৭:১১ অপরাহ্ণ - মঙ্গলবার, ২০ নভেম্বর , ২০১৮
Breaking News
Download http://bigtheme.net/joomla Free Templates Joomla! 3
Home / আন্তর্জাতিক / নিজের ২৩ বছরের পুরোনো বীর্য ব্যবহার করে বাবা হলেন অস্ট্রেলিয়ার এক নাগরিক

নিজের ২৩ বছরের পুরোনো বীর্য ব্যবহার করে বাবা হলেন অস্ট্রেলিয়ার এক নাগরিক

world's oldest sperm after dad froze it 23 years ago2   12.12.15হেলথ ডেস্ক, ১২ ডিসেম্বর ২০১৫ (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): নিজের ২৩ বছরের পুরোনো বীর্য (স্পার্ম) ব্যবহার করে বাবা হলেন অস্ট্রেলিয়ার এক নাগরিক। আর এতে গিনেজ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে স্থান করে নিয়েছে জেভিয়ার পাওয়েল নামের ছয় মাসের শিশুটি। ২৩ বছর আগে শিশুটির বাবা অ্যালেক্স পাওয়েল তার কিছু বীর্য ফ্রিজে রেখেছিলেন।

মাত্র ১৫ বছর বয়সে দুরারোগ্য হডকিন্স লিম্ফোমাতে আক্রান্ত হয়েছিলেন অ্যালেক্স পাওয়েল। তখন চিকিৎসার অংশ হিসেবে তাকে কেমোথেরাপি দেয়ার প্রয়োজন হয়।

অ্যালেক্স পাওয়েল জানান, কেমোথেরাপি শুরু করার আগে তিনি সিদ্ধান্ত নেন তার বীর্য ফ্রিজে রেখে দেবেন। কারণ কেমোথেরাপির পর তার প্রজননক্ষমতা নষ্ট হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা ছিল।

world's oldest sperm after dad froze it 23 years ago1   12.12.15ফ্রিজে রেখে দেয়া সেই বীর্যে ২৩ বছর পর অ্যালেক্স এখন এক ফুটফুটে সন্তানের বাবা। তিনি ও তার স্ত্রী ভি সন্তান লাভের এই ঘটনায় খুবই খুশি।

২০১৩ সালে অ্যালেক্স দম্পতি ইনভাইট্রো ফার্টিলাইজেশন(আইভিএফ) করে সন্তান নেয়ার আশায়। অবশেষে, আইভিএফ করার ঠিক এক বছর পর অ্যালেক্সের স্ত্রী গর্ভধারণ করেন এবং ২০১৫ সালের ১৭ জুন তাদের সন্তান পৃথিবীর আলোর মুখ দেখে।

অ্যালেক্স তার অনুভূতি জানাতে গিয়ে বলেন, “আমার জন্য বাবা হওয়াটা কী ধরনের অনুভূতি, তা বলে বোঝাতে পারব না।”

world's oldest sperm after dad froze it 23 years ago3   12.12.15এর আগে যুক্তরাজ্যে ২১ বছরের পুরনো স্পার্ম ব্যবহার করে সন্তান জন্মদানের নজির আছে। সূত্র: মিরর ইউকে।

অন্যরা য়া পড়ছে...

Loading...



চেক

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ওমরাহ পালন

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৃহস্পতিবার রাতে এখানে পবিত্র …

জনগণ ছেড়ে বিদেশিদের কাছে কেন : ঐক্যফ্রন্টকে ওবায়দুল কাদের

গাজীপুর, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং (বাংলা-নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম): শুক্রবার বিকেলে গাজীপুরের চন্দ্রায় ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক চার লেনে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

My title page contents