপসা গরমে জনজীবন অতিষ্ট। তার সাথে যোগ হয়েছে বিদ্যুতের লোড শেডিং। এতে লালপুর উপজেলাবাসী চরম দূর্বিসহ জীবন যাপন করছে। সেই সাথে কল-কারখানার ও ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রম ব্যহত হচ্ছে। রাত নেই দিন নেই এবং কোন নিয়ম নীতির তোয়াক্কা না করেই চলছে লোড শেডিং। রাতে ২/৩বার এবং দিনে ৩ থেকে ৪ বার বিদ্যুৎ চলে যাওয়ায় সবচেয়ে বেশী ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে শিক্ষার্থী, অসুস্থ রুগি, শিশু ও বয়স্ক মানুষরা।

বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা জানায়, সামনে বিদ্যালয়ের বার্ষিক পরীক্ষা, পিএসসি, জেএসসি ও এসএসসি পরীক্ষা। যখন আমাদের পড়ার সময় ঠিক তখনই চলে যায় বিদ্যুৎ। ভ্যাপসা গরমে বিদ্যুৎ না থাকলে পড়া তো দূরের কথা, ঘরে থাকা দায় হয়ে পড়ে।

স্থানীয়দের কয়েকজন জানান, কয়েকদিন আগেও লোড শেডিং এর মাত্রা কম ছিল। কিন্তু বর্তমানে এর মাত্রা দিন দিন বেড়েই চলেছে। গরমের পাশাপাশি বিদ্যুতের ব্যবহারও বেড়ে গেছে বহুগুনে। যেমন অটো চার্জার, চার্জার ভ্যান, রাইস কুকার, মর্টারের ব্যবহার বৃদ্ধির কারণে বিদ্যুতের উপর অতিমাত্রায় লোড পড়ছে। সেই সাথে সম্প্রতি প্রায় অর্ধশত গ্রামে নতুন বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়া হয়েছে। ফলে ধারণ ক্ষমতার বেশী বৈদ্যুতিক চাহিদা থাকায় কাঙ্খিত বিদ্যুৎ সুবিধা পাচ্ছে না এ উপজেলার গ্রাহকরা।

লালপুরে বিদ্যুতের ঘাটতি বিষয়ে নাটোর পল্লীবিদ্যুৎ সমীতি-২্ এর লালপুর জোনাল অফিসের জুনিয়র ইঞ্জিনিয়ার কামরুজ্জামান জানান, উপজেলায় বিদ্যুতের চাহিদা প্রায় সাড়ে ১১ থেকে ১২ মেগওয়াট। কিন্তু লালপুর সাবষ্টেশনের ধারণ ক্ষমতা মাত্র সাড়ে ৮ মেগওয়াট। জাতীয় গ্রীড শুধুমাত্র ষ্টেশনের ধারণ ক্ষমতা অনুযায়ী বিদুৎ সরবরাহ করে থাকে। এতে করে ৩ থেকে সড়ে ৩ মেগওয়াট বিদ্যুৎ ঘাটতি থেকে যায়। আর এ ঘাটতি মেটাতে লালপুর গোপালপুর সহ উপজেলার সকল গ্রামে দিনে রাতে লালপুর সদর, গোপালপুর সদর, আব্দুলপুর ও বিলমাড়ীয়া-দুড়দুড়িয়া এই ৪টি ফিডারে পালাক্রমে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ রাখতে হয়। এতে করে প্রতি ফিডারে গড়ে ২ ঘন্টা লোড শেডিং থাকে। তিনি আরো জানায়, গত ৪ মাস যাবৎ প্রতি মাসে ৭০০ জনকে নতুন বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়া হচ্ছে। লোড শেডিং কমাতে হলে সাব-ষ্টেশনের ক্ষমতা বাড়িয়ে ১৫ মেগওয়াট ধারণ ক্ষমতায় উন্নিত করা দরকার। অথবা নিকটবর্তী অন্য সাব-ষ্টেশনের সাথে কিছু এলাকা যুক্ত করতে হবে। জোনাল অফিস এই বিদ্যুৎ সমস্যাকে লোড শেডিং বলে মেনে নিচ্ছেন না, বরং তারা বলছেন এটা ফোর্স শেডিং অর্থাৎ চাহিদার তুলনায় ধারণ ক্ষমতা কম থাকা। তিনি আরো জানান, শীত মৌসুমে সাথে সাথে বিদ্যুত সংকট অনেকাংশে কমে আসবে।

তবে, ভুক্ত ভোগীরা এ সব মানতে নারাজ। তাদের দাবী সাব-ষ্টেশনের ধারণ ক্ষমতা বাড়িয়ে নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ। আর এ সমস্যা দ্রুত সমাধানে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ যথাযথ ব্যবস্থা নিবেন এমনটাই আশা লালপুরবাসীর।

অন্যরা য়া পড়ছে...

Loading...



চেক

মন্ত্রী-প্রধানমন্ত্রী হওয়ার স্বপ্ন স্বপ্নই থেকে যাবে : মাহবুব-উল আলম হানিফ

কুষ্টিয়া, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): আজ শুক্রবার বেলা ১২টায় কুষ্টিয়া শহরের পিটিআই রোডে …

রাজবাড়ী বালিয়াকান্দীর নলিয়া জামালপুর স্টেশনের অদুরে ট্রেনের ধাক্কায় নছিমনের তিন যাত্রী নিহত

রাজবাড়ী, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): আজ শুক্রবার দুপরে রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলার জামালপুর স্টেশনের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

My title page contents