৮:১৮ পূর্বাহ্ণ - মঙ্গলবার, ১৩ নভেম্বর , ২০১৮
Breaking News
Download http://bigtheme.net/joomla Free Templates Joomla! 3
Home / রাজনীতি / আওয়ামী লীগ / দুই মন্ত্রীকে সাজা : প্রতিক্রিয়া না জানাতে দলের নেতাদের নির্দেশ

দুই মন্ত্রীকে সাজা : প্রতিক্রিয়া না জানাতে দলের নেতাদের নির্দেশ

kamrul & Mozammal   27.3.16ঢাকা, ২৭ মার্চ ২০১৬ (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): আদালত অবমাননার অভিযোগে খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম ও মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হকের বিরুদ্ধে শাস্তি ঘোষণা নিয়ে কোনো ধরনের প্রতিক্রিয়া জানাতে কিংবা কথা বলতে দলের নেতাদের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। রায় ঘোষণার পর প্রতিক্রিয়া জানতে দলের কয়েকজন শীর্ষ নেতার সঙ্গে যোগাযোগ করলে তারা এ কথা জানান।

তবে সরকারের এ দুই গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রীর বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতের এই রায়কে বিচার বিভাগের স্বাধীনতার বহিঃপ্রকাশ হিসেবে দেখছেন দলটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ।

যুদ্ধাপরাধ মামলায় জামায়াতের নেতা মীর কাসেম আলীর রিভিউ আবেদনের রায়ের আগে প্রধান বিচারপতি ও বিচার বিভাগ নিয়ে অবমাননাকর বক্তব্য দেয়ায় আপিল বিভাগ এই দুই মন্ত্রীকে ৫০ হাজার টাকা করে জরিমানা, অনাদায়ে সাত দিনের কারাদণ্ড দিয়েছেন।

এ বিষয়ে আওয়ামী লীগের সভাপতিণ্ডলীর দুজন সদস্য, সম্পাদকমণ্ডলীর বেশ কয়েকজন সদস্যের কথা হয়। তাদের বেশির ভাগই এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে অপরাগতা প্রকাশ করেন। তারা জানান, এ নিয়ে সতর্কভাবে কথা বলতে দলের শীর্ষপর্যায় থেকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

রবিবার দুপুরে সচিবালয়ে দলটির সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী সাংবাদিকদের বলেন, “আদালত নিয়ে কোনোদিন কিছু বলিনি, আর বলবও না। আমরা আইনে বিশ্বাস করি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও আইনে বিশ্বাস করেন। তাই তিনিও আদালত সম্পর্কে কোনো মন্তব্য করেন না।”

মতিয়া চৌধুরী বলেন, “আজ কোর্ট একটা জাজমেন্ট দিয়েছে। এটা আইনগত ব্যাপার। আমি আমার তরফ থেকে এর পক্ষে বা বিপক্ষে কোনো কিছু বলব না।”

দলটির একজন সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য বলেন, “দল থেকে আমাদের বলা হয়েছে এ বিষয়ে ব্যক্তিগতভাবে কেউ যেন মন্তব্য না করে। সাধারণ সম্পাদক কিংবা যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ সাহেব দলের  সঙ্গে আলোচনা করে এ বিষয়ে কথা বলবেন।”

জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ বলেন, “ন্যায়বিচারের স্বার্থে যা করার তা-ই করছে বিচার বিভাগ। দুই মন্ত্রীর বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক রায়ে প্রমাণ হয়েছে বিচার বিভাগ সম্পূর্ণ স্বাধীন। বাংলাদেশের ইতিহাসে কোনো মন্ত্রীর বিরুদ্ধে এ ধরনের রায় দেয়ার কোনো নজির নেই। বর্তমান সরকার স্বাধীন বিচার ব্যবস্থায় বিশ্বাসী।”

আদালত অবমাননার দায়ে আজ রবিবার সকালে খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম ও মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হককে সাজা দেন আপিল বিভাগ।  ভবিষ্যতে আদালত নিয়ে অবমাননাকর বক্তব্য দিলে আরও কঠোর সাজা দেয়ার কথাও জানিয়েছেন আদালত। জরিমানার ৫০ হাজার টাকা কিডনি ফাউন্ডেশন অথবা ইসলামিয়া চক্ষু হাসপাতালে দেয়ার জন্য আদালতের রায়ে বলা হয়েছে।

গত ৫ মার্চ একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির আলোচনা সভায় এই দুই মন্ত্রী বিচার বিভাগ নিয়ে অবমাননাকর বক্তব্য দেন। খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহাকে বাদ দিয়ে মীর কাসেমের মামলার আপিল শুনানি পুনরায় করার দাবি জানান। এ বক্তব্য মিডিয়ায় প্রকাশের পর গত ৮ মার্চ দুই মন্ত্রীকে তলব করেন সাত বিচারপতির পূর্ণাঙ্গ আপিল বেঞ্চ।

গত ১৫ মার্চ দুই মন্ত্রী আইনজীবীর মাধ্যমে আদালতে নিঃশর্ত ক্ষমা চেয়ে আবেদন করেন। তবে খাদ্যমন্ত্রী দেশের বাইরে থাকায় তার পক্ষে আদালতে সময় চাওয়া হয়েছিল। আদালত বিষয়টি শুনানির জন্য ২০ মার্চ দিন পুনর্নিনির্ধারণ করেন।

২০ মার্চ দুই মন্ত্রী আদালতে হাজির হয়ে তাদের বক্তব্যের জন্য নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থনা করেন এবং বক্তব্যের ব্যাখ্যা দেন। কিন্তু খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলামের বক্তব্য সন্তোষজনক না হওয়ায় ২৭ মার্চ তাদের দুজনকেই ফের আদালতে হাজির হতে নির্দেশ দেন আদালত। আজ আদালতে হাজির হলে আপিল বিভাগ এই রায় ঘোষণা করেন।

অন্যরা য়া পড়ছে...

Loading...



চেক

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ওমরাহ পালন

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৃহস্পতিবার রাতে এখানে পবিত্র …

জনগণ ছেড়ে বিদেশিদের কাছে কেন : ঐক্যফ্রন্টকে ওবায়দুল কাদের

গাজীপুর, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): শুক্রবার বিকেলে গাজীপুরের চন্দ্রায় ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক চার লেনে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

My title page contents