৯:৪৩ পূর্বাহ্ণ - বুধবার, ২১ নভেম্বর , ২০১৮
Breaking News
Download http://bigtheme.net/joomla Free Templates Joomla! 3
Home / রাজনীতি / অন্যান্য দলের খবর / বঙ্গভবনের গেটে বিব্রত সৈয়দ ইবরাহিম

বঙ্গভবনের গেটে বিব্রত সৈয়দ ইবরাহিম

ibrahim   16.12.15ঢাকা, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৫ (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): আমন্ত্রণ পেলেও বঙ্গভবনে প্রবেশের অনুমতি না পাওয়ায় বিজয় দিবসের অনুষ্ঠানে অংশ নিতে পারেননি মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম, বীরপ্রতীক। পরে বঙ্গভবনের গেট থেকেই তাকে চলে আসতে হয়।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে স্টাটাস দিয়ে নিজেই বিষয়টি জানান এবং ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

এতে বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম ‘একজন বীরপ্রতীক-এর জন্য বিজয় দিবসের উপহার’ শিরোনামে ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেছেন,‘বিজয় দিবসে একজন বীর প্রতীককে অপমান করা কি জরুরি?’

একই সঙ্গে তিনি আমন্ত্রণপত্র এবং গাড়িতে বঙ্গভবনে প্রবেশের স্টিকারযুক্ত দুটো ছবিও পোষ্ট করেন।

লেখাটি হুবহু তুলে ধরা হলো- “বড় ঘটনা,ছোট বর্ণনা ! ছবিগুলি দ্রস্টব্য। ১৬-১২-২০১৫ ; আজ মহান বিজয় দিবসের বিকালে, বঙ্গভবনের গেইটে, বিব্রত হলাম। সেই ঘটনা শেয়ার করছি। ১৯৮০ সাল থেকেই বঙ্গভবনে দাওয়াত পাই –বিজয় দিবস, স্বাধীনতা দিবস এবং দুই ঈদের দিবস। এই পর্যন্ত কোন ব্যত্যয় হয়নি। আজ হল। হওয়াটা বড় কথা, তার থেকেও বড় কথা, কেন হল সেটাই বড় কথা ? একই প্রসঙ্গে ইংরেজিতে একটা পোস্ট দিয়েছি ঘন্টা-খানিক আগে— ঐখানে দুই-চারটা বাক্য বেশি আছে হয়তো।

দাওয়াত পেয়ে বঙ্গভবনে গেলাম। গেইট থেকে ফেরত দিলেন এস এস এফ এর ক্যপ্টেন এবং ট্রাফিক পুলিশের সারজেন্ট। বল্লেন, আপনাকে ফেরত যেতে হবে। ফেরত চলে আসলাম। বিষয়টা বোধগম্য হলনা……। দাওয়াত না দিলে, মনে মনে বলতাম যে, রাজনীতিবিদ ইবরাহিম-কে গোয়েন্দা সংস্থাগুলি ছাড়পত্র দেয়নি। কিন্তু দাওয়াত দিয়ে গেইট থেকে ফেরত দেওয়াটা…….?? মুক্তিযুদ্ধের “বীর প্রতীক” বিজয় দিবসের অনুষ্ঠানে যাবেন না? —?

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম ঢাকাটাইমস টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, ‘আমার তিনটি পরিচয় আছে। আমি একজন বীরপ্রতীক। আমি একজন অবসরপ্রাপ্ত মেজর জেনারেল। আমি নিবন্ধিত একটি রাজনৈতিক দলের প্রধান। আমাকে বিজয় দিবস উপলক্ষে চিঠি দিয়ে বঙ্গভবনে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। নির্দিষ্ট প্রবেশপথে যাওয়ার পর সেখানে অবস্থান করা একজন ক্যাপ্টেন আমাকে বিনয়ের সঙ্গে বলেছেন, আপনি প্রধান গেট দিয়ে যান। এরপর আমি প্রধান গেটে চলে আসি। সেখানে অবস্থান করা সার্জেন্ট আমাকে জানান,তাঁর (সার্জেন্ট) কাছে স্পেশাল সিকিউরিটি ফোর্সের (এসএসএফ) একটা তালিকা আছে। তালিকায় থাকা ব্যক্তিরা বঙ্গভবনে প্রবেশ করতে পারবেন না। দুঃখিত বলে আমাকে ফেরত যেতে বলা হয়।”

সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম বলেন, ‘আমি খুবই অপমানিত বোধ করছি। ১৯৮০ সাল থেকে বিজয় দিবস,স্বাধীনতা দিবস ও ঈদ উপলক্ষে আমাকে বঙ্গভবনে আমন্ত্রণ জানানো হয়। আমাকে দাওয়াত না দিলে এক কথা।’

তিনি আরো বলেন, ‘আজকের পরিচয় সাম্প্রতিক। এটা বদলে যেতে পারে। কিন্তু ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের ভূমিকা অপরিবর্তনীয়, নায়করা নায়কই থেকে যাবেন। আমার বীরপ্রতীক পরিচয় থেকেই যাবে,তা মুছবে না।’ সৌজন্যে ঢাকাটাইমস

অন্যরা য়া পড়ছে...

Loading...



চেক

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ওমরাহ পালন

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৃহস্পতিবার রাতে এখানে পবিত্র …

জনগণ ছেড়ে বিদেশিদের কাছে কেন : ঐক্যফ্রন্টকে ওবায়দুল কাদের

গাজীপুর, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): শুক্রবার বিকেলে গাজীপুরের চন্দ্রায় ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক চার লেনে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

My title page contents